‘আমি পা চেপে ধরি, হুমা বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে’
jugantor
‘আমি পা চেপে ধরি, হুমা বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে’

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

২৮ অক্টোবর ২০২০, ২২:২৬:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে নুরজাহান নামে এক নারীকে হত্যা করে ৫ টুকরো করা মামলায় এজাহারনামীয় আসামি কালাম ওরফে আবুল কালাম ওরফে সুমন বুধবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক এইচএম মোসলেউদ্দীন মিজানের আদালতে ১৬৪ ধারায় এ জবানবন্দি দেয় সে।

সুমন বলে, নুরজাহান তার ফুফু। কিছু পাওনা টাকার জন্য নুরজাহান তার বাবাকে সবসময় গালিগালাজ করত। এ কারণে সে তার ফুফুর ওপর ক্ষুব্ধ ছিল। সে ফুফাতো ভাই হুমায়ুন কবির হুমাকে নিয়ে নুরজাহানকে হত্যা করে।

সুমন আরও বলে, সে ঘরের ভিতর নুরজাহানের পা চেপে ধরে আর হুমায়ুন কবির হুমা বালিশ চাপা দিয়ে তাকে হত্যা করে। পরে কসাই নুরুল ইসলাম এসে লাশ টুকরো টুকরো করে। তারা লাশের টুকরোগুলো ধান ক্ষেতে ফেলে দেয়।

এ নিয়ে নুরজাহান হত্যা মামলায় ৫ আসামি দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে বলে তদন্তকারী কর্মকর্তা নোয়াখালী ডিবির পরিদর্শক জাকির হোসেন জানান। ২৬ অক্টোবর কালাম ওরফে সুমনকে ডিবি পুলিশ তিন দিনের রিমান্ডে নেয়।

‘আমি পা চেপে ধরি, হুমা বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে’

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
২৮ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে নুরজাহান নামে এক নারীকে হত্যা করে ৫ টুকরো করা মামলায় এজাহারনামীয় আসামি কালাম ওরফে আবুল কালাম ওরফে সুমন বুধবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক এইচএম মোসলেউদ্দীন মিজানের আদালতে ১৬৪ ধারায় এ জবানবন্দি দেয় সে।

সুমন বলে, নুরজাহান তার ফুফু। কিছু পাওনা টাকার জন্য নুরজাহান তার বাবাকে সবসময় গালিগালাজ করত। এ কারণে সে তার ফুফুর ওপর ক্ষুব্ধ ছিল। সে ফুফাতো ভাই হুমায়ুন কবির হুমাকে নিয়ে নুরজাহানকে হত্যা করে।

সুমন আরও বলে, সে ঘরের ভিতর নুরজাহানের পা চেপে ধরে আর হুমায়ুন কবির হুমা বালিশ চাপা দিয়ে তাকে হত্যা করে। পরে কসাই নুরুল ইসলাম এসে লাশ টুকরো টুকরো করে। তারা লাশের টুকরোগুলো ধান ক্ষেতে ফেলে দেয়।

এ নিয়ে নুরজাহান হত্যা মামলায় ৫ আসামি দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে বলে তদন্তকারী কর্মকর্তা নোয়াখালী ডিবির পরিদর্শক জাকির হোসেন জানান। ২৬ অক্টোবর কালাম ওরফে সুমনকে ডিবি পুলিশ তিন দিনের রিমান্ডে নেয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন