কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার
jugantor
কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

  বরিশাল ব্যুরো ও বানারীপাড়া প্রতিনিধি  

১৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৫:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় কিশোরীকে অপহরণ এবং বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আল আমিন মৃধা (২৫) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে বানারীপাড়া থানায় মামলাটি করেন ভিকটিমের মা।

গ্রেফতার আল আমিন মৃধা বানারীপাড়া উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শামসুল আলম মৃধার ছেলে এবং চাখার ফজলুল হক কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র।

মামলাসূত্রে জানা যায়, ৯ সেপ্টেম্বর উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও এসএসসি পরীক্ষার্থীকে (১৭) নিজ বাড়ির সামনে থেকে বিয়ের আশ্বাসে নিয়ে যায় আল আমিন মৃধা।

এর পর তাকে অপহরণ এবং নানা জায়গার হোটেলে রেখে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত ধর্ষণ করে। ৮ নভেম্বর ভিকটিম আসামির কাছ থেকে পালিয়ে এসে নিজ বাড়িতে ওঠে। বিষয়টি সে তার পরিবারকে জানালে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় অপহরণের পর ধর্ষণ মামলা করেন।

মামলায় আল আমিন মৃধাসহ ২-৩ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বানারীপাড়া থানার ওসি হেলাল উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় রোববার রাতে মামলার পর আসামি আল আমিনকে নিজ বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ছাড়া ভিকটিমকে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়েছে।

কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

 বরিশাল ব্যুরো ও বানারীপাড়া প্রতিনিধি 
১৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার
ফাইল ছবি

বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় কিশোরীকে অপহরণ এবং বিয়ের আশ্বাসে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আল আমিন মৃধা (২৫) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে বানারীপাড়া থানায় মামলাটি করেন ভিকটিমের মা।

গ্রেফতার আল আমিন মৃধা বানারীপাড়া উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শামসুল আলম মৃধার ছেলে এবং চাখার ফজলুল হক কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র।

মামলাসূত্রে জানা যায়, ৯ সেপ্টেম্বর উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও এসএসসি পরীক্ষার্থীকে (১৭) নিজ বাড়ির সামনে থেকে বিয়ের আশ্বাসে নিয়ে যায় আল আমিন মৃধা।

এর পর তাকে অপহরণ এবং নানা জায়গার হোটেলে রেখে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত ধর্ষণ করে। ৮ নভেম্বর ভিকটিম আসামির কাছ থেকে পালিয়ে এসে নিজ বাড়িতে ওঠে। বিষয়টি সে তার পরিবারকে জানালে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় অপহরণের পর ধর্ষণ মামলা করেন।  

মামলায় আল আমিন মৃধাসহ ২-৩ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বানারীপাড়া থানার ওসি হেলাল উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় রোববার রাতে মামলার পর আসামি আল আমিনকে নিজ বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ছাড়া ভিকটিমকে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন