প্রেমের জেরে চাচার হাতে ভাতিজা খুন
jugantor
প্রেমের জেরে চাচার হাতে ভাতিজা খুন

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  

৩১ অক্টোবর ২০২০, ২২:১৫:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

নিহত শান্ত মিয়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মেয়ের সঙ্গে প্রেম করার অপরাধে ভাতিজা হত্যার অভিযোগ উঠেছে নিহতের আপন চাচা আক্কাস মিয়ার বিরুদ্ধে।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের শঙ্করাদহ গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় চাচা আক্কাস মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত আশরাফুল ইসলাম শান্ত মিয়া (১৮) উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের শঙ্করাদহ গ্রামের মাহফুজ মিয়ার ছেলে। তিনি হরিণবেড় শাহজাহান উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, প্রায় তিন বছর আগে আক্কাস মিয়া সৌদি আরব থেকে সপরিবারে হরিপুরের শঙ্করাদহ গ্রামে এসে বসবাস শুরু করেন। গ্রামে আসার পর থেকেই আক্কাস মিয়ার ছোট মেয়ে মুন্নি আক্তারের সঙ্গে আশরাফুল ইসলাম শান্ত মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

শুক্রবার দিবাগত রাতে আশরাফুল ইসলাম এবং মুন্নির মধ্যে প্রেম ও বিয়ের বিষয়ে বাকবিতন্ডা হয়। বিষয়টি মুন্নির বাবা জানতে পেরে ক্ষুব্ধ হন। পরে রাত ১১টার দিকে আশরাফুল ইসলামের ঘরে প্রবেশ করেন আক্কাস মিয়া।

তখন আক্কাসের হাতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে বুকের বাঁ পাশে আঘাত করেন। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।

মাধবপুর থানার পুলিশ খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে আশরাফুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নাসিরনগর থানার ওসি এটিএম আরিচুল হক জানান, এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চাচা আক্কাস মিয়াকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

প্রেমের জেরে চাচার হাতে ভাতিজা খুন

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি 
৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নিহত শান্ত মিয়া
নিহত শান্ত মিয়া। ছবি: সংগৃহীত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মেয়ের সঙ্গে প্রেম করার অপরাধে ভাতিজা হত্যার অভিযোগ উঠেছে নিহতের আপন চাচা আক্কাস মিয়ার বিরুদ্ধে। 

শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের শঙ্করাদহ গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় চাচা আক্কাস মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ। 

নিহত আশরাফুল ইসলাম শান্ত মিয়া (১৮) উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের শঙ্করাদহ গ্রামের মাহফুজ মিয়ার ছেলে।  তিনি হরিণবেড় শাহজাহান উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, প্রায় তিন বছর আগে আক্কাস মিয়া সৌদি আরব থেকে সপরিবারে হরিপুরের শঙ্করাদহ গ্রামে এসে বসবাস শুরু করেন। গ্রামে আসার পর থেকেই আক্কাস মিয়ার ছোট মেয়ে মুন্নি আক্তারের সঙ্গে আশরাফুল ইসলাম শান্ত মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। 

শুক্রবার দিবাগত রাতে আশরাফুল ইসলাম এবং মুন্নির মধ্যে প্রেম ও বিয়ের বিষয়ে বাকবিতন্ডা হয়। বিষয়টি মুন্নির বাবা জানতে পেরে ক্ষুব্ধ হন। পরে রাত ১১টার দিকে আশরাফুল ইসলামের ঘরে প্রবেশ করেন আক্কাস মিয়া। 

তখন আক্কাসের হাতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে বুকের বাঁ পাশে আঘাত করেন। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।

মাধবপুর থানার পুলিশ খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে আশরাফুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নাসিরনগর থানার ওসি এটিএম আরিচুল হক জানান, এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চাচা আক্কাস মিয়াকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন