যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে পোড়াল শ্বশুর শাশুড়ি
jugantor
যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে পোড়াল শ্বশুর শাশুড়ি

  ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

৩০ অক্টোবর ২০২০, ২১:৪৪:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ফুলপুরে যৌতুক লোভী শ্বশুর ও শাশুড়ি উত্তপ্ত দায়ের ছ্যাঁকা দিয়ে মারিয়া আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূর শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার সকালে উপজেলার সিংহেশ্বর ইউনিয়নের চাতুলিয়াকান্দা গ্রামে এ ঘটনার পর ঘটে ওই গৃহবধূ ময়মনসিংহ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা যায়, উপজেলার চাতুলিয়াকান্দা গ্রামের আমির উদ্দিনের পুত্র জাকারিয়ার সঙ্গে পাঁচ বছর আগে ভালুকা উপজেলার মারিয়া আক্তারের বিয়ে হয়। স্বামী জাকারিয়া ঢাকায় থেকে রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। যৌতুকের জন্য শ্বশুর শাশুড়ি প্রায়ই মারিয়াকে নির্যাতন করতেন।

বুধবার সকালে শ্বশুর আমির উদ্দিন (৫০), শাশুড়ি জামিনা খাতুন (৪৫) ও প্রতিবেশী জহুর উদ্দিন (৪৫) মিলে মারিয়ার হাত পা বেঁধে নাক, মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশসহ গোপনাঙ্গে আগুনে উত্তপ্ত দায়ের ছ্যাঁকা দিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে স্থানীয়রা মারিয়াকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আফাজ উদ্দিন জানান, এ ঘটনার পর থেকে শ্বশুর শাশুড়িসহ বাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে।

সিংহেশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান ডা. এমএ মোতালিব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে মারিয়া ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ফুলপুর থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী জানান, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করতে আসেনি।

যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে পোড়াল শ্বশুর শাশুড়ি

 ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ফুলপুরে যৌতুক লোভী শ্বশুর ও শাশুড়ি উত্তপ্ত দায়ের ছ্যাঁকা দিয়ে মারিয়া আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূর শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার সকালে উপজেলার সিংহেশ্বর ইউনিয়নের চাতুলিয়াকান্দা গ্রামে এ ঘটনার পর ঘটে ওই গৃহবধূ ময়মনসিংহ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা যায়, উপজেলার চাতুলিয়াকান্দা গ্রামের আমির উদ্দিনের পুত্র জাকারিয়ার সঙ্গে পাঁচ বছর আগে ভালুকা উপজেলার মারিয়া আক্তারের বিয়ে হয়। স্বামী জাকারিয়া ঢাকায় থেকে রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। যৌতুকের জন্য শ্বশুর শাশুড়ি প্রায়ই মারিয়াকে নির্যাতন করতেন।

বুধবার সকালে শ্বশুর আমির উদ্দিন (৫০), শাশুড়ি জামিনা খাতুন (৪৫) ও প্রতিবেশী জহুর উদ্দিন (৪৫) মিলে মারিয়ার হাত পা বেঁধে নাক, মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশসহ গোপনাঙ্গে আগুনে উত্তপ্ত দায়ের ছ্যাঁকা দিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে স্থানীয়রা মারিয়াকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আফাজ উদ্দিন জানান, এ ঘটনার পর থেকে শ্বশুর শাশুড়িসহ বাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে।

সিংহেশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান ডা. এমএ মোতালিব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে মারিয়া ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ফুলপুর থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী জানান, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করতে আসেনি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন