চলনবিলে সব সম্প্রদায়ের মানুষের সমান অধিকার: প্রতিমন্ত্রী পলক
jugantor
চলনবিলে সব সম্প্রদায়ের মানুষের সমান অধিকার: প্রতিমন্ত্রী পলক

  সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি  

২৫ অক্টোবর ২০২০, ২২:২৫:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, সিংড়ার মাটিতে ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত অন্যায়, অবিচার, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চলেছে। সিংড়া তথা চলনবিল ছিল একটি আতঙ্কের নাম। কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনার আশীর্বাদে মাত্র ১১ বছরে সন্ত্রাসকবলিত চলনবিল একটি শান্তির জনপদে পরিণত হয়েছে। একটি উন্নয়নের রোল মডেলের নাম সিংড়া উপজেলার চলনবিল। যেই চলনবিলে হিন্দু মুসলমান বৌদ্ধ খ্রিস্টান সবাই নাগরিক অধিকার নিয়ে সম্মান এবং মর্যাদার সাথে বসবাস করছেন। রোববার রাত ৮টায় সিংড়ায় শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে মণ্ডপ পরিদর্শন ও মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

পলক আরও বলেন, অনেকেই দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য পুলিশ বাহিনীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করেন। মানুষ মাত্রই ভুল হয়। কেউ ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। পুলিশ কেন, রাজনীতিবিদ বলেন ব্যবসায়ী বলেন অন্যান্য পেশাজীবী বলেন- সবার মধ্যেই ছোট-বড় ভুলত্রুটি আছে। কিন্তু সামগ্রিকভাবে পুলিশ বাহিনী যে অবদান রেখেছে এই করোনাকালীন সেটি ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আমরা দেখছি সন্তান করোনার ভয়ে পিতার লাশ রেখে পালিয়ে যায়, পুলিশ সেই লাশ দাফন করছে। পুলিশ মানবিক দায়িত্ব পালন করছে।

অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি মো. আব্দুল বাতেন বিপিএম পিপিএম বলেন, করোনা প্রতিরোধে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার ছিল এক সফল ও রোল মডেল। আজ তরুণ প্রজন্ম তার সুফল পাচ্ছে। আর শুধু নাটোর সিংড়া নয় রাজশাহী রেঞ্জ তথা বাংলাদেশের জনগণ যাতে হয়রানির শিকার না হয়; হয়রানিমুক্তভাবে জনগণ সেবা পায়- এ জিনিসটা নিশ্চিত করতে চাই। পুলিশের শুধু প্রয়োজন জনগণের সহযোগিতা।

উপজেলা কেন্দ্রীয় মন্দিরের সভাপতি বিশ্বনাথ সাহার সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন নাটোর জেলা পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক, ইউএনও মোছা. নাসরিন বানু, পৌর মেয়র মো. জান্নাতুল ফেরদৌস, এসিল্যান্ড রকিবুল হাসান, সহকারী পুলিশ সুপার সিংড়া সার্কেল মো. জামিল আকতার, সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর-ই আলম সিদ্দিকী প্রমুখ।

চলনবিলে সব সম্প্রদায়ের মানুষের সমান অধিকার: প্রতিমন্ত্রী পলক

 সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি 
২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, সিংড়ার মাটিতে ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত অন্যায়, অবিচার, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চলেছে। সিংড়া তথা চলনবিল ছিল একটি আতঙ্কের নাম। কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনার আশীর্বাদে মাত্র ১১ বছরে সন্ত্রাসকবলিত চলনবিল একটি শান্তির জনপদে পরিণত হয়েছে। একটি উন্নয়নের রোল মডেলের নাম সিংড়া উপজেলার চলনবিল। যেই চলনবিলে হিন্দু মুসলমান বৌদ্ধ খ্রিস্টান সবাই নাগরিক অধিকার নিয়ে সম্মান এবং মর্যাদার সাথে বসবাস করছেন। রোববার রাত ৮টায় সিংড়ায় শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে মণ্ডপ পরিদর্শন ও মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

পলক আরও বলেন, অনেকেই দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য পুলিশ বাহিনীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করেন। মানুষ মাত্রই ভুল হয়। কেউ ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। পুলিশ কেন, রাজনীতিবিদ বলেন ব্যবসায়ী বলেন অন্যান্য পেশাজীবী বলেন- সবার মধ্যেই ছোট-বড় ভুলত্রুটি আছে। কিন্তু সামগ্রিকভাবে পুলিশ বাহিনী যে অবদান রেখেছে এই করোনাকালীন সেটি ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আমরা দেখছি সন্তান করোনার ভয়ে পিতার লাশ রেখে পালিয়ে যায়, পুলিশ সেই লাশ দাফন করছে। পুলিশ মানবিক দায়িত্ব পালন করছে।

অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি মো. আব্দুল বাতেন বিপিএম পিপিএম বলেন, করোনা প্রতিরোধে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার ছিল এক সফল ও রোল মডেল। আজ তরুণ প্রজন্ম তার সুফল পাচ্ছে। আর শুধু নাটোর সিংড়া নয় রাজশাহী রেঞ্জ তথা বাংলাদেশের জনগণ যাতে হয়রানির শিকার না হয়; হয়রানিমুক্তভাবে জনগণ সেবা পায়- এ জিনিসটা নিশ্চিত করতে চাই। পুলিশের শুধু প্রয়োজন জনগণের সহযোগিতা।

উপজেলা কেন্দ্রীয় মন্দিরের সভাপতি বিশ্বনাথ সাহার সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন নাটোর জেলা পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক, ইউএনও মোছা. নাসরিন বানু, পৌর মেয়র মো. জান্নাতুল ফেরদৌস, এসিল্যান্ড রকিবুল হাসান, সহকারী পুলিশ সুপার সিংড়া সার্কেল মো. জামিল আকতার, সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর-ই আলম সিদ্দিকী প্রমুখ।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন