নৌকার প্রশ্নে কখনও আপস করবেন না: এনামুল হক শামীম
jugantor
নৌকার প্রশ্নে কখনও আপস করবেন না: এনামুল হক শামীম

  শরীয়তপুর প্রতিনিধি  

০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:২৮:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম

আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, নৌকার প্রশ্নে কখনও আপস করবেন না। নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক, নৌকা হচ্ছে স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা হচ্ছে জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক। কীভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কোভিড-১৯কে মোকাবেলা করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা সেতুর কাজ করে যাচ্ছেন। পদ্মা সেতুর আর মাত্র ১টি স্পেন বাকি। ১৬ ডিসেম্বরের আগে বাকি স্পেনটি বসানো হলে আমরা হেঁটে ঢাকা থেকে নড়িয়া আসতে পারব। এটা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার পক্ষেই সম্ভব। আর কারও পক্ষেই সম্ভব না।

তিনি শনিবার সকালে নড়িয়া উপজেলা শহীদ মিনার চত্বরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বেগম আশ্রাফুন্নেছা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৭ হাজার হতদরিদ্রের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একেএম ইসমাইল হক, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, নড়িয়া উপজেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মাল, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হাসানুজ্জামান খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ছালাম মাস্টার, নড়িয়া পৌরসভার মেয়র শহীদুল ইসলাম বাবু রাঢ়ী, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল হক চুন্নু, নড়িয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর শেখ, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম শিকদার, আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক শাহ আলাম সরদার, নড়িয়া যুবলীগের আহবায়ক নাছির সরদার, জেলা পরিষদের সদস্য আলী আহম্মেদ কাজী, নড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আসাদুজ্জামান, কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাফেজ ছানাউল্লাহ, আওয়ামী লীগের সদস্য ও বিঝারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল রাজ্জাক হাওলাদার প্রমুখ।

নড়িয়া পৌরসভা নির্বাচনকে উদ্দেশ করে মন্ত্রী আরও বলেন, সামনে মেয়র নির্বাচন, নৌকা যিনি পাবেন তাকেই নির্বাচিত করতে হবে। ব্যক্তি চেনার দরকার নেই। নড়িয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর ভবন করে দিয়েছি এবং মাঠ ভরাট করার জন্য ২ লাখ করে টাকা দিয়েছি; সারা বাংলাদেশে কোথাও এত উন্নয়ন হয়নি।

নৌকার প্রশ্নে কখনও আপস করবেন না: এনামুল হক শামীম

 শরীয়তপুর প্রতিনিধি 
০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম
আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম

আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, নৌকার প্রশ্নে কখনও আপস করবেন না। নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক, নৌকা হচ্ছে স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা হচ্ছে জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক। কীভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কোভিড-১৯কে মোকাবেলা করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা সেতুর কাজ করে যাচ্ছেন। পদ্মা সেতুর আর মাত্র ১টি স্পেন বাকি। ১৬ ডিসেম্বরের আগে বাকি স্পেনটি বসানো হলে আমরা হেঁটে ঢাকা থেকে নড়িয়া আসতে পারব। এটা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার পক্ষেই সম্ভব। আর কারও পক্ষেই সম্ভব না।

তিনি শনিবার সকালে নড়িয়া উপজেলা শহীদ মিনার চত্বরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বেগম আশ্রাফুন্নেছা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৭ হাজার হতদরিদ্রের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একেএম ইসমাইল হক, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, নড়িয়া উপজেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মাল, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হাসানুজ্জামান খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ছালাম মাস্টার, নড়িয়া পৌরসভার মেয়র শহীদুল ইসলাম বাবু রাঢ়ী, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল হক চুন্নু, নড়িয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর শেখ, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম শিকদার, আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক শাহ আলাম সরদার, নড়িয়া যুবলীগের আহবায়ক নাছির সরদার, জেলা পরিষদের সদস্য আলী আহম্মেদ কাজী, নড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আসাদুজ্জামান, কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাফেজ ছানাউল্লাহ, আওয়ামী লীগের সদস্য ও বিঝারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল রাজ্জাক হাওলাদার প্রমুখ।

নড়িয়া পৌরসভা নির্বাচনকে উদ্দেশ করে মন্ত্রী আরও বলেন, সামনে মেয়র নির্বাচন, নৌকা যিনি পাবেন তাকেই নির্বাচিত করতে হবে। ব্যক্তি চেনার দরকার নেই। নড়িয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর ভবন করে দিয়েছি এবং মাঠ ভরাট করার জন্য ২ লাখ করে টাকা দিয়েছি; সারা বাংলাদেশে কোথাও এত উন্নয়ন হয়নি।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন