কিস্তি দিয়ে বাড়ি ফিরে দেখলেন স্বামীর ঝুলন্ত লাশ
jugantor
কিস্তি দিয়ে বাড়ি ফিরে দেখলেন স্বামীর ঝুলন্ত লাশ

  কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

২০ অক্টোবর ২০২০, ১৮:০৩:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় লক্ষ্মী চরণ বাউরী (৫০) নামে চা শ্রমিকের লাশ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার বিকালে ঋণের কিস্তি দিয়ে বাড়ি ফিরে ঘরের সামনে গাছে স্বামীর ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান স্ত্রী আরতি বাউরী।

সোমবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাপুর চা বাগানে বসতঘরের সামনের একটি গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

চাতলাপুর চা বাগানের শ্রমিকরা জানান, দরিদ্র নারী চা শ্রমিক আরতি বাউরী স্বামী লক্ষ্মী চরণ বাউরীকে ঘরে রেখে বেসরকারি ঋণদানকারী সংস্থার কার্যালয়ে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে যান। সেখান থেকে বিকালে ঘরে ফিরে স্বামীকে পায়নি। পরে বসত ঘরের সামনের একটি গাছের ডালে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বামীর লাশ দেখতে পান তার স্ত্রী।

বিষয়টি চাতলাপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি ও চা বাগান ব্যবস্থাপককে অবহিত করলে রাত ১০টায় কুলাউড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায়। পরে গাছের ডালে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে কুলাউড়া থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

চাতলাপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি সাধন বাউর জানান, পরিবারটি খুবই দরিদ্র। নিহত লক্ষ্মী চরণ বাউরীর দুই মেয়ে ও এক ছেলে। মেয়ে দুটির বিয়ে হয়েছে। ঠিক কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তার কোনো কারণ জানা যায়নি।

কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, রাতে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার ২০ অক্টোবর সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

কিস্তি দিয়ে বাড়ি ফিরে দেখলেন স্বামীর ঝুলন্ত লাশ

 কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
২০ অক্টোবর ২০২০, ০৬:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় লক্ষ্মী চরণ বাউরী (৫০) নামে চা শ্রমিকের লাশ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার বিকালে ঋণের কিস্তি দিয়ে বাড়ি ফিরে ঘরের সামনে গাছে স্বামীর ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান স্ত্রী আরতি বাউরী।

সোমবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাপুর চা বাগানে বসতঘরের সামনের একটি গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

চাতলাপুর চা বাগানের শ্রমিকরা জানান, দরিদ্র নারী চা শ্রমিক আরতি বাউরী স্বামী লক্ষ্মী চরণ বাউরীকে ঘরে রেখে বেসরকারি ঋণদানকারী সংস্থার কার্যালয়ে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে যান। সেখান থেকে বিকালে ঘরে ফিরে স্বামীকে পায়নি। পরে বসত ঘরের সামনের একটি গাছের ডালে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বামীর লাশ দেখতে পান তার স্ত্রী।

বিষয়টি চাতলাপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি ও চা বাগান ব্যবস্থাপককে অবহিত করলে রাত ১০টায় কুলাউড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায়। পরে গাছের ডালে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে কুলাউড়া থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। 

চাতলাপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি সাধন বাউর জানান, পরিবারটি খুবই দরিদ্র। নিহত লক্ষ্মী চরণ বাউরীর দুই মেয়ে ও এক ছেলে। মেয়ে দুটির বিয়ে হয়েছে। ঠিক কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তার কোনো কারণ জানা যায়নি।

কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, রাতে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার ২০ অক্টোবর সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন