শাহজাদপুরে ফেয়ার প্রাইসের ১৫২৬ কেজি চালসহ ৪ অটোচালক আটক
jugantor
শাহজাদপুরে ফেয়ার প্রাইসের ১৫২৬ কেজি চালসহ ৪ অটোচালক আটক

  শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২০, ২০:১৮:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায় ১০ টাকা কেজি দরের চাল পাচারের সময় প্লাস্টিকের ২৮ বস্তা (১৫২৬ কেজি) চালসহ ব্যাটারিচালিত চার অটোরিকশা চালককে আটক করেছেন এলাকাবাসী। খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ ও শাহজাদপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদ হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চালগুলো জব্দ করেন। এছাড়া চার অটোচালককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

কৈজুরি ইউনিয়নের জগতলা বাজারসংলগ্ন বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের ওপর থেকে বুধবার সন্ধ্যায় চালগুলো জব্দ ও চারজনকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- উপজেলার গালা ইউনিয়নের ভেড়াকোলা গ্রামের তোকান মোল্লার ছেলে আবু সাঈদ (৪৯), জাকির মোল্লার ছেলে শওকত মোল্লা (১৮), মোস্তফা প্রামাণিকের ছেলে মতিউর রহমান (২০) ও আবদুল লতিফ প্রামাণিকের ছেলে মুছা প্রামাণিক (২২)।

আটককৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদের পেছনের গরুরহাট এলাকার কৈজুরি ইউনিয়নের গ্রামপুলিশ রমজান আলীর ছেলে ধান-চাল ব্যবসায়ী আবদুল মতিনের গুদাম থেকে আরও তিন বস্তা চাল ও ৩৬টি খালি বস্তা জব্দ করেন। মোট চালের পরিমাণ ১ হাজার ৫২৬ কেজি।

এ বিষয়ে আটক আটোচালকরা জানান, অটোরিকশা প্রতি ২৫০ টাকা ভাড়ায় তারা এ চাল কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদের পেছনের গরুরহাট এলাকায় অবস্থিত কৈজুরি ইউনিয়নের গ্রামপুলিশ রমজান আলীর ছেলে ধান-চাল ব্যবসায়ী আবদুল মতিনের গুদাম থেকে উপজেলার গালা ইউনিয়নের ভেড়াকোলা গ্রামের ফেয়ার প্রাইসের চালের ডিলার মৃত হামিদ আলীর ছেলে আমিন উদ্দিনের বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছিলাম। ঘটনাস্থলে পৌঁছামাত্র এলাকাবাসী বিষয়টি টের পেয়ে ওই চালসহ আমাদের আটক করে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রক মনিরুল হক বলেন, থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় শাহজাদপুর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনিরুল হক বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ খান বলেন, জব্দ চাল ও আটক চার অটোচালক থানা হেফাজতে রয়েছে। এ বিষয়ে মামলা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও জগতলা গ্রামের বাসিন্দা নূর হোসেন সৈকত বলেন, এই চাল চুরির সঙ্গে শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কৈজুরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম সরাসরি জড়িত। চাল চুরির অপরাধে তার বিরুদ্ধে এলাকাবাসী একাধিকবার বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও মিটিং করেছেন। তারপরও প্রশাসন তার বিরুদ্ধে কোনো কার্যকর ব্যবস্থা না নেয়ায় একের পর এক এই চুরির ঘটনা ঘটছে।

তিনি আরও বলেন, তার বিরুদ্ধে অবিলম্বে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া না হলে এ চাল চুরির ঘটনা চলতেই থাকবে। তাই তার বিরুদ্ধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

শাহজাদপুরে ফেয়ার প্রাইসের ১৫২৬ কেজি চালসহ ৪ অটোচালক আটক

 শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায় ১০ টাকা কেজি দরের চাল পাচারের সময় প্লাস্টিকের ২৮ বস্তা (১৫২৬ কেজি) চালসহ ব্যাটারিচালিত চার অটোরিকশা চালককে আটক করেছেন এলাকাবাসী। খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ ও শাহজাদপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদ হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চালগুলো জব্দ করেন। এছাড়া চার অটোচালককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

কৈজুরি ইউনিয়নের জগতলা বাজারসংলগ্ন বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের ওপর থেকে বুধবার সন্ধ্যায় চালগুলো জব্দ ও চারজনকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- উপজেলার গালা ইউনিয়নের ভেড়াকোলা গ্রামের তোকান মোল্লার ছেলে আবু সাঈদ (৪৯), জাকির মোল্লার ছেলে শওকত মোল্লা (১৮), মোস্তফা প্রামাণিকের ছেলে মতিউর রহমান (২০) ও আবদুল লতিফ প্রামাণিকের ছেলে মুছা প্রামাণিক (২২)।

আটককৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদের পেছনের গরুরহাট এলাকার কৈজুরি ইউনিয়নের গ্রামপুলিশ রমজান আলীর ছেলে ধান-চাল ব্যবসায়ী আবদুল মতিনের গুদাম থেকে আরও তিন বস্তা চাল ও ৩৬টি খালি বস্তা জব্দ করেন। মোট চালের পরিমাণ ১ হাজার ৫২৬ কেজি।

এ বিষয়ে আটক আটোচালকরা জানান, অটোরিকশা প্রতি ২৫০ টাকা ভাড়ায় তারা এ চাল কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদের পেছনের গরুরহাট এলাকায় অবস্থিত কৈজুরি ইউনিয়নের গ্রামপুলিশ রমজান আলীর ছেলে ধান-চাল ব্যবসায়ী আবদুল মতিনের গুদাম থেকে উপজেলার গালা ইউনিয়নের ভেড়াকোলা গ্রামের ফেয়ার প্রাইসের চালের ডিলার মৃত হামিদ আলীর ছেলে আমিন উদ্দিনের বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছিলাম। ঘটনাস্থলে পৌঁছামাত্র এলাকাবাসী বিষয়টি টের পেয়ে ওই চালসহ আমাদের আটক করে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রক মনিরুল হক বলেন, থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় শাহজাদপুর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনিরুল হক বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ খান বলেন, জব্দ চাল ও আটক চার অটোচালক থানা হেফাজতে রয়েছে। এ বিষয়ে মামলা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও জগতলা গ্রামের বাসিন্দা নূর হোসেন সৈকত বলেন, এই চাল চুরির সঙ্গে শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কৈজুরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম সরাসরি জড়িত। চাল চুরির অপরাধে তার বিরুদ্ধে এলাকাবাসী একাধিকবার বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও মিটিং করেছেন। তারপরও প্রশাসন তার বিরুদ্ধে কোনো কার্যকর ব্যবস্থা না নেয়ায় একের পর এক এই চুরির ঘটনা ঘটছে।

তিনি আরও বলেন, তার বিরুদ্ধে অবিলম্বে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া না হলে এ চাল চুরির ঘটনা চলতেই থাকবে। তাই তার বিরুদ্ধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন