যুগান্তরের সাংবাদিককে হুমকি দিলেন প্রবাসীর স্ত্রী
jugantor
যুগান্তরের সাংবাদিককে হুমকি দিলেন প্রবাসীর স্ত্রী

  রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

২৯ নভেম্বর ২০২০, ২২:৪৫:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে যুগান্তর প্রতিনিধি তাবারক হোসেন আজাদকে মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়েছেন লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র আবু তাহেরের আত্মীয় পরিচয়দানকারী এক প্রবাসীর স্ত্রী। বর্তমানে ওই সাংবাদিক নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ ঘটনায় রোববার থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ নভেম্বর ‘রায়পুরে বেপরোয়া কিশোর গ্যাং’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। কিন্তু রিপোর্টে স্থান ছাড়া কোনো ব্যক্তির নাম উল্লেখ করা হয়নি। এ রিপোর্টের জেরে পুলিশ গত তিন দিন ধরে কিশোর গ্যাং ধরতে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়েছে।

সাংবাদিক আজাদ জানান, শনিবার রাত ৯টা ১৬ মিনিটে উপজেলার ১০নং রায়পুর ইউনিয়নের চালতাতুলি এলাকার চৌধুরীবাড়ির প্রবাসীর স্ত্রী তার ব্যক্তিগত মোবাইল থেকে কল দেন। নিজেকে আসমা পরিচয় দিয়ে বলেন- আপনি সাংবাদিক আজাদ? কয়েক দিন আগে কিশোর গ্যাং নিয়ে রিপোর্ট করেছেন? মিজানের নাম কেন লিখেছেন? আমাকে চেনেন? আমি কে? আমি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র আবু তাহেরের আত্মীয়। যদি দেখেছি রিপোর্টে মিজানের (ওই নারীর দেবর) নাম আছে- তাহলে আপনার খবর আছে। আপনার ক্ষতি হবে; বিরাট সমস্যা হবে- এ কথা বলেই ফোন কেটে দেন।

তাবারক হোসেন আজাদ এ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে জানান, ওই প্রবাসীর স্ত্রীর হুমকিতে এখন তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ ঘটনা রাতেই তিনি রায়পুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সম্পাদকসহ কয়েকজন সাংবাদিক ও ওসিকে জানান। তারা থানায় সাধারণ ডায়েরি করার জন্য বলেন। রোববার দুপুরে এ বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তবে তার দেবর মিজান বলেন, তার ভাবি ভুল করেছেন, বুঝতে পারেননি।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আইনানুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তরের সাংবাদিককে হুমকি দিলেন প্রবাসীর স্ত্রী

 রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
২৯ নভেম্বর ২০২০, ১০:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে যুগান্তর প্রতিনিধি তাবারক হোসেন আজাদকে মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়েছেন লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র আবু তাহেরের আত্মীয় পরিচয়দানকারী এক প্রবাসীর স্ত্রী। বর্তমানে ওই সাংবাদিক নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ ঘটনায় রোববার থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ নভেম্বর ‘রায়পুরে বেপরোয়া কিশোর গ্যাং’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। কিন্তু রিপোর্টে স্থান ছাড়া কোনো ব্যক্তির নাম উল্লেখ করা হয়নি। এ রিপোর্টের জেরে পুলিশ গত তিন দিন ধরে কিশোর গ্যাং ধরতে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়েছে।

সাংবাদিক আজাদ জানান, শনিবার রাত ৯টা ১৬ মিনিটে উপজেলার ১০নং রায়পুর ইউনিয়নের চালতাতুলি এলাকার চৌধুরীবাড়ির প্রবাসীর স্ত্রী তার ব্যক্তিগত মোবাইল থেকে কল দেন। নিজেকে আসমা পরিচয় দিয়ে বলেন- আপনি সাংবাদিক আজাদ? কয়েক দিন আগে কিশোর গ্যাং নিয়ে রিপোর্ট করেছেন? মিজানের নাম কেন লিখেছেন? আমাকে চেনেন? আমি কে? আমি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র আবু তাহেরের আত্মীয়। যদি দেখেছি রিপোর্টে মিজানের (ওই নারীর দেবর) নাম আছে- তাহলে আপনার খবর আছে। আপনার ক্ষতি হবে; বিরাট সমস্যা হবে- এ কথা বলেই ফোন কেটে দেন।

তাবারক হোসেন আজাদ এ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে জানান, ওই প্রবাসীর স্ত্রীর হুমকিতে এখন তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ ঘটনা রাতেই তিনি রায়পুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সম্পাদকসহ কয়েকজন সাংবাদিক ও ওসিকে জানান। তারা থানায় সাধারণ ডায়েরি করার জন্য বলেন। রোববার দুপুরে এ বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তবে তার দেবর মিজান বলেন, তার ভাবি ভুল করেছেন, বুঝতে পারেননি।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আইনানুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন