হাসপাতালে রোগী দেখতে গিয়ে প্রাণ গেল মা-ছেলের
jugantor
হাসপাতালে রোগী দেখতে গিয়ে প্রাণ গেল মা-ছেলের

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৩:২২:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

হাসপাতালে রোগী দেখতে গিয়ে প্রাণ গেল মা-ছেলের

লালমনিরহাটে বাসচাপায় ইজিবাইক যাত্রী মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও চারজন।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের কালীগঞ্জ উপজেলার চৌধুরীর মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের শৌলমারী গ্রামের বদিউজ্জামানের স্ত্রী মঞ্জিলা বেগম (৩২) ও তার তিন বছরের ছেলে সাজেদুল ইসলাম।

স্থানীয়রা জানান, কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন এক স্বজনকে দেখতে সকালে নিজেদের ইজিবাইকে রওনা দেন বদিউজ্জামান, মঞ্জিলা বেগম এবং তাদের সন্তান সাজেদুল ও আরও চার যাত্রী।

ইজিবাইকটি চৌধুরীর মোড় এলাকায় পৌঁছলে দ্রুতগতির একটি বাস চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান মা মঞ্জিলা।

পরে স্থানীয়রা বাবা-ছেলেসহ আহতদের কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক সাজেদুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে আহত চারজনের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ঘাতক বাসটিকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

হাসপাতালে রোগী দেখতে গিয়ে প্রাণ গেল মা-ছেলের

 লালমনিরহাট প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২০, ০১:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হাসপাতালে রোগী দেখতে গিয়ে প্রাণ গেল মা-ছেলের
ফাইল ছবি

লালমনিরহাটে বাসচাপায় ইজিবাইক যাত্রী মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও চারজন।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের কালীগঞ্জ উপজেলার চৌধুরীর মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের শৌলমারী গ্রামের বদিউজ্জামানের স্ত্রী মঞ্জিলা বেগম (৩২) ও তার তিন বছরের ছেলে সাজেদুল ইসলাম।

স্থানীয়রা জানান, কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন এক স্বজনকে দেখতে সকালে নিজেদের ইজিবাইকে রওনা দেন বদিউজ্জামান, মঞ্জিলা বেগম এবং তাদের সন্তান সাজেদুল ও আরও চার যাত্রী।

ইজিবাইকটি চৌধুরীর মোড় এলাকায় পৌঁছলে দ্রুতগতির একটি বাস চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান মা মঞ্জিলা।

পরে স্থানীয়রা বাবা-ছেলেসহ আহতদের কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক সাজেদুলকে মৃত ঘোষণা করেন।  

এদিকে আহত চারজনের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ঘাতক বাসটিকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন