‘বিদেশি শক্তির চাপে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরে বিলম্ব’
jugantor
‘বিদেশি শক্তির চাপে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরে বিলম্ব’

  রাজশাহী ব্যুরো  

১৫ নভেম্বর ২০২০, ১৬:৫২:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী কলেজে শিক্ষকদের এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন

ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তরের দিনক্ষণ ঠিক হয়নি। এনজিও ও বিদেশি শক্তিদের চাপে এই স্থানান্তর প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন রোববার বেলা ১১টায় রাজশাহী কলেজে শিক্ষকদের এক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানিয়েছেন।

আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, জিএসপি নিয়ে তারা ভাবছেন না। তবে পণ্য রফতানিতে আমেরিকার নতুন সরকারের কাছে ট্যারিফ কমানোর দাবি থাকবে।

পরে মন্ত্রী রাজশাহী কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। তখন তিনি বলেন, বাংলাদেশের দুটি বিষয় উন্নয়নে বড় ভূমিকা রাখবে। এর একটি হল মানবসম্পদ, অন্যটি নদী-নালা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানবসম্পদকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। বর্তমানে প্রবাসীরা বছরে ১৮ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পাঠান। এটি আরও বৃদ্ধি করা সম্ভব। তাছাড়া দেশে প্রায় এক হাজার ৩০০ নদী-নালা রয়েছে। সেগুলোকে কাজে লাগাতে হবে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান। সভায় কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকালে মন্ত্রী মহানগরীর কাদিরগঞ্জে জাতীয় নেতা শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে তিনি রাজশাহী কলেজ চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

‘বিদেশি শক্তির চাপে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরে বিলম্ব’

 রাজশাহী ব্যুরো 
১৫ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাজশাহী কলেজে শিক্ষকদের এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন
রাজশাহী কলেজে শিক্ষকদের এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন

ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তরের দিনক্ষণ ঠিক হয়নি। এনজিও ও বিদেশি শক্তিদের চাপে এই স্থানান্তর প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন রোববার বেলা ১১টায় রাজশাহী কলেজে শিক্ষকদের এক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানিয়েছেন।
 
আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, জিএসপি নিয়ে তারা ভাবছেন না। তবে পণ্য রফতানিতে আমেরিকার নতুন সরকারের কাছে ট্যারিফ কমানোর দাবি থাকবে।

পরে মন্ত্রী রাজশাহী কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। তখন তিনি বলেন, বাংলাদেশের দুটি বিষয় উন্নয়নে বড় ভূমিকা রাখবে। এর একটি হল মানবসম্পদ, অন্যটি নদী-নালা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানবসম্পদকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। বর্তমানে প্রবাসীরা বছরে ১৮ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পাঠান। এটি আরও বৃদ্ধি করা সম্ভব। তাছাড়া দেশে প্রায় এক হাজার ৩০০ নদী-নালা রয়েছে। সেগুলোকে কাজে লাগাতে হবে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান। সভায় কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকালে মন্ত্রী মহানগরীর কাদিরগঞ্জে জাতীয় নেতা শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে তিনি রাজশাহী কলেজ চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন