সোনারগাঁওয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৬
jugantor
সোনারগাঁওয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৬

  যুগান্তর রিপোর্ট, সোনারগাঁও  

২২ নভেম্বর ২০২০, ১৩:২৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

সোনারগাঁওয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৬

জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় প্রতিপক্ষের হামলায় শিশুসহ কমপক্ষে ছয়জন আহত হয়েছেন। এ সময় কয়েকটি বাড়িঘরে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

গত শনিবার রাতে উপজেলার পিরোজপুর নয়াগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহতদের সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামের প্রভাবশালী আলাউদ্দিন মিয়ার সঙ্গে একই এলাকার সাহাবুদ্দিন মিয়ার দীর্ঘদিন দরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এ বিরোধের জের ধরে শনিবার রাতে সাহাবুদ্দিন মিয়ার বাড়িতে হামলা চালানো হয়। এ সময় হামলাকারীরা সাহাবুদ্দিন মিয়ার ষাটোর্ধ্ব বয়সের শ্বশুর মো. সাত্তার, আছমা বেগম, আকলিমা, শান্ত ও কবিরকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে।

হামলাকারীরা এ সময় শিশুসন্তান সাইদকে (১১ মাস) কোল থেকে মাটিতে ছুড়ে ফেলে দেয় এবং কয়েকটি বাড়িঘরে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। আহতদের চিৎকারে এ সময় আশপাশের লোকজন এলে হামলাকারীরা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় আহত আকলিমা বেগম বাদী হয়ে রোববার সকালে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আহত আকলিমা বেগম জানান, প্রভাবশালী আলাউদ্দিন মিয়া ও তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় জমি দখল, বালুর ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ ও বিভিন্ন অপকর্ম পরিচালনা করে আসছে। তার ভয়ে এলাকার কোনো মানুষ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।
তিনি বলেন, জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে শনিবার রাতে আলাউদ্দিন মিয়া অতর্কিতভাবে তার বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা তার বাবা, মা ও শিশুসন্তানসহ ছয়জনকে পিটিয়ে আহত করে।

এ ব্যাপারে আলাউদ্দিন মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সাহাবুদ্দিন মিয়ার পরিবারের লোকজন স্থানীয় দ্বীন ইসলাম হত্যা মামলার আসামি। এ মামলার আপস মীমাংসার জন্য সাহাবুদ্দিন মিয়া আমাদের হুমকি-ধমকি দেয়াসহ নানা প্রকার চাপ প্রয়োগ করে আসছিল। এ বিষয়টির প্রতিবাদ করায় তারা আমাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়।

সোনারগাঁও থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। অভিযোগটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোনারগাঁওয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৬

 যুগান্তর রিপোর্ট, সোনারগাঁও 
২২ নভেম্বর ২০২০, ০১:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সোনারগাঁওয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৬
ফাইল ছবি

জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় প্রতিপক্ষের হামলায় শিশুসহ কমপক্ষে ছয়জন আহত হয়েছেন। এ সময় কয়েকটি বাড়িঘরে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

গত শনিবার রাতে উপজেলার পিরোজপুর নয়াগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহতদের সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামের প্রভাবশালী আলাউদ্দিন মিয়ার সঙ্গে একই এলাকার সাহাবুদ্দিন মিয়ার দীর্ঘদিন দরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এ বিরোধের জের ধরে শনিবার রাতে সাহাবুদ্দিন মিয়ার বাড়িতে হামলা চালানো হয়। এ সময় হামলাকারীরা সাহাবুদ্দিন মিয়ার ষাটোর্ধ্ব বয়সের শ্বশুর মো. সাত্তার, আছমা বেগম, আকলিমা, শান্ত ও কবিরকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে।

হামলাকারীরা এ সময় শিশুসন্তান সাইদকে (১১ মাস) কোল থেকে মাটিতে ছুড়ে ফেলে দেয় এবং কয়েকটি বাড়িঘরে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। আহতদের চিৎকারে এ সময় আশপাশের লোকজন এলে হামলাকারীরা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় আহত আকলিমা বেগম বাদী হয়ে রোববার সকালে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আহত আকলিমা বেগম জানান, প্রভাবশালী আলাউদ্দিন মিয়া ও তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় জমি দখল, বালুর ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ ও বিভিন্ন অপকর্ম পরিচালনা করে আসছে। তার ভয়ে এলাকার কোনো মানুষ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।
তিনি বলেন, জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে শনিবার রাতে আলাউদ্দিন মিয়া অতর্কিতভাবে তার বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা তার বাবা, মা ও শিশুসন্তানসহ ছয়জনকে পিটিয়ে আহত করে।

এ ব্যাপারে আলাউদ্দিন মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সাহাবুদ্দিন মিয়ার পরিবারের লোকজন স্থানীয় দ্বীন ইসলাম হত্যা মামলার আসামি। এ মামলার আপস মীমাংসার জন্য সাহাবুদ্দিন মিয়া আমাদের হুমকি-ধমকি দেয়াসহ নানা প্রকার চাপ প্রয়োগ করে আসছিল। এ বিষয়টির প্রতিবাদ করায় তারা আমাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়।

সোনারগাঁও থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। অভিযোগটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন