গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের অর্থ আত্মসাৎ চেয়ারম্যানের
jugantor
গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের অর্থ আত্মসাৎ চেয়ারম্যানের

  সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি  

২১ অক্টোবর ২০২০, ২১:০৬:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের সিংড়া উপজেলার তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যান মো. মিনহাজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

এ অভিযোগে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দিয়েছেন সিংড়ার ইউএনও। অভিযুক্ত মো. মিনহাজ উদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সিংড়া উপজেলার তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদে গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের জন্য এক লাখ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

কিন্তু তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মিনহাজ উদ্দিন তার পরিষদে কোনো এজলাস নির্মাণ না করে ভুয়া বিল-ভাউচার জমা দিয়ে সমুদয় অর্থ নিজের পকেটে তুলেন।

এতে ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে সুষ্ঠ বিচারকার্য পরিচালনা প্রতিনিয়তই বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ নিয়ে পরিষদের সদস্যদের মধ্যেও চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের একাধিক ইউপি সদস্য জানান, দীর্ঘ দিনেও পরিষদে গ্রাম আদালতের এজলাস নির্মাণ না হওয়ায় বিচারকার্য পরিচালনায় বিভিন্ন সমস্যা হচ্ছে। আর এতে বর্তমান সরকারের পরিকল্পনা ভেস্তে যেতে বসেছে।

তাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মিনহাজ উদ্দিন অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অনেক আগেই এজলাস নির্মাণের অর্থ উত্তোলন করলেও প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যার কারণে তিনি তা নির্মাণ করতে পারেননি। আর আগামী ১ নভেম্বরের মধ্যে এটা নির্মাণ হবে বলে জানান তিনি।

সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. নাসরিন বানু বলেন, এজলাস নির্মাণ না করে মিথ্যা বিল জমা দিয়ে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান মিনহাজ উদ্দিনকে শোকজ করা হয়েছে। উত্তর সন্তোষজনক না হলে পরবর্তীতে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের অর্থ আত্মসাৎ চেয়ারম্যানের

 সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি 
২১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের সিংড়া উপজেলার তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যান মো. মিনহাজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে। 

এ অভিযোগে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দিয়েছেন সিংড়ার ইউএনও। অভিযুক্ত মো. মিনহাজ উদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।
 
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সিংড়া উপজেলার তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদে গ্রাম আদালত এজলাস নির্মাণের জন্য এক লাখ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

কিন্তু তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মিনহাজ উদ্দিন তার পরিষদে কোনো এজলাস নির্মাণ না করে ভুয়া বিল-ভাউচার জমা দিয়ে সমুদয় অর্থ নিজের পকেটে তুলেন।

এতে ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে সুষ্ঠ বিচারকার্য পরিচালনা প্রতিনিয়তই বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ নিয়ে পরিষদের সদস্যদের মধ্যেও চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের একাধিক ইউপি সদস্য জানান, দীর্ঘ দিনেও পরিষদে গ্রাম আদালতের এজলাস নির্মাণ না হওয়ায় বিচারকার্য পরিচালনায় বিভিন্ন সমস্যা হচ্ছে। আর এতে বর্তমান সরকারের পরিকল্পনা ভেস্তে যেতে বসেছে। 

তাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মিনহাজ উদ্দিন অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অনেক আগেই এজলাস নির্মাণের অর্থ উত্তোলন করলেও প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যার কারণে তিনি তা নির্মাণ করতে পারেননি। আর আগামী ১ নভেম্বরের মধ্যে এটা নির্মাণ হবে বলে জানান তিনি।

সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. নাসরিন বানু বলেন, এজলাস নির্মাণ না করে মিথ্যা বিল জমা দিয়ে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান মিনহাজ উদ্দিনকে শোকজ করা হয়েছে। উত্তর সন্তোষজনক না হলে পরবর্তীতে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন