স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে প্রাণ দিলেন গৃহবধূ
jugantor
স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

  শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২২ নভেম্বর ২০২০, ১৩:৩২:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

গৃহবধূর আত্মহত্যা

গাজীপুরের শ্রীপুরে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। নিহত গৃহবধূর নাম রিপা আক্তার (২৬)।

রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের জৈনাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রিপা আক্তার ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার পারুলদিয়া গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের মেয়ে এবং টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ভালুককান্দি গ্রামের শহীদ মিয়ার ছেলে লিটন মিয়ার স্ত্রী।

তিনি স্বামীর সঙ্গে শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের জৈনাবাজার এলাকায় ভাড়া থেকে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। তাদের সংসারে রিয়ান (৬) নামে একটি ছেলে রয়েছে।

শ্রীপুর থানার এসআই শুকুর আলী এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সকালে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর পর স্বামী লিটন মিয়া ঘর থেকে বের হয়ে যান। পরে স্ত্রী রিপা আক্তার ঘরের দরজা লাগিয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সিলিংফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

নিহতের স্বামী লিটন মিয়া জানান, ঝগড়া ও কথা কাটাকাটির পর আমি ঘর থেকে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রিপা দরজা বন্ধ করে দেয়। কিছুক্ষণ পর ফিরে এসে ডাকাডাকি করে দরজা না খুললে স্থানীয়দের সহায়তায় দরজা ভেঙে ফেলা হয়।

এর পর ঘরে প্রবেশ করে তাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক সফিকুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এসআই শুকুর আলী জানান, নিহতের গলায় দাগ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই গৃহবধূ ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।

স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

 শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২২ নভেম্বর ২০২০, ০১:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গৃহবধূর আত্মহত্যা
ফাইল ছবি

গাজীপুরের শ্রীপুরে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। নিহত গৃহবধূর নাম রিপা আক্তার (২৬)।

রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের জৈনাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রিপা আক্তার ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার পারুলদিয়া গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের মেয়ে এবং টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ভালুককান্দি গ্রামের শহীদ মিয়ার ছেলে লিটন মিয়ার স্ত্রী।

তিনি স্বামীর সঙ্গে শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের জৈনাবাজার এলাকায় ভাড়া থেকে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। তাদের সংসারে রিয়ান (৬) নামে একটি ছেলে রয়েছে।   

শ্রীপুর থানার এসআই শুকুর আলী এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।    

তিনি জানান, সকালে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর পর স্বামী লিটন মিয়া ঘর থেকে বের হয়ে যান। পরে স্ত্রী রিপা আক্তার ঘরের দরজা লাগিয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সিলিংফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

নিহতের স্বামী লিটন মিয়া জানান, ঝগড়া ও কথা কাটাকাটির পর আমি ঘর থেকে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রিপা দরজা বন্ধ করে দেয়। কিছুক্ষণ পর ফিরে এসে ডাকাডাকি করে দরজা না খুললে স্থানীয়দের সহায়তায় দরজা ভেঙে ফেলা হয়।

এর পর ঘরে প্রবেশ করে তাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক সফিকুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এসআই শুকুর আলী জানান, নিহতের গলায় দাগ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই গৃহবধূ ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন