একই পরিবারের চার সদস্য খুন, চার্জশিট শুধু ভাইয়ের বিরুদ্ধে
jugantor
একই পরিবারের চার সদস্য খুন, চার্জশিট শুধু ভাইয়ের বিরুদ্ধে

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  

২৪ নভেম্বর ২০২০, ১৭:৪০:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সংঘটিত একই পরিবারের চাঞ্চল্যকর চার সদস্যকে খুনের মামলায় মাত্র এক আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে সিআইডি পুলিশ। এতে আসামি করা হয়েছে নিহত শাহীনুর রহমানের ভাই রায়হানুলকে।

রোববার সিআইডি পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর সফিকুল ইসলাম কলারোয়ার আমলি আদালতে এই চার্জশিট দাখিল করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, চার্জশিটটি গ্রহণ করে পরবর্তী কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

গত ১৪ অক্টোবর রাতে কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসী গ্রামের শাহীনুর রহমান, তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন, তাদের দুই শিশু সন্তান সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও তাসনিম সুলতানাসহ (৬) চারজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। ঘাতক এ সময় শাহিনুরের দুগ্ধপোষ্য শিশু কন্যা মারিয়া সুলতানাকে (চার মাস) অক্ষত অবস্থায় রেখে যায়। এ ঘটনায় পুলিশ নিহত শাহীনুরের ভাই রায়হানুলকে গ্রেফতার করে।

সাতক্ষীরা সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান জানান, এই মামলা তদন্ত শুরু করে সাতক্ষীরার সিআইডি পুলিশ। তদন্তকালে পুলিশ এই হত্যাযজ্ঞের সঙ্গে রায়হানুলের একক সম্পৃক্ততা খুঁজে পায়। পরে রায়হানুল সিআইডি এবং আদালতে তার জবানবন্দিতে স্বীকার করে যে, সে একাই তাদেরকে খুন করেছে।

এর কারণ হিসাবে রায়হানুল উল্লেখ করে, সে বেকার হওয়ায় ভাই ও ভাবির পরিবারের সঙ্গে খাওয়া দাওয়া করতো। বেকার হওয়ায় তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যায়। এই খাওয়া দাওয়া নিয়ে ভাই ও ভাবি তাকে প্রায়ই বকাঝকা করতো। এমনকি রাতে টিভি দেখতে চাইলে বিদ্যুতের খরচ না দেয়ায় তারা অসন্তোষ প্রকাশ করতো।

এসব কারণে বিক্ষুব্ধ হয়ে রায়হানুল তার ভাই, ভাবি ও তাদের দুই শিশু সন্তানকে গলা কেটে হত্যা করে। হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো চাপাতি সে পুকুরে ফেলে দেয়। পরে সে সিআইডি পুলিশসহ অন্যদের উপস্থিতিতে চাপাতি পানি থেকে তুলে দেয়। রায়হানুল বর্তমানে সাতক্ষীরা কারাগারে আটক রয়েছে।

একই পরিবারের চার সদস্য খুন, চার্জশিট শুধু ভাইয়ের বিরুদ্ধে

 সাতক্ষীরা প্রতিনিধি 
২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সংঘটিত একই পরিবারের চাঞ্চল্যকর চার সদস্যকে খুনের মামলায় মাত্র এক আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে সিআইডি পুলিশ। এতে আসামি করা হয়েছে নিহত শাহীনুর রহমানের ভাই রায়হানুলকে।

রোববার সিআইডি পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর সফিকুল ইসলাম  কলারোয়ার আমলি আদালতে এই চার্জশিট দাখিল করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, চার্জশিটটি গ্রহণ করে পরবর্তী কার্যক্রম শুরু হয়েছে।
 
গত ১৪ অক্টোবর রাতে কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসী গ্রামের শাহীনুর রহমান, তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন, তাদের দুই শিশু সন্তান সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও তাসনিম সুলতানাসহ (৬) চারজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। ঘাতক এ সময় শাহিনুরের দুগ্ধপোষ্য শিশু কন্যা মারিয়া সুলতানাকে (চার মাস) অক্ষত অবস্থায় রেখে যায়। এ ঘটনায় পুলিশ নিহত শাহীনুরের ভাই রায়হানুলকে গ্রেফতার করে।

সাতক্ষীরা সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান জানান, এই মামলা তদন্ত শুরু করে সাতক্ষীরার সিআইডি পুলিশ। তদন্তকালে পুলিশ এই হত্যাযজ্ঞের সঙ্গে রায়হানুলের একক সম্পৃক্ততা খুঁজে পায়। পরে রায়হানুল সিআইডি এবং আদালতে তার জবানবন্দিতে স্বীকার করে যে, সে একাই তাদেরকে খুন করেছে।

এর কারণ হিসাবে রায়হানুল উল্লেখ করে, সে বেকার হওয়ায় ভাই ও ভাবির পরিবারের সঙ্গে খাওয়া দাওয়া করতো। বেকার হওয়ায় তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যায়। এই খাওয়া দাওয়া নিয়ে ভাই ও ভাবি তাকে প্রায়ই বকাঝকা করতো। এমনকি রাতে টিভি দেখতে চাইলে বিদ্যুতের খরচ না দেয়ায় তারা অসন্তোষ প্রকাশ করতো।

এসব কারণে বিক্ষুব্ধ হয়ে রায়হানুল তার ভাই, ভাবি ও তাদের দুই শিশু সন্তানকে গলা কেটে হত্যা করে। হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো চাপাতি সে পুকুরে ফেলে দেয়। পরে সে সিআইডি পুলিশসহ অন্যদের উপস্থিতিতে চাপাতি পানি থেকে তুলে দেয়। রায়হানুল বর্তমানে সাতক্ষীরা কারাগারে আটক রয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন