সাবেক স্ত্রীকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন
jugantor
সাবেক স্ত্রীকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

  রাজশাহী ব্যুরো  

১৮ নভেম্বর ২০২০, ২১:২২:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

এমপি এনামুল হক-লিজা

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ করেছেন রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের এমপি এনামুল হকের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী আয়েশা আক্তার লিজা। বুধবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরীর একটি রেস্টুরেন্টে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এমপি এনামুল হক।

সংবাদ সম্মেলনে লিজা বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি আইনে আমার নামে মামলা দিয়ে আমাকে হয়রানি করা হচ্ছে। এমপি এনামুল হক প্রভাবশালী হওয়ায় আমি সুবিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। কোনো আইনজীবী আমার পাশে নেই। বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতির মধ্যে রয়েছি।

লিজা বলেন, আমি এখন পর্যন্ত এমপি এনামুলের স্ত্রী। আমি তালাকের কোনো কাগজপত্র পাইনি। ফেসবুকে পোস্ট দেয়ার অপরাধে এমপি এনামুলের ব্যক্তিগত সহকারী বাগমারা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আমার বিরুদ্ধে গত ২৫ জুন তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলা প্রত্যাহারের জন্য এমপি এনামুল আমার কাছে ২৫ লাখ টাকা দাবি করেছেন।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে এমপি এনামুল হক বলেন, লিজাকে অনেক আগেই তালাক দেয়া হয়েছে। কিন্তু সে তালাকের কাগজপত্র গ্রহণ করেনি। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তালাক হয়ে গেছে। তালাকের পরও ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে আমার কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা নিয়েছে। এর সব ডকুমেন্ট আমার কাছে আছে।

সাবেক স্ত্রীকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

 রাজশাহী ব্যুরো 
১৮ নভেম্বর ২০২০, ০৯:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এমপি এনামুল হক-লিজা
এমপি এনামুল হক-লিজা

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ করেছেন রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের এমপি এনামুল হকের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী আয়েশা আক্তার লিজা। বুধবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরীর একটি রেস্টুরেন্টে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এমপি এনামুল হক।

সংবাদ সম্মেলনে লিজা বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি আইনে আমার নামে মামলা দিয়ে আমাকে হয়রানি করা হচ্ছে। এমপি এনামুল হক প্রভাবশালী হওয়ায় আমি সুবিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। কোনো আইনজীবী আমার পাশে নেই। বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতির মধ্যে রয়েছি।

লিজা বলেন, আমি এখন পর্যন্ত এমপি এনামুলের স্ত্রী। আমি তালাকের কোনো কাগজপত্র পাইনি। ফেসবুকে পোস্ট দেয়ার অপরাধে এমপি এনামুলের ব্যক্তিগত সহকারী বাগমারা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আমার বিরুদ্ধে গত ২৫ জুন তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলা প্রত্যাহারের জন্য এমপি এনামুল আমার কাছে ২৫ লাখ টাকা দাবি করেছেন। 

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে এমপি এনামুল হক বলেন, লিজাকে অনেক আগেই তালাক দেয়া হয়েছে। কিন্তু সে তালাকের কাগজপত্র গ্রহণ করেনি। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তালাক হয়ে গেছে। তালাকের পরও ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে আমার কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা নিয়েছে। এর সব ডকুমেন্ট আমার কাছে আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন