গুজব ছড়িয়ে পুড়িয়ে হত্যা: ৫ আসামি রিমান্ডে, গ্রেফতার আরও ৬
jugantor
গুজব ছড়িয়ে পুড়িয়ে হত্যা: ৫ আসামি রিমান্ডে, গ্রেফতার আরও ৬

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি  

০৩ নভেম্বর ২০২০, ১৫:২৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

জুয়েল

জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে রংপুরের বাসিন্দা আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় প্রথম দফায় গ্রেফতারকৃত ৫ আসামির তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার লালমনিরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ৩-এর বিচারক ফেরদৌসী বেগম এ আদেশ দেন।

এদিকে সোমবার রাতে বুড়িমারীর বিভিন্ন স্থান থেকে আরও ৬ আসামিকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। এ নিয়ে দায়েরকৃত তিন মামলায় মোট ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হলো।

লালমনিরহাট ডিবি পুলিশের ওসি ওমর ফারুক যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- পাটগ্রামের বুড়িমারী এলাকার নুরুজ্জামান (২০), রশিদুল ইসলাম (১৬), জোবায়েদ হোসেন (১৬), বাপ্পি (১৭), ওহিদুল ইসলাম (২৮) ও আলাল হোসেন (৪৫)।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে লালমনিরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ৩-এ প্রথম দফায় গ্রেফতারকৃত ৫ আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানি হয়।

ওই আদালতের বিচারক প্রত্যেক আসামির ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বুড়িমারীর আশরাফুল আলম (২২), বায়েজিদ (২৪), রফিক (২০), মাসুম আলী (৩৫) ও শফিকুল ইসলাম (২৫)।

গত রোববার সন্ধ্যায় তাদের আদালতে হাজির করে ৫ দিন করে রিমান্ড আবেদন জানিয়েছিল পুলিশ।

গত রোববার দ্বিতীয় দফায় গ্রেফতার করা হয় বুড়িমারী মসজিদের খাদেম জোবেদ আলী (৬১), রাজু (১৯), আনোয়ার হোসেন (৫৫), মানিক (২৬), মেরাজুল ইসলাম (১৭)। তাদের সোমবার বিকালে আদালতে সোপর্দ করেছে ডিবি পুলিশ।

তাদের মধ্যে মসজিদের খাদেম জোবেদ আলী, আনোয়ার হোসেন ও রাজুকে হত্যা মামলায় এবং বাকি দুজনকে পুলিশের ওপর হামলা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পাশাপাশি হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত তিনজনের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৫ দিন করে রিমান্ড আবেদন জানানো হয়।

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে রংপুরের শালবন মিস্ত্রিপাড়ার আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহীদুন্নবীর বিরুদ্ধে ‘কোরআন অবমাননার’ গুজব ছড়ানো হয়। ফলে সেখানে স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে শত শত উত্তেজিত জনতা জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহতের পরিবার, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ ও পুলিশের পক্ষ থেকে গত শনিবার পাটগ্রাম থানায় পৃথক পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে।

গুজব ছড়িয়ে পুড়িয়ে হত্যা: ৫ আসামি রিমান্ডে, গ্রেফতার আরও ৬

 লালমনিরহাট প্রতিনিধি 
০৩ নভেম্বর ২০২০, ০৩:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জুয়েল
জুয়েল। ফাইল ছবি

জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে রংপুরের বাসিন্দা আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় প্রথম দফায় গ্রেফতারকৃত ৫ আসামির তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

মঙ্গলবার লালমনিরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ৩-এর বিচারক ফেরদৌসী বেগম এ আদেশ দেন। 

এদিকে সোমবার রাতে বুড়িমারীর বিভিন্ন স্থান থেকে আরও ৬ আসামিকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। এ নিয়ে দায়েরকৃত তিন মামলায় মোট ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হলো। 

লালমনিরহাট ডিবি পুলিশের ওসি ওমর ফারুক যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- পাটগ্রামের বুড়িমারী এলাকার নুরুজ্জামান (২০), রশিদুল ইসলাম (১৬), জোবায়েদ হোসেন (১৬), বাপ্পি (১৭),  ওহিদুল ইসলাম (২৮) ও আলাল হোসেন (৪৫)।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে লালমনিরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ৩-এ প্রথম দফায় গ্রেফতারকৃত ৫ আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানি হয়।

ওই আদালতের বিচারক প্রত্যেক আসামির ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বুড়িমারীর আশরাফুল আলম (২২), বায়েজিদ (২৪), রফিক (২০), মাসুম আলী (৩৫) ও শফিকুল ইসলাম (২৫)। 

গত রোববার সন্ধ্যায় তাদের আদালতে হাজির করে ৫ দিন করে রিমান্ড আবেদন জানিয়েছিল পুলিশ।

গত রোববার দ্বিতীয় দফায় গ্রেফতার করা হয় বুড়িমারী মসজিদের খাদেম জোবেদ আলী (৬১), রাজু (১৯), আনোয়ার  হোসেন (৫৫), মানিক (২৬), মেরাজুল ইসলাম (১৭)। তাদের সোমবার বিকালে আদালতে সোপর্দ করেছে ডিবি পুলিশ। 

তাদের মধ্যে মসজিদের খাদেম জোবেদ আলী, আনোয়ার হোসেন ও রাজুকে হত্যা মামলায় এবং বাকি দুজনকে পুলিশের ওপর হামলা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। 

পাশাপাশি হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত তিনজনের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৫ দিন করে রিমান্ড আবেদন জানানো হয়। 

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে রংপুরের শালবন মিস্ত্রিপাড়ার আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহীদুন্নবীর বিরুদ্ধে ‘কোরআন অবমাননার’ গুজব ছড়ানো হয়। ফলে সেখানে স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে শত শত উত্তেজিত জনতা জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা করে। 

এ ঘটনায় নিহতের পরিবার, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ ও পুলিশের পক্ষ থেকে গত শনিবার পাটগ্রাম থানায় পৃথক পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে। 

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন