ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমার বিরুদ্ধে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন
jugantor
ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমার বিরুদ্ধে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

  খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি  

০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭:৫৮:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের আলোচিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমার বিরুদ্ধে স্ত্রীকে মারধর, যৌতুক দাবীসহ হত্যার চেষ্টার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্ত্রী চন্দ্রিকা চাকমা।

মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি। এ সময় তার এক মাত্র মেয়ে তোপজ্যোতি চাকমা তার সঙ্গে ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে চন্দ্রিকা চাকমা অভিযোগ করেন, যে নিজের স্ত্রী সন্তানের সঙ্গে ন্যূনতম ন্যায় বিচার করতে পারেন না, তিনি কিভাবে দেশের মানুষের সঙ্গে ন্যায় বিচার করবেন।

স্বামী রিন্টু বিকাশ চাকমার নির্মম নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে সংবাদ সম্মেলনে স্ত্রী চন্দ্রিকা চাকমা বলেন, ২০১৩ সালের ১৩ মার্চ খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার আমতলীপাড়া গ্রামের অক্ষয়মণি চাকমার ছেলে রিন্টু বিকাশ চাকমা প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে আমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে নানা অজুহাতে যৌতুক দাবি করে রিন্টু চাকমা।

তিনি বলেন, মৃত বাবার সম্পত্তি বিক্রি করে তার হাতে তুলে দেয়ার জন্য শরীরে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে মারারও চেষ্টা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে চন্দ্রিকা চাকমা সুষ্ঠু বিচার ও নিজের ও সন্তানের শতভাগ নিরাপত্তা ও স্ত্রীর পূর্ণ মর্যাদার সঙ্গে রিন্টু বিকাশের সংসার করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেন।

চন্দ্রিকা চাকমা গত ১৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে খাগড়াছড়ি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মঙ্গলবার মামলার শুনানির কথা থাকলেও অত্যন্ত গোপনে ধার্য তারিখের আগে অত্যন্ত গোপনে প্রভাব খাটিয়ে জামিন নিয়ে তার জীবননাশের হুমকি দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, রিন্টু বিকাশ চাকমা ২০১৭ সালে ৩৫ তম বিসিএসে (প্রশাসন) উত্তীর্ণ হয়ে কুড়িগ্রামে কর্মরত থাকাকালে আলোচিত সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় বর্তমানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত রয়েছেন।

ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমার বিরুদ্ধে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

 খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি 
০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের আলোচিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমার বিরুদ্ধে স্ত্রীকে মারধর, যৌতুক দাবীসহ হত্যার চেষ্টার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্ত্রী চন্দ্রিকা চাকমা।

মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি। এ সময় তার এক মাত্র মেয়ে তোপজ্যোতি চাকমা তার সঙ্গে ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে চন্দ্রিকা চাকমা অভিযোগ করেন, যে নিজের স্ত্রী সন্তানের সঙ্গে ন্যূনতম ন্যায় বিচার করতে পারেন না, তিনি কিভাবে দেশের মানুষের সঙ্গে ন্যায় বিচার করবেন।

স্বামী রিন্টু বিকাশ চাকমার নির্মম নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে সংবাদ সম্মেলনে স্ত্রী চন্দ্রিকা চাকমা বলেন, ২০১৩ সালের ১৩ মার্চ খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার আমতলীপাড়া গ্রামের অক্ষয়মণি চাকমার ছেলে রিন্টু বিকাশ চাকমা প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে আমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে নানা অজুহাতে যৌতুক দাবি করে রিন্টু চাকমা।

তিনি বলেন, মৃত বাবার সম্পত্তি বিক্রি করে তার হাতে তুলে দেয়ার জন্য শরীরে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে মারারও চেষ্টা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে চন্দ্রিকা চাকমা সুষ্ঠু বিচার ও নিজের ও সন্তানের শতভাগ নিরাপত্তা ও স্ত্রীর পূর্ণ মর্যাদার সঙ্গে রিন্টু বিকাশের সংসার করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেন।

চন্দ্রিকা চাকমা গত ১৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে খাগড়াছড়ি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মঙ্গলবার মামলার শুনানির কথা থাকলেও অত্যন্ত গোপনে ধার্য তারিখের আগে অত্যন্ত গোপনে প্রভাব খাটিয়ে জামিন নিয়ে তার জীবননাশের হুমকি দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, রিন্টু বিকাশ চাকমা ২০১৭ সালে ৩৫ তম বিসিএসে (প্রশাসন) উত্তীর্ণ হয়ে কুড়িগ্রামে কর্মরত থাকাকালে আলোচিত সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় বর্তমানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত রয়েছেন।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন