নারায়ণগঞ্জে আয়কর মেলায় ৩৪ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়
jugantor
নারায়ণগঞ্জে আয়কর মেলায় ৩৪ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২০, ২১:৫৫:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

'সবাই মিলে দিব কর দেশ হবে স্বনির্ভর' এই স্লোগান নিয়ে নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চল আয়োজিত চলতি বছরের মাসব্যাপী আয়কর মেলা সফলভাবে চলছে। করোনা সংক্রমণ এড়াতে কর্তৃপক্ষ সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে রিটার্ন দাখিলের ব্যবস্থা করায় আয়কর দাতার সংখ্যা এ বছর অনেক বেড়েছে।

পাশাপাশি সরকার সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে দেয়ায় আয়কর প্রদানসহ রিটার্ন দাখিলে উৎসাহী হয়ে উঠছেন সর্বস্তরের কর্মজীবী মানুষ। সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার সস্তাপুর এলাকায় আয়কর বিভাগের নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের প্রধান কার্যালয় প্রাঙ্গণে গত ১ নভেম্বর থেকে করদাতাদের জন্য মাসব্যাপী আয়কর মেলার মাধ্যমে রিটার্ন দাখিলের ব্যবস্থা করা হয়।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত উন্মুক্ত পরিবেশে ছয়টি বুথের মাধ্যমে কর আদায় ও রিটার্ন গ্রহণ করছেন কর কর্মকর্তারা। পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়ে সার্কেল অফিসগুলোতেও চলছে এ আয়োজন।

প্রধান কার্যালয়ে সকাল থেকেই রিটার্ন দাখিল করতে আসেন বিভিন্ন স্তরের শিক্ষক, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ব্যবসায়ীরাসহ নানা শ্রেণি-পেশার সব বয়সের মানুষ। সরকার এ বছর বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দেয়ায় পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও আগ্রহের সাথে তাদের আয়কর প্রদান ও রিটার্ন দাখিল করতে উৎসাহী হয়ে আসছেন।

এছাড়া কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য সচেতনার ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নেয়াসহ সেবার মান বৃদ্ধি করায় করদাতারা স্বল্প সময়ে কর প্রদান করে তাদের স্বীকারপত্রও গ্রহণ করতে পারছেন।

নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের কমিশনার মো. নাজমুল করিম জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর করোনা দুর্যোগের মধ্যেও আয়কর রিটার্ন দাখিল বেড়েছে। ইতোমধ্যে প্রায় পঁচিশ হাজার করদাতা রিটার্ন দাখিল করেছেন; যার মাধ্যমে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৩৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। কর আদায়ে এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন কর কমিশনার।

নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চল আয়োজিত মাসব্যাপী এ আয়কর মেলায় আগামী ৩০ নভেম্বর সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সর্বস্তরের করদাতাদের রিটার্ন দাখিলের সুযোগ রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জে আয়কর মেলায় ৩৪ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

'সবাই মিলে দিব কর দেশ হবে স্বনির্ভর' এই স্লোগান নিয়ে নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চল আয়োজিত চলতি বছরের মাসব্যাপী আয়কর মেলা সফলভাবে চলছে। করোনা সংক্রমণ এড়াতে কর্তৃপক্ষ সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে রিটার্ন দাখিলের ব্যবস্থা করায় আয়কর দাতার সংখ্যা এ বছর অনেক বেড়েছে। 

পাশাপাশি সরকার সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে দেয়ায় আয়কর প্রদানসহ রিটার্ন দাখিলে উৎসাহী হয়ে উঠছেন সর্বস্তরের কর্মজীবী মানুষ। সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার সস্তাপুর এলাকায় আয়কর বিভাগের নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের প্রধান কার্যালয় প্রাঙ্গণে গত ১ নভেম্বর থেকে করদাতাদের জন্য মাসব্যাপী আয়কর মেলার মাধ্যমে রিটার্ন দাখিলের ব্যবস্থা করা হয়।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত উন্মুক্ত পরিবেশে ছয়টি বুথের মাধ্যমে কর আদায় ও রিটার্ন গ্রহণ করছেন কর কর্মকর্তারা। পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়ে সার্কেল অফিসগুলোতেও চলছে এ আয়োজন। 

প্রধান কার্যালয়ে সকাল থেকেই রিটার্ন দাখিল করতে আসেন বিভিন্ন স্তরের শিক্ষক, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ব্যবসায়ীরাসহ নানা শ্রেণি-পেশার সব বয়সের মানুষ। সরকার এ বছর বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দেয়ায় পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও আগ্রহের সাথে তাদের আয়কর প্রদান ও রিটার্ন দাখিল করতে উৎসাহী হয়ে আসছেন।

এছাড়া কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য সচেতনার ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নেয়াসহ সেবার মান বৃদ্ধি করায় করদাতারা স্বল্প সময়ে কর প্রদান করে তাদের স্বীকারপত্রও গ্রহণ করতে পারছেন।

নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের কমিশনার মো. নাজমুল করিম জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর করোনা দুর্যোগের মধ্যেও আয়কর রিটার্ন দাখিল বেড়েছে। ইতোমধ্যে প্রায় পঁচিশ হাজার করদাতা রিটার্ন দাখিল করেছেন; যার মাধ্যমে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৩৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। কর আদায়ে এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন কর কমিশনার।

নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চল আয়োজিত মাসব্যাপী এ আয়কর মেলায় আগামী ৩০ নভেম্বর সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সর্বস্তরের করদাতাদের রিটার্ন দাখিলের সুযোগ রয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন