খুলনায় রাশেদুল হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ
jugantor
খুলনায় রাশেদুল হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ

  খুলনা ব্যুরো  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩:৩৩:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার ভ্যানচালক রাশেদুল ইসলাম গাজী (১৭) হত্যা মামলায় তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে।

ফাঁসিতে ঝুলিয়ে তাদের মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করার আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ডও করা হয়েছে।
খুলনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মশিউর রহমান চৌধুরী বৃহস্পতিবার দুপুরে এ আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হচ্ছে– মো. রবিউল ইসলাম, বনি আমিন শেখ ও মো শহিদুল ইসলাম। তিনজনই রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া হত্যার পর লাশ গুম করার চেষ্টার অপরাধে প্রত্যেককে সাত বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ দেয়া হয়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১৯ সালের ১৯ আগস্ট রাশেদুল ইসলাম গাজী বটিয়াঘাটার জয়পুর গ্রামের নিজ বাসা থেকে বের হন।

এর পর তিনি আর ফেরেননি। পর দিন ২০ আগস্ট সকালে পুলিশ আমির হামজার বাগানের পাশ থেকে তার মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার করে।

এর পর রাশিদুলের পিতা হালিম গাজী বাদী হয়ে বটিয়াঘাটা থানা অজ্ঞাতনামা আসামিদের নামে হত্যা মামলা করেন।

২১ আগস্ট সকালে পুলিশ রাশেদুলের মস্তক উদ্ধার করে। ওই মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি তিনজনের নামে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

শুনানি শেষে আদালত বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করেন। রাষ্ট্রপক্ষে পিপি এনামুল হক, আসামিপক্ষে গাজী রাজু আহমেদ, মঞ্জিল হোসেন মামলাটি পরিচালনা করেন।

খুলনায় রাশেদুল হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ

 খুলনা ব্যুরো 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার ভ্যানচালক রাশেদুল ইসলাম গাজী (১৭) হত্যা মামলায় তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে।

ফাঁসিতে ঝুলিয়ে তাদের মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করার আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ডও করা হয়েছে।
খুলনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মশিউর রহমান চৌধুরী বৃহস্পতিবার দুপুরে এ আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হচ্ছে– মো. রবিউল ইসলাম, বনি আমিন শেখ ও মো শহিদুল ইসলাম। তিনজনই রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া হত্যার পর লাশ গুম করার চেষ্টার অপরাধে প্রত্যেককে সাত বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ দেয়া হয়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১৯ সালের ১৯ আগস্ট রাশেদুল ইসলাম গাজী বটিয়াঘাটার জয়পুর গ্রামের নিজ বাসা থেকে বের হন।

এর পর তিনি আর ফেরেননি। পর দিন ২০ আগস্ট সকালে পুলিশ আমির হামজার বাগানের পাশ থেকে তার মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার করে।

এর পর রাশিদুলের পিতা হালিম গাজী বাদী হয়ে বটিয়াঘাটা থানা অজ্ঞাতনামা আসামিদের নামে হত্যা মামলা করেন।

২১ আগস্ট সকালে পুলিশ রাশেদুলের মস্তক উদ্ধার করে। ওই মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি তিনজনের নামে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

শুনানি শেষে আদালত বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করেন। রাষ্ট্রপক্ষে পিপি এনামুল হক, আসামিপক্ষে গাজী রাজু আহমেদ, মঞ্জিল হোসেন মামলাটি পরিচালনা করেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন