৩ কিশোর শ্রমিকসহ নিহত ৪

মোটরসাইকেলের সামনে হঠাৎ ঘাতক বাস

প্রকাশ : ০৬ এপ্রিল ২০১৮, ১১:৫০ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট, নরসিংদী

সাতসকালে স্বজনদের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে কাজের উদ্দেশ্যে মোটরসাইকেলে চড়ে বাড়ি থেকে বের হয়েছিল চার শ্রমিক।

তাদের মধ্যে ২৩ বছরের এক তরুণ ছাড়া বাকি তিনজন ছিল ১৭ বছরের কিশোর শ্রমিক। সবাই রাজমিস্ত্রির কাজ করত।

তাদের মোটরসাইকেলটি মহাসড়কে চলার কিছুক্ষণের মধ্যেই হঠাৎ বিপরীত দিক থেকে সামনে চলে আসে একটি যাত্রীবাহী বাস।

বাসটির ধাক্কায় মোটরসাইকেল নিয়ে চার শ্রমিকই বাসের নিচে ঢুকে পড়ে। এ সময় তাদের শরীরের ওপর দিয়ে যায় বাসের চাকা। এতে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যায়।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হল উপজেলার মরজাল এলাকার ইয়ামিন (২৩), ডালিম (১৭), সোহাগ (১৭) ও রমজান (১৭)।

রায়পুরা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন জানান, নিহতরা রাজমিস্ত্রির কাজ করত। কাজের জন্য তারা ভৈরব যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় পড়ে।

ভৈরব হাইওয়ে থানার ইনচার্জ একেএম কাউছার জানান, শ্রমিকরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের রায়পুরার চারারবাগ এলাকায় দুর্ঘটনার শিকার হয়।

পুলিশের ভাষ্যানুযায়ী, মরজাল এলাকা থেকে চার শ্রমিক মোটরসাইকেলে করে ভৈরবের দিকে যাচ্ছিল। তারা ভৈরব সীমান্তে চারারবাঘ মোড়ে পৌঁছলে হঠাৎ করেই বিপরীতে দিক থেকে সামনে চলে আসে অনন্যা পরিবহনের যাত্রীবাহীবাস।

কিশোরগঞ্জ থেকে ঢাকাগামী বাসটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে শ্রমিকরা ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

এ সময় প্রায় ২০ মিনিট সড়কে যানচলাচল বন্ধ থাকে। খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে পুলিশ নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে ভৈরব হাইওয়ে থানায় নিয়ে যায়।