নোয়াখালীতে ঘুমন্ত গৃহবধূকে ধর্ষণে আসামির যাবজ্জীবন
jugantor
নোয়াখালীতে ঘুমন্ত গৃহবধূকে ধর্ষণে আসামির যাবজ্জীবন

  নোয়াখালী ও হাতিয়া প্রতিনিধি  

২৮ অক্টোবর ২০২০, ১৩:০৩:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীতে ঘুমন্ত গৃহবধূকে ধর্ষণে আসামির যাবজ্জীবন

নোয়াখালীতে বসতঘরে ঢুকে ঘুমন্ত গৃহবধূকে (২১) ধর্ষণ মামলায় এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ সময় ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

বুধবার দুপুরে নোয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল ২-এর বিচারক মোহাম্মদ শামস্ উদ্দিন খালেদ আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। এ মামলায় বিজ্ঞ আদালত চিকিৎসকসহ ১১ জনের স্বাক্ষ্য প্রমাণ শেষে এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. ইব্রাহীম (৫০) নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার বুড়িরচর ইউনিয়নের শূন্যেরচর গ্রামের মুজিবর রহমানের বাড়ির আবদুল হাইয়ের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০০৪ সালের ১১ এপ্রিল রাত ৮টার দিকে হাতিয়ার বুড়িরচর ইউনিয়নের শূন্যেরচর গ্রামের বেড়িবাঁধের ওপর গৃহবধূর বসতঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে ধর্ষণ করে ইব্রাহীম।

১২ এপ্রিল হাতিয়া থানায় এ ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে ধর্ষক মো. ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ২০০০-এর ৯-এর ১ ধারায় আনিত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এ অপরাধের আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট মর্জুজা আলী পাটোয়ারী। আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান, অ্যাডভোকেট আবু সাঈদ নোমান, অ্যাডভোকেট মোসলেউদ্দিন।

নোয়াখালীতে ঘুমন্ত গৃহবধূকে ধর্ষণে আসামির যাবজ্জীবন

 নোয়াখালী ও হাতিয়া প্রতিনিধি 
২৮ অক্টোবর ২০২০, ০১:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নোয়াখালীতে ঘুমন্ত গৃহবধূকে ধর্ষণে আসামির যাবজ্জীবন
ফাইল ছবি

নোয়াখালীতে বসতঘরে ঢুকে ঘুমন্ত গৃহবধূকে (২১) ধর্ষণ মামলায় এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ সময় ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

বুধবার দুপুরে নোয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল ২-এর বিচারক মোহাম্মদ শামস্ উদ্দিন খালেদ আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। এ মামলায় বিজ্ঞ আদালত চিকিৎসকসহ ১১ জনের স্বাক্ষ্য প্রমাণ শেষে এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. ইব্রাহীম (৫০) নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার বুড়িরচর ইউনিয়নের শূন্যেরচর গ্রামের মুজিবর রহমানের বাড়ির আবদুল হাইয়ের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০০৪ সালের ১১ এপ্রিল রাত ৮টার দিকে হাতিয়ার বুড়িরচর ইউনিয়নের শূন্যেরচর গ্রামের বেড়িবাঁধের ওপর গৃহবধূর বসতঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে ধর্ষণ করে ইব্রাহীম।

১২ এপ্রিল হাতিয়া থানায় এ ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে ধর্ষক মো. ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ২০০০-এর ৯-এর ১ ধারায় আনিত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এ অপরাধের আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট মর্জুজা আলী পাটোয়ারী। আসামিপক্ষে ছিলেন  অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান, অ্যাডভোকেট আবু সাঈদ নোমান, অ্যাডভোকেট মোসলেউদ্দিন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন