কালকিনিতে প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
jugantor
কালকিনিতে প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

  কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:৪১:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরের কালকিনিতে ডলি আক্তার (২৫) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার ভোরে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পৌর এলাকার কাশিমপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী মো. মান্নান ওরফে মনুর স্ত্রী ডলি আক্তার এক ব্যক্তির সঙ্গে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে কথা বলতেন। বিষয়টি জানতে পেরে পরিবারের সদস্যরা তাকে ফোনে কথা বলতে নিষেধ করেন।

এতে অভিমান করে বৃহস্পতিবার রাতে ডলি নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেন।

খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠায়।

নিহতের বাবা মীরজাহান বেপারি যুগান্তরকে বলেন, আমার মেয়ে ডলি মোবাইল ফোনে কথা বললে আমরা তাকে নিষেধ করি। এতে সে অভিমান করে আত্নহত্যা করেছে। তবে সে কার সঙ্গে কথা বলতো তা জানি না।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার এসআই মো. কাঞ্চন মিয়া যুগান্তরকে বলেন, আমরা খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছি।

কালকিনিতে প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

 কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরের কালকিনিতে ডলি আক্তার (২৫) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

শুক্রবার ভোরে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পৌর এলাকার কাশিমপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী মো. মান্নান ওরফে মনুর স্ত্রী ডলি আক্তার এক ব্যক্তির সঙ্গে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে কথা বলতেন। বিষয়টি জানতে পেরে পরিবারের সদস্যরা তাকে ফোনে কথা বলতে নিষেধ করেন। 

এতে অভিমান করে বৃহস্পতিবার রাতে ডলি নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেন। 

খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠায়।

নিহতের বাবা মীরজাহান বেপারি যুগান্তরকে বলেন, আমার মেয়ে ডলি মোবাইল ফোনে কথা বললে আমরা তাকে নিষেধ করি। এতে সে অভিমান করে আত্নহত্যা করেছে। তবে সে কার সঙ্গে কথা বলতো তা জানি না। 

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার এসআই মো. কাঞ্চন মিয়া যুগান্তরকে বলেন, আমরা খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছি। 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন