ঘরে ঢুকে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, তরুণ আটক
jugantor
ঘরে ঢুকে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, তরুণ আটক

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

৩১ অক্টোবর ২০২০, ১৪:৫৩:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

ঘরে ঢুকে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, তরুণ আটক

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় ঘরে ঢুকে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পিয়াস (২০) নামে এক তরুণকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আটক পিয়াস (২০) উপজেলার রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সোবহান বাজারসংলগ্ন দক্ষিণ সাজুনি বাড়ির আয়নাল হকের ছেলে। শুক্রবার রাত ৯টায় সোবহান বাজার সংলগ্ন একই বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে চাটখিল পুলিশ শুক্রবার রাত ১১টার দিকে অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ি থেকে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে।

ভুক্তভোগীর বাবা জানান, তিনি একজন ব্যবসায়ী। সন্ধ্যার দিকে তিনি ব্যবসার কাজে বাজারে ছিলেন। তার স্ত্রী হাঁস-মোরগকে খোয়াড়ে ঢুকানোর জন্য ঘরের বাহিরে ছিলেন।

ওই সময় তার মেয়ে (১৬) দশম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রীকে ঘরে একা পেয়ে তার ছোট ভাইয়ের ছেলে মো. পিয়াস ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। মেয়ে বাধা দিলে তাকে মারধর করে তার পরনের জামা কাপড় ছিঁড়ে ফেলে।

একপর্যায়ে মেয়ের চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে অভিযুক্ত পালিয়ে যায়।

পরিবারের সদস্যরা এ বিষয়ে অভিযুক্ত পিয়াসের বাবাকে জানালে পিয়াসের বাবা আয়নাল ও পিয়াস ক্ষুব্ধ হয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়েকে মারধর করে।

তিনি আরও জানান, পিয়াস আগে থেকেই তার মেয়েকে প্রায় উত্যক্ত করত।

চাটখিল থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ঘটনায় ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে পিয়াসকে আটক করে। দুপুরে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতে চালান করেছে।

ঘরে ঢুকে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, তরুণ আটক

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
৩১ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ঘরে ঢুকে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, তরুণ আটক
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় ঘরে ঢুকে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পিয়াস (২০) নামে এক তরুণকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আটক পিয়াস (২০) উপজেলার রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সোবহান বাজারসংলগ্ন দক্ষিণ সাজুনি বাড়ির আয়নাল হকের ছেলে।  শুক্রবার রাত ৯টায় সোবহান বাজার সংলগ্ন একই বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে চাটখিল পুলিশ শুক্রবার রাত ১১টার দিকে অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ি থেকে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে।

ভুক্তভোগীর বাবা জানান, তিনি একজন ব্যবসায়ী। সন্ধ্যার দিকে তিনি ব্যবসার কাজে বাজারে ছিলেন। তার স্ত্রী হাঁস-মোরগকে খোয়াড়ে ঢুকানোর জন্য ঘরের বাহিরে ছিলেন।

ওই সময় তার মেয়ে (১৬) দশম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রীকে ঘরে একা পেয়ে তার ছোট ভাইয়ের ছেলে মো. পিয়াস ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। মেয়ে বাধা দিলে তাকে মারধর করে তার পরনের জামা কাপড় ছিঁড়ে ফেলে।

একপর্যায়ে মেয়ের চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে অভিযুক্ত পালিয়ে যায়।  

পরিবারের সদস্যরা এ বিষয়ে অভিযুক্ত পিয়াসের বাবাকে জানালে পিয়াসের বাবা আয়নাল ও পিয়াস ক্ষুব্ধ হয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়েকে মারধর করে।

তিনি আরও জানান, পিয়াস আগে থেকেই তার মেয়েকে প্রায় উত্যক্ত করত।

চাটখিল থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ঘটনায় ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে পিয়াসকে আটক করে। দুপুরে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতে চালান করেছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন