বিয়ের আশ্বাসে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১
jugantor
বিয়ের আশ্বাসে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

২২ অক্টোবর ২০২০, ২২:২০:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাবার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আটকে রেখে এক নারীকে (২১) ধর্ষণ করে রুহুল আমিন হেলাল (৩২) নামে এক যুবক। এছাড়া প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ওই নারীর কাছ থেকে আড়াই লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার কোম্পানীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করার পর সন্ধ্যায় অভিযুক্ত হেলালকে গ্রেফতার করা হয়।

ধর্ষক রুহুল আমিন হেলাল উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের চরকালী গ্রামের দ্বীন মোহাম্মদ বাড়ির মৃত আবু বক্কর ছিদ্দিকের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রুহুল আমিন হেলাল ওই নারীকে তার পিতার বাড়ি থেকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বসুরহাট পৌরসভার জিয়ানগর এলাকা ও মডার্ন হাসপাতালের পেছনে ভাড়া বাসায় আটক করে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছিল। ওই নারী ধর্ষক হেলালের প্রতারণার ফাঁদ বুঝতে পেরে বৃহস্পতিবার কোম্পানীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

ওই নারী আরও জানান, হেলাল বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে তার কাছে গচ্ছিত থাকা প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে তাকে বিয়ে না করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছিল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ধর্ষক হেলাল ও ভিকটিমকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিয়ের আশ্বাসে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
২২ অক্টোবর ২০২০, ১০:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাবার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আটকে রেখে এক নারীকে (২১) ধর্ষণ করে রুহুল আমিন হেলাল (৩২) নামে এক যুবক। এছাড়া প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ওই নারীর কাছ থেকে আড়াই লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার কোম্পানীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করার পর সন্ধ্যায় অভিযুক্ত হেলালকে গ্রেফতার করা হয়।

ধর্ষক রুহুল আমিন হেলাল উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের চরকালী গ্রামের দ্বীন মোহাম্মদ বাড়ির মৃত আবু বক্কর ছিদ্দিকের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রুহুল আমিন হেলাল ওই নারীকে তার পিতার বাড়ি থেকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বসুরহাট পৌরসভার জিয়ানগর এলাকা ও মডার্ন হাসপাতালের পেছনে ভাড়া বাসায় আটক করে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছিল। ওই নারী ধর্ষক হেলালের প্রতারণার ফাঁদ বুঝতে পেরে বৃহস্পতিবার কোম্পানীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

ওই নারী আরও জানান, হেলাল বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে তার কাছে গচ্ছিত থাকা প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে তাকে বিয়ে না করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছিল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ধর্ষক হেলাল ও ভিকটিমকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন