রাজবাড়ীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে প্রাণ গেল ইজিবাইক চালকের
jugantor
রাজবাড়ীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে প্রাণ গেল ইজিবাইক চালকের

  রাজবাড়ী প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২০, ২০:১০:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ী সদর উপজেলায় দুই পক্ষের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে প্রাণ গেল সাইদ গাজী (৪০) নামে এক ইজিবাইক চালকের। বুধবার উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের খানখানাপুর হরিজন পল্লী এলাকায় সংঘর্ষে আহত হন সাইদ গাজী।

বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

নিহত সাইদ সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের নবগ্রাম গ্রামের মহবত গাজীর ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক দিন আগে পাঁচুরিয়া থেকে সপ্তম শ্রেণির এক মেয়েকে বিয়ে করেন হরিজন পল্লীর আশিক নামে এক যুবক। বুধবার রাতে তারা খানখানাপুর হরিজন পল্লীতে প্রবেশ করলে বিষয়টি মেয়েপক্ষের লোক জানতে পারে। তখন পাঁচুরিয়া থেকে মেয়েপক্ষের কিছু লোকজন এসে মেয়েকে তুলে নিতে চায়।

এতে হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা বাধা দিলে দুইপক্ষের সংঘর্ষ হয়। এ সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে সাইদ গাজী গুরুতর আহত হন। স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি মারা যান।

খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মো. শফিউল আজম যুগান্তরকে বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় রাতে অভিযান চালিয়ে চারজন যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

রাজবাড়ীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে প্রাণ গেল ইজিবাইক চালকের

 রাজবাড়ী প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ী সদর উপজেলায় দুই পক্ষের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে প্রাণ গেল সাইদ গাজী (৪০) নামে এক ইজিবাইক চালকের। বুধবার উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের খানখানাপুর হরিজন পল্লী এলাকায় সংঘর্ষে আহত হন সাইদ গাজী।

বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

নিহত সাইদ সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের নবগ্রাম গ্রামের মহবত গাজীর ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক দিন আগে পাঁচুরিয়া থেকে সপ্তম শ্রেণির এক মেয়েকে বিয়ে করেন হরিজন পল্লীর আশিক নামে এক যুবক। বুধবার রাতে তারা খানখানাপুর হরিজন পল্লীতে প্রবেশ করলে বিষয়টি মেয়েপক্ষের লোক জানতে পারে। তখন পাঁচুরিয়া থেকে মেয়েপক্ষের কিছু লোকজন এসে মেয়েকে তুলে নিতে চায়।

এতে হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা বাধা দিলে দুইপক্ষের সংঘর্ষ হয়। এ সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে সাইদ গাজী গুরুতর আহত হন। স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি মারা যান।

খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মো. শফিউল আজম যুগান্তরকে বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় রাতে অভিযান চালিয়ে চারজন যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন