টেনেহিঁচড়ে ঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ
jugantor
টেনেহিঁচড়ে ঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ

  সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৬ নভেম্বর ২০২০, ১৭:১৬:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ১৬ বছরের এক প্রতিবন্ধী তরুণীকে টেনেহিঁচড়ে ঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার সন্ধ্যায় পাতিলাপাড়া এলাকায় ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে প্রতিবেশী চাচাতো ভাই জিয়া।

এ ঘটনায় সাটুরিয়া থানায় রাতেই একটি ধর্ষণ মামলা করা হয়েছে। ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বখাটে জিয়াউর রহমান জিয়া (১৮) একই গ্রামের জয়নাল আবেদিনের পুত্র।

প্রতিবন্ধী তরুণী জানায়, প্রতিবেশী জিয়া নামে চাচাতো ভাই দীর্ঘদিন ধরে আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমি তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সেদিন সন্ধ্যায় আমাকে বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক টেনেহিঁচড়ে বসতঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে যায়। এরপর মুখ চেপে ধরে জোর করে ওই জঙ্গলে ধর্ষণ করে।

ওই তরুণীর মা অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে বরাইদ ইউনিয়নের পাতিলাপাড়া গ্রামের মো. জয়নাল আবেদিনের বখাটে ছেলে জিয়াউর রহমান আমার প্রতিবন্ধী মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছে। রোববার মেয়েকে রেখে আত্মীয় বাড়ি বেড়াতে গেলে সন্ধ্যায় জোরপূর্বক ধরে নিয়ে বাড়ির পেছনের জঙ্গলে ধর্ষণ করে।

তিনি জানান, মেয়ের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে জিয়া পালিয়ে যায়। পরে আমার কাছে বিস্তারিত ধর্ষণের ঘটনা খুলে বলে মেয়ে। রাতেই তাকে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার মেয়ে প্রতিবন্ধী ভাতা পাচ্ছে বলেও জানান তার মা।

এ ব্যাপারে সাটুরিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হাবিবুর রহমান জানান, ওই তরুণীর মা কল্পনা বেগম বাদী হয়ে থানায় জিয়া নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। প্রতিবন্ধী মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষা করার জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

টেনেহিঁচড়ে ঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ

 সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৬ নভেম্বর ২০২০, ০৫:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ১৬ বছরের এক প্রতিবন্ধী তরুণীকে টেনেহিঁচড়ে ঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার সন্ধ্যায় পাতিলাপাড়া এলাকায় ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে প্রতিবেশী চাচাতো ভাই জিয়া।

এ ঘটনায় সাটুরিয়া থানায় রাতেই একটি ধর্ষণ মামলা করা হয়েছে। ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বখাটে জিয়াউর রহমান জিয়া (১৮) একই গ্রামের জয়নাল আবেদিনের পুত্র।

প্রতিবন্ধী তরুণী জানায়, প্রতিবেশী জিয়া নামে চাচাতো ভাই দীর্ঘদিন ধরে আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমি তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সেদিন সন্ধ্যায় আমাকে বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক টেনেহিঁচড়ে বসতঘরের পেছনে জঙ্গলে নিয়ে যায়। এরপর মুখ চেপে ধরে জোর করে ওই জঙ্গলে ধর্ষণ করে।

ওই তরুণীর মা অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে বরাইদ ইউনিয়নের পাতিলাপাড়া গ্রামের মো. জয়নাল আবেদিনের বখাটে ছেলে জিয়াউর রহমান আমার প্রতিবন্ধী মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছে। রোববার মেয়েকে রেখে আত্মীয় বাড়ি বেড়াতে গেলে সন্ধ্যায় জোরপূর্বক ধরে নিয়ে বাড়ির পেছনের জঙ্গলে ধর্ষণ করে।

তিনি জানান, মেয়ের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে জিয়া পালিয়ে যায়। পরে আমার কাছে বিস্তারিত ধর্ষণের ঘটনা খুলে বলে মেয়ে। রাতেই তাকে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার মেয়ে প্রতিবন্ধী ভাতা পাচ্ছে বলেও জানান তার মা।

এ ব্যাপারে সাটুরিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হাবিবুর রহমান জানান, ওই তরুণীর মা কল্পনা বেগম বাদী হয়ে থানায় জিয়া নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। প্রতিবন্ধী মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষা করার জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন