কুড়িগ্রামে পূর্বশত্রুতার জেরে প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে জখম 
jugantor
কুড়িগ্রামে পূর্বশত্রুতার জেরে প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে জখম 

  উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৭ নভেম্বর ২০২০, ১৮:৩৩:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কুপিয়ে জখম

কুড়িগ্রামের উলিপুরে পূর্বশত্রুতার জের ধরে গীরেন্দ্র নাথ (৬০) নামে এক শ্রবণ প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনার সময় আহতের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ক্ষতিসাধন করা হয়। এদিকে গুরুতর আহত ওই প্রতিবন্ধীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে দক্ষিণ মধুপুর সাতকুড়ারপাড় হিন্দুপাড়া গ্রামে।

আহতের পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ধরনীবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ মধুপুর সাতকুড়ারপাড় হিন্দুপাড়া গ্রামের প্রতিবন্ধী গীরেন্দ্র নাথ বর্মণের পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশী সুশীল গংদের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

তারা আরও জানান, গত ১৫ নভেম্বর সুশীল গংদের পক্ষের স্থানীয় একাধিক মাদক মামলার আসামি সেকেন্দার আলী গীরেন্দ্র নাথের বড় ভাই ধীরেন্দ্র নাথ বর্মণকে (৬৫) কোনো কারণ ছাড়াই মারপিট করে। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন ঘটনার প্রতিবাদ করলে সুশীল গং প্রতিবাদকারীদের হুমকি ও গালিগালাজ করেন।

এরই জের ধরে ঘটনার দিন মঙ্গলবার সকালে ওই এলাকায় একটি চায়ের দোকানের সামনে সুশীলের ছোট ভাই সুনীলের সঙ্গে প্রতিবাদকারীদের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুশীলের নেতৃত্বে স্থানীয় আয়নালসহ কয়েকজন দুর্বৃত্ত গীরেন্দ্র নাথের বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। বাড়ির লোকজন জীবন রক্ষার্থে ঘরে ঢুকে আর্তচিৎকার করলে তাদের উঠানে থাকা একটি বাইসাইকেল লুট করে নিয়ে যায়।

পরে গীরেন্দ্র নাথকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী জমিতে একা পেয়ে মারধর করে এবং রাম-দা দিয়ে হাতে ও পায়ে কোপ মারে। এতে গীরেন্দ্র নাথ গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা ডা. সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, গীরেন্দ্র নাথের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

উলিপুর থানার ওসি (তদন্ত) রুহুল আমীন বলেন, মারামারির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

কুড়িগ্রামে পূর্বশত্রুতার জেরে প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে জখম 

 উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি  
১৭ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কুপিয়ে জখম
আহত গীরেন্দ্র নাথ। ছবি: যুগান্তর

কুড়িগ্রামের উলিপুরে পূর্বশত্রুতার জের ধরে গীরেন্দ্র নাথ (৬০) নামে এক শ্রবণ প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

ঘটনার সময় আহতের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ক্ষতিসাধন করা হয়। এদিকে গুরুতর আহত ওই প্রতিবন্ধীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে দক্ষিণ মধুপুর সাতকুড়ারপাড় হিন্দুপাড়া গ্রামে। 

আহতের পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ধরনীবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ মধুপুর সাতকুড়ারপাড় হিন্দুপাড়া গ্রামের প্রতিবন্ধী গীরেন্দ্র নাথ বর্মণের পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশী সুশীল গংদের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।
 
তারা আরও জানান, গত ১৫ নভেম্বর সুশীল গংদের পক্ষের স্থানীয় একাধিক মাদক মামলার আসামি সেকেন্দার আলী গীরেন্দ্র নাথের বড় ভাই ধীরেন্দ্র নাথ বর্মণকে (৬৫) কোনো কারণ ছাড়াই মারপিট করে। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন ঘটনার প্রতিবাদ করলে সুশীল গং প্রতিবাদকারীদের হুমকি ও গালিগালাজ করেন। 

এরই জের ধরে ঘটনার দিন মঙ্গলবার সকালে ওই এলাকায় একটি চায়ের দোকানের সামনে সুশীলের ছোট ভাই সুনীলের সঙ্গে প্রতিবাদকারীদের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। 

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুশীলের নেতৃত্বে স্থানীয় আয়নালসহ কয়েকজন দুর্বৃত্ত গীরেন্দ্র নাথের বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। বাড়ির লোকজন জীবন রক্ষার্থে ঘরে ঢুকে আর্তচিৎকার করলে তাদের উঠানে থাকা একটি বাইসাইকেল লুট করে নিয়ে যায়।

পরে গীরেন্দ্র নাথকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী জমিতে একা পেয়ে মারধর করে এবং রাম-দা দিয়ে হাতে ও পায়ে কোপ মারে। এতে গীরেন্দ্র নাথ গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা ডা. সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, গীরেন্দ্র নাথের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। 

উলিপুর থানার ওসি (তদন্ত) রুহুল আমীন বলেন, মারামারির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন