বৃদ্ধা মায়ের সামনে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা
jugantor
বৃদ্ধা মায়ের সামনে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা

  ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

১২ নভেম্বর ২০২০, ২২:২৭:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় বৃদ্ধা মায়ের সামনে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। জমি দখলের ঘটনা নিয়ে উপজেলার বেতগাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, বেতগাছিয়া গ্রামের হযরত আলী (৬৩) তার পৈতৃক সম্পত্তিতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে। কিন্তু গত তিন মাস থেকে ওই জমির দাবি করে আসছে পাশের বাড়ির নূর হোসেন গংরা। এরপর থেকে জমির দখল নিয়ে উভয়পক্ষের মাঝে বিরোধ চলছিল।

এর আগে দুইবার হযরত আলীর ঘর ভেঙে দেয় নূর হোসেন ও তার ভাই মুশিকুর রহমান। এ নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

বুধবার সকাল আনুমানিক ১০টায় হযরত আলী তার জমিতে কাজ করতে যান। এ সময় নূর হোসেন ও তার ভাই মুশিকুর রহমান হযরত আলীকে ডেকে একটি ঝোপঝাড়ের কাছে এনে আঘাত করে। চিৎকার শুনে হযরত আলীর মা ও তার ভাই কুদরত আলী কাছে আসেন।

এ সময় মায়ের সামনে তার দুই ছেলেকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে নূর হোসেন ও তার ভাই মুশিকুর রহমান। বারবার হযরত আলীর মা প্রাণভিক্ষা চাইলেও কানে পৌঁছেনি বৃদ্ধা মায়ের আর্তনাদ।

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় দুই ভাইকে প্রথমে ধোবাউড়া ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত ডাক্তার রাতে হযরত আলীকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরদিকে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন কুদরত আলী।

চোখের সামনে দুই ছেলেকে কুপানোর দৃশ্য যেন কোনোভাবেই ভুলতে পারছেন না বৃদ্ধা মা। শোকে তিনি এখন পাথর। আশপাশের লোকজন এসে সান্ত্বনা দিচ্ছেন বৃদ্ধাকে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী বিচার দাবি করেছেন।

এ ব্যাপারে ধোবাউড়া থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, মামলা হয়েছে। একজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃদ্ধা মায়ের সামনে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা

 ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
১২ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় বৃদ্ধা মায়ের সামনে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। জমি দখলের ঘটনা নিয়ে উপজেলার বেতগাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, বেতগাছিয়া গ্রামের হযরত আলী (৬৩) তার পৈতৃক সম্পত্তিতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে। কিন্তু গত তিন মাস থেকে ওই জমির দাবি করে আসছে পাশের বাড়ির নূর হোসেন গংরা। এরপর থেকে জমির দখল নিয়ে উভয়পক্ষের মাঝে বিরোধ চলছিল।

এর আগে দুইবার হযরত আলীর ঘর ভেঙে দেয় নূর হোসেন ও তার ভাই মুশিকুর রহমান। এ নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

বুধবার সকাল আনুমানিক ১০টায় হযরত আলী তার জমিতে কাজ করতে যান। এ সময় নূর হোসেন ও তার ভাই মুশিকুর রহমান হযরত আলীকে ডেকে একটি ঝোপঝাড়ের কাছে এনে আঘাত করে। চিৎকার শুনে হযরত আলীর মা ও তার ভাই কুদরত আলী কাছে আসেন।

এ সময় মায়ের সামনে তার দুই ছেলেকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে নূর হোসেন ও তার ভাই মুশিকুর রহমান। বারবার হযরত আলীর মা প্রাণভিক্ষা চাইলেও কানে পৌঁছেনি বৃদ্ধা মায়ের আর্তনাদ।

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় দুই ভাইকে প্রথমে ধোবাউড়া ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত ডাক্তার রাতে হযরত আলীকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরদিকে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন কুদরত আলী।

চোখের সামনে দুই ছেলেকে কুপানোর দৃশ্য যেন কোনোভাবেই ভুলতে পারছেন না বৃদ্ধা মা। শোকে তিনি এখন পাথর। আশপাশের লোকজন এসে সান্ত্বনা দিচ্ছেন বৃদ্ধাকে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী বিচার দাবি করেছেন।

এ ব্যাপারে ধোবাউড়া থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, মামলা হয়েছে। একজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন