করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত সংবাদপত্র: পিআইবি মহাপরিচালক
jugantor
করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত সংবাদপত্র: পিআইবি মহাপরিচালক

  যশোর ব্যুরো  

৩০ নভেম্বর ২০২০, ২২:০৭:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ বলেছেন, করোনার কারণে সব সেক্টরই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে; কিন্তু সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সংবাদপত্র। মফস্বলে আঞ্চলিক সংবাদপত্রের অবস্থা আরও খারাপ। তাই এসব টিকিয়ে রাখতে পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন। না হলে মফস্বল সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্র হুমকির মুখে পড়বে।

সোমবার বিকালে পিআইবির উদ্যোগে যশোর সার্কিট হাউসে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ‘সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ’ কর্মশালা শেষে সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপ্রধানের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জাফর ওয়াজেদ বলেন, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে পুলিশ নার্সের পাশাপাশি সাংবাদিকরাও তাদের দায়িত্ব পালন করছেন। সবাই বেতন ঠিকমতো পেলেও সাংবাদিকদের অবস্থা করুণ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আঞ্চলিক সংবাদপত্র টিম। সংবাদপত্র যাদের জন্য সেই পাঠকই নেই। করোনা আতঙ্কে মানুষ পত্রিকা পড়াও বন্ধ করে দিয়েছেন।

পিআইবির প্রশিক্ষক পারভীন সুলতানা রাব্বীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মনোতোষ বসু, প্রেস ক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাজেদ রহমান বকুল, সাধারণ সম্পাদক মিলন রহমান। কর্মশালায় যশোরে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ৩৫ জন সাংবাদিক অংশ নেন।

প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে তাদের হাতে সনদ তুলে দেন প্রধান অতিথি প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ।

করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত সংবাদপত্র: পিআইবি মহাপরিচালক

 যশোর ব্যুরো 
৩০ নভেম্বর ২০২০, ১০:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ বলেছেন, করোনার কারণে সব সেক্টরই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে; কিন্তু সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সংবাদপত্র। মফস্বলে আঞ্চলিক সংবাদপত্রের অবস্থা আরও খারাপ। তাই এসব টিকিয়ে রাখতে পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন। না হলে মফস্বল সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্র হুমকির মুখে পড়বে।

সোমবার বিকালে পিআইবির উদ্যোগে যশোর সার্কিট হাউসে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ‘সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ’ কর্মশালা শেষে সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপ্রধানের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জাফর ওয়াজেদ বলেন, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে পুলিশ নার্সের পাশাপাশি সাংবাদিকরাও তাদের দায়িত্ব পালন করছেন। সবাই বেতন ঠিকমতো পেলেও সাংবাদিকদের অবস্থা করুণ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আঞ্চলিক সংবাদপত্র টিম। সংবাদপত্র যাদের জন্য সেই পাঠকই নেই। করোনা আতঙ্কে মানুষ পত্রিকা পড়াও বন্ধ করে দিয়েছেন।

পিআইবির প্রশিক্ষক পারভীন সুলতানা রাব্বীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মনোতোষ বসু, প্রেস ক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাজেদ রহমান বকুল, সাধারণ সম্পাদক মিলন রহমান। কর্মশালায় যশোরে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ৩৫ জন সাংবাদিক অংশ নেন।

প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে তাদের হাতে সনদ তুলে দেন প্রধান অতিথি প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন