সোনাইমুড়িতে হামলা চালিয়ে ১০ দোকান ভাঙচুর
jugantor
সোনাইমুড়িতে হামলা চালিয়ে ১০ দোকান ভাঙচুর

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

২৮ অক্টোবর ২০২০, ১১:৩৮:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায় হামলা চালিয়ে ১০ দোকানঘর ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে সোনাইমুড়ি পৌরসভার হাইস্কুল সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, রাত ৯টার দিকে মুখোশ পরা ২০ যুবক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হাইস্কুল সড়কের দুই পাশে থাকা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে হামলা চালায়।

এ সময় তাদের হামলায় শাকিল টেইলার্স, ভাই ভাই ফার্নিচার, স্পোর্ট কর্নার, হালিম স্টোর, মারজান কসমেটিকস, ইব্রাহিম আর্ট, ইবনে সিনা ডিজিটাল ক্লিনিকসহ আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার চাষিরহাট ইউনিয়নের পদুয়া গ্রামে ২০১৬ সালে নাওতলা গ্রামের ফরহাদ হত্যা মামলার জামিন পাওয়া আসামি কাউসার আলমকে নিহত ফরহাদের ছোটভাই মাসুম মারধর করে।

এরই জের ধরে রাত ৯টার দিকে কাউসারের পক্ষ নিয়ে একদল যুবক মুখোশ পরে এসে দোকানপাটগুলোতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সোনাইমুড়ি থানার ওসি গিয়াস উদ্দিন জানান, হামলার খবর শুনে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। তদন্ত করে অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোনাইমুড়িতে হামলা চালিয়ে ১০ দোকান ভাঙচুর

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
২৮ অক্টোবর ২০২০, ১১:৩৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায় হামলা চালিয়ে ১০ দোকানঘর ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে সোনাইমুড়ি পৌরসভার হাইস্কুল সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, রাত ৯টার দিকে মুখোশ পরা ২০ যুবক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হাইস্কুল সড়কের দুই পাশে থাকা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে হামলা চালায়।

এ সময় তাদের হামলায় শাকিল টেইলার্স, ভাই ভাই ফার্নিচার, স্পোর্ট কর্নার, হালিম স্টোর, মারজান কসমেটিকস, ইব্রাহিম আর্ট, ইবনে সিনা ডিজিটাল ক্লিনিকসহ আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার চাষিরহাট ইউনিয়নের পদুয়া গ্রামে ২০১৬ সালে নাওতলা গ্রামের ফরহাদ হত্যা মামলার জামিন পাওয়া আসামি কাউসার আলমকে নিহত ফরহাদের ছোটভাই মাসুম মারধর করে।

এরই জের ধরে রাত ৯টার দিকে কাউসারের পক্ষ নিয়ে একদল যুবক মুখোশ পরে এসে দোকানপাটগুলোতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সোনাইমুড়ি থানার ওসি গিয়াস উদ্দিন জানান, হামলার খবর শুনে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। তদন্ত করে অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন