রাতের আঁধারে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প দখল
jugantor
রাতের আঁধারে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প দখল

  নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯:২০:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্প দখল হয়েছে রাতের আঁধারে। নাসিরনগর উপজেলা প্রশাসন বিষয়টি জানতে পেরে অভিযান চালিয়ে দখলকৃত জায়গা উদ্ধার করেছে।

এ ঘটনায় বুড়িশ্বর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে নাসিরনগর থানায় একটি মামলা করেছেন।

জানা গেছে, নাসিরনগর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মৌজার ১৯নং খাস খতিয়ানভুক্ত ২০ শতক ভূমির ওপর আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়। সেই মোতাবেক জায়গার এক অংশে এগারোটি ঘর নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। অন্য অংশে ৯টি ঘর নির্মাণের কথা ছিল। খালি থাকা ওই জায়গা রাতের আঁধারে দখল করে ‘বঙ্গবন্ধু নুরানি মাদ্রাসার’ নামে সাইনবোর্ড সাঁটিয়ে দেয়া হয়। বিষয়টি জানতে পেরে ১ ডিসেম্বর নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাৎক্ষণিক পুলিশের সহযোগিতায় দখলকৃত জায়গা উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় আটককৃত আসামিরা হলেন- বুড়িশ্বর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার রমজান আলীর ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৮), নজরুল ইসলামের ছেলে আনিছ মিয়া (২৩), আবু তাহেরের ছেলে আজিজুল ইসলাম।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমা আশরাফি জানান, বিষয়টি জানতে পেরে আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। এ ঘটনায় নাসিরনগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

নাসিরনগর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কবির হোসেন জানান, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে চারজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদেরও আটক করা হবে।

রাতের আঁধারে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প দখল

 নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্প দখল হয়েছে রাতের আঁধারে। নাসিরনগর উপজেলা প্রশাসন বিষয়টি জানতে পেরে অভিযান চালিয়ে দখলকৃত জায়গা উদ্ধার করেছে।

এ ঘটনায় বুড়িশ্বর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে নাসিরনগর থানায় একটি মামলা করেছেন।

জানা গেছে, নাসিরনগর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মৌজার ১৯নং খাস খতিয়ানভুক্ত ২০ শতক ভূমির ওপর আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়। সেই মোতাবেক জায়গার এক অংশে এগারোটি ঘর নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। অন্য অংশে ৯টি ঘর নির্মাণের কথা ছিল। খালি থাকা ওই জায়গা রাতের আঁধারে দখল করে ‘বঙ্গবন্ধু নুরানি মাদ্রাসার’ নামে সাইনবোর্ড সাঁটিয়ে দেয়া হয়। বিষয়টি জানতে পেরে ১ ডিসেম্বর নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাৎক্ষণিক পুলিশের সহযোগিতায় দখলকৃত জায়গা উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় আটককৃত আসামিরা হলেন- বুড়িশ্বর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার রমজান আলীর ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৮), নজরুল ইসলামের ছেলে আনিছ মিয়া (২৩), আবু তাহেরের ছেলে আজিজুল ইসলাম।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমা আশরাফি জানান, বিষয়টি জানতে পেরে আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। এ ঘটনায় নাসিরনগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

নাসিরনগর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কবির হোসেন জানান, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে চারজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদেরও আটক করা হবে।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন