চুয়াডাঙ্গায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, দাদা গ্রেফতার
jugantor
চুয়াডাঙ্গায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, দাদা গ্রেফতার

  চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫৬:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

শিশু ধর্ষণ

চুয়াডাঙ্গায় সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে তার দাদা মোনতাজ আলীকে (৫৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে ওই দাদাকে গ্রেফতার করা হয়। মোনতাজ আলী চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নওদাগাঁ হরিশপুরের মৃত খোকাই মণ্ডলের ছেলে।

আজ বৃহস্পতিবার নির্যাতিত ওই শিশুর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হবে।

পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ওই শিশুকন্যার বাবা ঢাকায় থাকেন।

গত ২০ অক্টোবর বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ির পার্শ্ববর্তী উজলপুর গ্রামে বেড়াতে যান ওই শিশুর বাবা। এ সময় মেয়েটি বাড়িতে তার দাদার কাছেই ছিল।

রাতে নাতনিকে একা পেয়ে দাদা মোনতাজ আলী ধর্ষণ করেন। বিষয়টি মায়ের কাছে ফিরে গিয়ে ওই শিশু জানিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার শিশুর মা বুধবার রাত ৮টার দিকে শ্বশুর মোনতাজ আলীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। রাতেই স্থানীয় বেগমপুর ফাঁড়ির পুলিশ মোনতাজকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে দর্শনা থানায় সোপর্দ করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর শেখ মাহবুবুর রহমান জানান, আইনি ভাষায় ধর্ষণের বিভিন্ন প্রকারভেদ আছে। বাকিটা ডাক্তার বলতে পারবেন। তবে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত মোনতাজ ঘটনার কিছুটা স্বীকার করেছেন। এ ছাড়া আজ বৃহস্পতিবার ওই শিশুর ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে।

চুয়াডাঙ্গায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, দাদা গ্রেফতার

 চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শিশু ধর্ষণ
ফাইল ছবি

চুয়াডাঙ্গায় সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে তার দাদা মোনতাজ আলীকে (৫৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে ওই দাদাকে গ্রেফতার করা হয়। মোনতাজ আলী চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নওদাগাঁ হরিশপুরের মৃত খোকাই মণ্ডলের ছেলে।

আজ বৃহস্পতিবার নির্যাতিত ওই শিশুর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হবে।

পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ওই শিশুকন্যার বাবা ঢাকায় থাকেন।

গত ২০ অক্টোবর বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ির পার্শ্ববর্তী উজলপুর গ্রামে বেড়াতে যান ওই শিশুর বাবা। এ সময় মেয়েটি বাড়িতে তার দাদার কাছেই ছিল।

রাতে নাতনিকে একা পেয়ে দাদা মোনতাজ আলী ধর্ষণ করেন। বিষয়টি মায়ের কাছে ফিরে গিয়ে ওই শিশু জানিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার শিশুর মা বুধবার রাত ৮টার দিকে শ্বশুর মোনতাজ আলীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। রাতেই স্থানীয় বেগমপুর ফাঁড়ির পুলিশ মোনতাজকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে দর্শনা থানায় সোপর্দ করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর শেখ মাহবুবুর রহমান জানান, আইনি ভাষায় ধর্ষণের বিভিন্ন প্রকারভেদ আছে। বাকিটা ডাক্তার বলতে পারবেন। তবে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত মোনতাজ ঘটনার কিছুটা স্বীকার করেছেন। এ ছাড়া আজ বৃহস্পতিবার ওই শিশুর ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন