৭ কিলোমিটার দূরে কনের বাড়ি, ছাত্রলীগ নেতা গেলেন হেলিকপ্টারে!
jugantor
৭ কিলোমিটার দূরে কনের বাড়ি, ছাত্রলীগ নেতা গেলেন হেলিকপ্টারে!

  ইমাম হাসান ইমা, আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) থেকে  

১১ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৩৯:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতা মাত্র সাত কিলোমিটার দূরে কনের বাড়িতে গেলেন হেলিকপ্টারে চড়ে। এ ঘটনা এখন টক অব দ্য সিটিতে পরিণত হয়েছে।

উপজেলার সদর পৌরসভার মুকুন্দী গাজীপুরা গ্রামে মঙ্গলবার এ বিয়ের আয়োজন করা হয়। ছাত্রলীগ নেতা শাখাওয়াত হোসেন সাকু উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এবং ওই গ্রামের হাজী খোকনের ছেলে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার শাখাওয়াত হোসেন সাকু বিয়ে করতে যান সদর পৌরসভার মুকুন্দী গ্রামে। মুকুন্দী গ্রামের মো. হেলাল উদ্দিনের মেয়ে মোসাম্মৎ শাহিনুর আক্তারকে তিনি বিয়ে করেন।

বিশনন্দী মসজিদের সামনে থেকে হেলিকপ্টারে চড়েন বর শাখাওয়াত হোসেন সাকু। দুপুর পৌনে ৩টায় তিনি কনের বাড়িতে বিয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হোন। বিয়ে শেষে নববধূকে নিয়ে ৪টা ১০ মিনিটে তিনি নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন। বরের বাড়ি থেকে কনের বাড়ির দূরত্ব মাত্র ৭ কিলোমিটার।

এলাকাবাসী জানান, আড়াইহাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলমের ভাতিজা শাখাওয়াত হোসেন সাকুর বিয়ের অনুষ্ঠান দেখার জন্য উৎসুক জনতা ওই গ্রামে গিয়ে ভিড় জমান। বর ও কনেকে একনজর দেখার জন্য বিভিন্ন গ্রাম থেকে সাধারণ মানুষের ঢল নামে।

ছাত্রলীগ নেতা শাখাওয়াত হোসেন সাকু জানান, আমার ইচ্ছা ছিল হেলিকপ্টারে চেপে বিয়ে করতে যা্ওয়ার। সেই ইচ্ছা পূরণ হয়েছে।

৭ কিলোমিটার দূরে কনের বাড়ি, ছাত্রলীগ নেতা গেলেন হেলিকপ্টারে!

 ইমাম হাসান ইমা, আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) থেকে 
১১ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতা মাত্র সাত কিলোমিটার দূরে কনের বাড়িতে গেলেন হেলিকপ্টারে চড়ে। এ ঘটনা এখন টক অব দ্য সিটিতে পরিণত হয়েছে।

উপজেলার সদর পৌরসভার মুকুন্দী গাজীপুরা গ্রামে মঙ্গলবার এ বিয়ের আয়োজন করা হয়। ছাত্রলীগ নেতা শাখাওয়াত হোসেন সাকু উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এবং ওই গ্রামের হাজী খোকনের ছেলে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার শাখাওয়াত হোসেন সাকু বিয়ে করতে যান সদর পৌরসভার মুকুন্দী গ্রামে। মুকুন্দী গ্রামের মো. হেলাল উদ্দিনের মেয়ে মোসাম্মৎ শাহিনুর আক্তারকে তিনি বিয়ে করেন।

বিশনন্দী মসজিদের সামনে থেকে হেলিকপ্টারে চড়েন বর শাখাওয়াত হোসেন সাকু। দুপুর পৌনে ৩টায় তিনি কনের বাড়িতে বিয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হোন। বিয়ে শেষে নববধূকে নিয়ে ৪টা ১০ মিনিটে তিনি নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন। বরের বাড়ি থেকে কনের বাড়ির দূরত্ব মাত্র ৭ কিলোমিটার।

এলাকাবাসী জানান, আড়াইহাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলমের ভাতিজা শাখাওয়াত হোসেন সাকুর বিয়ের অনুষ্ঠান দেখার জন্য উৎসুক জনতা ওই গ্রামে গিয়ে ভিড় জমান। বর ও কনেকে একনজর দেখার জন্য বিভিন্ন গ্রাম থেকে সাধারণ মানুষের ঢল নামে।

ছাত্রলীগ নেতা শাখাওয়াত হোসেন সাকু জানান, আমার ইচ্ছা ছিল হেলিকপ্টারে চেপে বিয়ে করতে যা্ওয়ার। সেই ইচ্ছা পূরণ হয়েছে।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন