পিস্তল ও ইয়াবাসহ আ’লীগ নেতা গ্রেফতার
jugantor
পিস্তল ও ইয়াবাসহ আ’লীগ নেতা গ্রেফতার

  গজারিয়া (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৯ অক্টোবর ২০২০, ২২:৫২:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

দুইটি বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, দুইটি ম্যাগাজিন এবং ২৯০ পিস ইয়াবাসহ আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তার সহযোগী দুইজনকেও গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ এর একটি দল।

পরে গজারিয়া থানায় ৩টি মামলা দিয়ে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। সোমবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে গজারিয়া থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত হলেন- আওয়ামী লীগের বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন প্রধান, তার ছোটভাই আন্তঃজেলা ট্রাকচালক ইউনিয়নের গজারিয়া শাখার সভাপতি রিটু প্রধান ও তাদের ব্যবসায়ী পার্টনার আলমগীর হোসেন।

আটক আল আমিন প্রধান ও রিটু উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের তেতৈতলা গ্রামের মৃত গিয়াসউদ্দিন প্রধানের ছেলে ও আলমগীর হোসেন একই গ্রামের আশেক আলীর ছেলে বলে জানা গেছে।

তাদের গ্রেফতারের খবরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক দীর্ঘ প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে তাদের সমর্থকরা। এ সময় মহাসড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

র‌্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আক্তারুজ্জামান তিনজনকে আটকের খবর নিশ্চিত করে বলেন, তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে। আটক তিনজনের বিরুদ্ধে ১৮ থেকে ২০টি করে মামলা আছে বলেও জানান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আক্তারুজ্জামান।

তিনি জানান, গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে দুইটি বিদেশি পিস্তল (একটি ইতালির অপরটি পাকিস্তানি) জব্দ করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে তিন রাউন্ড গুলি, দুইটি ম্যাগাজিন ও ২৯০ পিস ইয়াবাও জব্দ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আটককৃতদের স্বজনরা জানান, বিকাল সাড়ে ৪টায় বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন প্রধান তেতৈতলা পুরাতন ফেরিঘাট এলাকায় তার ব্যবসায়ী কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন। তার ছোটভাই রিটু প্রধান এবং তাদের ব্যবসায়ী পার্টনার আলমগীর হোসেনও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় সাদা একটি মাইক্রোবাসে করে একদল লোক নিজেদের র‌্যাব পরিচয় দিয়ে তাদের তিনজনকে আটক করে তাদের সঙ্গে নিয়ে যেতে চান। র‌্যাব জানায়, তাদের কাছে অস্ত্র এবং ইয়াবা পাওয়া গেছে। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় লোকজন ঘটনাটির প্রতিবাদ জানালে র‌্যাব সদস্যদের সঙ্গে তাদের ধস্তাধস্তি হয়। পরবর্তীতে র‌্যাব সদস্যরা লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে তাদের নিয়ে চলে যান।

খবর পেয়ে তাদের ৭-৮শ' সমর্থক ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের তেতৈতলা হাঁস পয়েন্ট এলাকায় অবস্থান নেয়। এ সময় তারা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ ও টায়ারে আগুন লাগিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। তাদের অবরোধের কারণে দীর্ঘ প্রায় এক ঘণ্টা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরবর্তীতে গজারিয়া থানা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে দীর্ঘক্ষণ চেষ্টার পর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তাদের মহাসড়ক থেকে নামিয়ে দিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

গজারিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মামুন আল রশিদ জানান, পরিস্থিতি বর্তমানে তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পুলিশ বিক্ষোভকারীদের মহাসড়ক থেকে নামিয়ে দিয়েছে। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা রয়েছে।

পিস্তল ও ইয়াবাসহ আ’লীগ নেতা গ্রেফতার

 গজারিয়া (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৯ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দুইটি বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, দুইটি ম্যাগাজিন এবং ২৯০ পিস ইয়াবাসহ আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তার সহযোগী দুইজনকেও গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ এর একটি দল।

পরে গজারিয়া থানায় ৩টি মামলা দিয়ে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। সোমবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে গজারিয়া থানা পুলিশ। 

গ্রেফতারকৃত হলেন- আওয়ামী লীগের বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন প্রধান, তার ছোটভাই আন্তঃজেলা ট্রাকচালক ইউনিয়নের গজারিয়া শাখার সভাপতি রিটু প্রধান ও তাদের ব্যবসায়ী পার্টনার আলমগীর হোসেন।

আটক আল আমিন প্রধান ও রিটু উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের তেতৈতলা গ্রামের মৃত গিয়াসউদ্দিন প্রধানের ছেলে ও আলমগীর হোসেন একই গ্রামের আশেক আলীর ছেলে বলে জানা গেছে।

তাদের গ্রেফতারের খবরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক দীর্ঘ প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে তাদের সমর্থকরা। এ সময় মহাসড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। 

র‌্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আক্তারুজ্জামান তিনজনকে আটকের খবর নিশ্চিত করে বলেন, তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে। আটক তিনজনের বিরুদ্ধে ১৮ থেকে ২০টি করে মামলা আছে বলেও জানান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আক্তারুজ্জামান।

তিনি জানান, গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে দুইটি বিদেশি পিস্তল (একটি ইতালির অপরটি পাকিস্তানি) জব্দ করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে তিন রাউন্ড গুলি, দুইটি ম্যাগাজিন ও ২৯০ পিস ইয়াবাও জব্দ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আটককৃতদের স্বজনরা জানান, বিকাল সাড়ে ৪টায় বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন প্রধান তেতৈতলা পুরাতন ফেরিঘাট এলাকায় তার ব্যবসায়ী কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন। তার ছোটভাই রিটু প্রধান এবং তাদের ব্যবসায়ী পার্টনার আলমগীর হোসেনও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় সাদা একটি মাইক্রোবাসে করে একদল লোক নিজেদের র‌্যাব পরিচয় দিয়ে তাদের তিনজনকে আটক করে তাদের সঙ্গে নিয়ে যেতে চান। র‌্যাব জানায়, তাদের কাছে অস্ত্র এবং ইয়াবা পাওয়া গেছে। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় লোকজন ঘটনাটির প্রতিবাদ জানালে র‌্যাব সদস্যদের সঙ্গে তাদের ধস্তাধস্তি হয়। পরবর্তীতে র‌্যাব সদস্যরা লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে তাদের নিয়ে চলে যান।

খবর পেয়ে তাদের ৭-৮শ' সমর্থক ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের তেতৈতলা হাঁস পয়েন্ট এলাকায় অবস্থান নেয়। এ সময় তারা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ ও টায়ারে আগুন লাগিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। তাদের অবরোধের কারণে দীর্ঘ প্রায় এক ঘণ্টা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরবর্তীতে গজারিয়া থানা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে দীর্ঘক্ষণ চেষ্টার পর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তাদের মহাসড়ক থেকে নামিয়ে দিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

গজারিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মামুন আল রশিদ জানান, পরিস্থিতি বর্তমানে তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পুলিশ বিক্ষোভকারীদের মহাসড়ক থেকে নামিয়ে দিয়েছে। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা রয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন