আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হলো জালালের লাশ
jugantor
আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হলো জালালের লাশ

  চুনারুঘাট প্রতিনিধি  

১৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪:৫৩:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হলো জালালের লাশ

দাফনের প্রায় আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হয়েছে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট বড়মপুর গ্রামে বিদ্যুৎস্পর্শে মৃত জালাল মিয়ার (৩০) লাশ।

আদালতের আদেশে ময়নাতদন্তের জন্য রোববার দুপুরে তার লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়। এর পর সন্ধ্যায় আবার লাশ দাফন করা হয়।

জালাল মিয়া বড়মপুর গ্রামের হাজী মো. ছোবহান মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকা সূত্র জানায়, গত ৩০ জুলাই শ্রীরামপুর গ্রামের সুদির দাসের দোকানে বিদ্যুৎস্পর্শে জালালের মৃত্যু হয়। এর পর জালালের বাবা একই গ্রামের রুহুল আমীনসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে তার ছেলেকে হত্যার অভিযোগ আনেন।

তিনি জালালের মৃত্যুর কারণ নির্ণয়ে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আমলি আদালতে আবেদন করেন। আদালতের নির্দেশে চুনারুঘাটের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিলটন চন্দ্র পালের তত্ত্বাবধানে বড়মপুর কবরস্থানের কবর থেকে জালালের লাশটি তোলা হয়।

পরে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ সন্ধ্যায় আবার বড়মপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হলো জালালের লাশ

 চুনারুঘাট প্রতিনিধি 
১৯ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হলো জালালের লাশ
ফাইল ছবি

দাফনের প্রায় আড়াই মাস পর কবর থেকে তোলা হয়েছে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট বড়মপুর গ্রামে বিদ্যুৎস্পর্শে মৃত জালাল মিয়ার (৩০) লাশ।

আদালতের আদেশে ময়নাতদন্তের জন্য রোববার দুপুরে তার লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়। এর পর সন্ধ্যায় আবার লাশ দাফন করা হয়।

জালাল মিয়া বড়মপুর গ্রামের হাজী মো. ছোবহান মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকা সূত্র জানায়, গত ৩০ জুলাই শ্রীরামপুর গ্রামের সুদির দাসের দোকানে বিদ্যুৎস্পর্শে জালালের মৃত্যু হয়। এর পর জালালের বাবা একই গ্রামের রুহুল আমীনসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে তার ছেলেকে হত্যার অভিযোগ আনেন।

তিনি জালালের মৃত্যুর কারণ নির্ণয়ে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আমলি আদালতে আবেদন করেন। আদালতের নির্দেশে চুনারুঘাটের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিলটন চন্দ্র পালের তত্ত্বাবধানে বড়মপুর কবরস্থানের কবর থেকে জালালের লাশটি তোলা হয়।

পরে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ সন্ধ্যায় আবার বড়মপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন