বাস থেকে নামিয়ে জঙ্গলে নিয়ে হোটেল শ্রমিককে গণধর্ষণ
jugantor
বাস থেকে নামিয়ে জঙ্গলে নিয়ে হোটেল শ্রমিককে গণধর্ষণ

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

১৩ নভেম্বর ২০২০, ২০:০৫:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মেহরাবাড়ি এলাকায় বাস থেকে নামিয়ে জঙ্গলে নিয়ে এক নারী হোটেল শ্রমিককে গণধর্ষণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষিতা বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই নারী শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার বাসিন্দা। তিনি জামিরদিয়া ডুবালিয়াপাড়া এলাকায় একটি খাবার হোটেলে কাজ করেন। সন্ধ্যায় শেরপুরে নিজবাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে একটি বাসে উঠলে বাসটি ভালুকা বাসস্ট্যান্ডে এসে তাকে নামিয়ে দেয়।

ভালুকা বাসস্ট্যান্ডে বাস থেকে নামার পর সিডস্টোর এলাকার বাসিন্দা জাফরের (২৯) সঙ্গে দেখা হয়। জাফর শেরপুরের বাসে তোলে দেয়ার কথা বলে ওই নারীকে নিয়ে একটি হাইওয়ে মিনিবাসে ওঠে। বাসটি মেহরাবাড়ি বাজারে পৌঁছলে ভিকটিমকে বাস থেকে নামিয়ে জোরপূর্বক মহাসড়কের পাশে জঙ্গলে নিয়ে যায়।

এ সময় মেহরাবাড়ি গ্রামের মোতালেব (২৫) ও একই গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে হাছান (২৪) উপস্থিত হয়ে পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষকরা ভিকটিমের সঙ্গে থাকা একটি মোবাইল সেটসহ দুই হাজার ৫০০ টাকা নিয়ে যায়।

ধর্ষণের পর ওই নারীকে ফেলে চলে যাওয়ার সময় সে ধর্ষকদের পেছনে পেছনে আসে। এ সময় গ্রামপুলিশ দেখে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। পরে গ্রামপুলিশের সহযোগিতায় তিনি ভালুকা মডেল থানায় যান।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, ওই নারী বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। আমরা তাৎক্ষণিক দুইজনকে গ্রেফতার করছি।

বাস থেকে নামিয়ে জঙ্গলে নিয়ে হোটেল শ্রমিককে গণধর্ষণ

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
১৩ নভেম্বর ২০২০, ০৮:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মেহরাবাড়ি এলাকায় বাস থেকে নামিয়ে জঙ্গলে নিয়ে এক নারী হোটেল শ্রমিককে গণধর্ষণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষিতা বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই নারী শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার বাসিন্দা। তিনি জামিরদিয়া ডুবালিয়াপাড়া এলাকায় একটি খাবার হোটেলে কাজ করেন। সন্ধ্যায় শেরপুরে নিজবাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে একটি বাসে উঠলে বাসটি ভালুকা বাসস্ট্যান্ডে এসে তাকে নামিয়ে দেয়।

ভালুকা বাসস্ট্যান্ডে বাস থেকে নামার পর সিডস্টোর এলাকার বাসিন্দা জাফরের (২৯) সঙ্গে দেখা হয়। জাফর শেরপুরের বাসে তোলে দেয়ার কথা বলে ওই নারীকে নিয়ে একটি হাইওয়ে মিনিবাসে ওঠে। বাসটি মেহরাবাড়ি বাজারে পৌঁছলে ভিকটিমকে বাস থেকে নামিয়ে জোরপূর্বক মহাসড়কের পাশে জঙ্গলে নিয়ে যায়।

এ সময় মেহরাবাড়ি গ্রামের মোতালেব (২৫) ও একই গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে হাছান (২৪) উপস্থিত হয়ে পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষকরা ভিকটিমের সঙ্গে থাকা একটি মোবাইল সেটসহ দুই হাজার ৫০০ টাকা নিয়ে যায়।

ধর্ষণের পর ওই নারীকে ফেলে চলে যাওয়ার সময় সে ধর্ষকদের পেছনে পেছনে আসে। এ সময় গ্রামপুলিশ দেখে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। পরে গ্রামপুলিশের সহযোগিতায় তিনি ভালুকা মডেল থানায় যান।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, ওই নারী বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। আমরা তাৎক্ষণিক দুইজনকে গ্রেফতার করছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন