কুমিল্লায় ভারতীয় শাড়িসহ গ্রেফতার ৭
jugantor
কুমিল্লায় ভারতীয় শাড়িসহ গ্রেফতার ৭

  কুমিল্লা ব্যুরো   

২৭ নভেম্বর ২০২০, ২২:৪১:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় শুল্ক-কর ফাঁকি দিয়ে ভারতীয় অবৈধ শাড়ি পাচারকালে সাত চোরাকারবারীকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার দুপুরে জেলার বুড়িচং উপজেলার ছয়গ্রাম বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব।

এ সময় তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের ১ হাজার ২০৫ পিস ভারতীয় শাড়ি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- জেলার বুড়িচং থানার জগতপুর গ্রামের মো. আজাদ মিয়ার ছেলে মো. সাকিল (২২), ব্রাহ্মণপাড়া থানার রহমতপুর (টাকই) গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে মো. মিরাজ (১৯), বুড়িচং থানার লরিবাগ গ্রামের মো. ওয়াসেদ মিয়ার ছেলে পারভেজ আলম (২৬), একই গ্রামের মো. কারী মিয়ার ছেলে মোবারক (২০), সহিদ মিয়ার ছেলে মো. খলিল মিয়া (২৮), সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার থানার দক্ষিণ কলাহুরা গ্রামের শাহজাহানের ছেলে মো. বিল্লাল হোসেন (১৯) এবং নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা থানার ছালিপুরা গ্রামের মো. রোজআলী মিয়ার ছেলে মো. সেলিম মিয়া (১৯)।

কুমিল্লার র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা ওই চোরাকারবারীদের গ্রেফতার করেন। ভারতীয় শাড়ি চোরাচালানের কাজে ব্যবহৃত দুটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন ধরে শুল্ক-কর ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে ভারতীয় শাড়ি বাংলাদেশে এনে কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল।

কুমিল্লায় ভারতীয় শাড়িসহ গ্রেফতার ৭

 কুমিল্লা ব্যুরো  
২৭ নভেম্বর ২০২০, ১০:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় শুল্ক-কর ফাঁকি দিয়ে ভারতীয় অবৈধ শাড়ি পাচারকালে সাত চোরাকারবারীকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার দুপুরে জেলার বুড়িচং উপজেলার ছয়গ্রাম বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব। 

এ সময় তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের ১ হাজার ২০৫ পিস ভারতীয় শাড়ি উদ্ধার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- জেলার বুড়িচং থানার জগতপুর গ্রামের মো. আজাদ মিয়ার ছেলে মো. সাকিল (২২), ব্রাহ্মণপাড়া থানার রহমতপুর (টাকই) গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে মো. মিরাজ (১৯), বুড়িচং থানার লরিবাগ গ্রামের মো. ওয়াসেদ মিয়ার ছেলে পারভেজ আলম (২৬), একই গ্রামের মো. কারী মিয়ার ছেলে মোবারক (২০), সহিদ মিয়ার ছেলে মো. খলিল মিয়া (২৮), সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার থানার দক্ষিণ কলাহুরা গ্রামের শাহজাহানের ছেলে মো. বিল্লাল হোসেন (১৯) এবং নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা থানার ছালিপুরা গ্রামের মো. রোজআলী মিয়ার ছেলে মো. সেলিম মিয়া (১৯)। 

কুমিল্লার র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা ওই চোরাকারবারীদের গ্রেফতার করেন। ভারতীয় শাড়ি চোরাচালানের কাজে ব্যবহৃত দুটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা জব্দ করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন ধরে শুল্ক-কর ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে ভারতীয় শাড়ি বাংলাদেশে এনে কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন