এক রাতেই ৮ সহস্রাধিক শিম গাছ কেটে সাবাড়
jugantor
এক রাতেই ৮ সহস্রাধিক শিম গাছ কেটে সাবাড়

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৫ নভেম্বর ২০২০, ২১:১৩:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় শত্রুতা করে রাতের আঁধারে খোরশেদ আলম নামে এক কৃষকের সাড়ে চার বিঘার জমির আট সহস্রাধিক শিম গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। এতে কৃষকের প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।

এ ঘটনায় কৃষক বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের নামে ভালুকা মডেল থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার তালাবহ গ্রামে মঙ্গলবার রাতে।

জানা যায়, তালাবহ গ্রামের বাসিন্দা মৃত আবদুস সাত্তারের ছেলে খোরশেদ আলম সিডস্টোর এলাকার বাসিন্দা হাজী আসাদের কাছ থেকে সাড়ে চার বিঘা জমি বাৎসরিক ভাড়া নিয়ে আট সহস্রাধিক শিম গাছ লাগান। শিম ক্ষেতের সব গাছেই জোয়ার এসেছিল; আগামী ১৫/২০ দিনের মধ্যেই শিম বাজারজাত শুরু হতো। মঙ্গলবার রাতের কোনো এক সময় কে বা কারা শত্রুতা করে এক হাজার থলের আট হাজারের অধিক শিমগাছ কেটে ফেলে দেয়।

বুধবার সকালে চাঁন মিয়া নামে প্রতিবেশী এক কৃষক এসে খোরশেদকে খবর দেন তার শিম ক্ষেতে সব গাছ কেটে ফেলে দিয়েছে। দ্রুত শিমক্ষেতে গিয়ে তিনি মূর্ছা যান।

প্রসঙ্গ, গত বছর রাতের আঁধারে একই এলাকার শামছুল হকের কয়েক একরের চিচিংগা গাছ এভাবেই কেটে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা।

খোরশেদ আলম জানান, আমার শিম ক্ষেতের একটি গাছও কাটার বাকি রাখে নাই। কী অপরাধে কে আমার এতবড় সর্বনাশ করল; আমি কিছুই বলতে পারব না। এ ঘটনায় কাওকে শনাক্ত না করে একটি অভিযোগ থানায় দিয়েছি।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত আমার হাতে কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।

এক রাতেই ৮ সহস্রাধিক শিম গাছ কেটে সাবাড়

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৯:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় শত্রুতা করে রাতের আঁধারে খোরশেদ আলম নামে এক কৃষকের সাড়ে চার বিঘার জমির আট সহস্রাধিক শিম গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। এতে কৃষকের প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।

এ ঘটনায় কৃষক বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের নামে ভালুকা মডেল থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার তালাবহ গ্রামে মঙ্গলবার রাতে।

জানা যায়, তালাবহ গ্রামের বাসিন্দা মৃত আবদুস সাত্তারের ছেলে খোরশেদ আলম সিডস্টোর এলাকার বাসিন্দা হাজী আসাদের কাছ থেকে সাড়ে চার বিঘা জমি বাৎসরিক ভাড়া নিয়ে আট সহস্রাধিক শিম গাছ লাগান। শিম ক্ষেতের সব গাছেই জোয়ার এসেছিল; আগামী ১৫/২০ দিনের মধ্যেই শিম বাজারজাত শুরু হতো। মঙ্গলবার রাতের কোনো এক সময় কে বা কারা শত্রুতা করে এক হাজার থলের আট হাজারের অধিক শিমগাছ কেটে ফেলে দেয়।

বুধবার সকালে চাঁন মিয়া নামে প্রতিবেশী এক কৃষক এসে খোরশেদকে খবর দেন তার শিম ক্ষেতে সব গাছ কেটে ফেলে দিয়েছে। দ্রুত শিমক্ষেতে গিয়ে তিনি মূর্ছা যান।

প্রসঙ্গ, গত বছর রাতের আঁধারে একই এলাকার শামছুল হকের কয়েক একরের চিচিংগা গাছ এভাবেই কেটে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা।

খোরশেদ আলম জানান, আমার শিম ক্ষেতের একটি গাছও কাটার বাকি রাখে নাই। কী অপরাধে কে আমার এতবড় সর্বনাশ করল; আমি কিছুই বলতে পারব না। এ ঘটনায় কাওকে শনাক্ত না করে একটি অভিযোগ থানায় দিয়েছি।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত আমার হাতে কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন