সীমান্তে পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা ৩৬ নারী ও শিশু আটক
jugantor
সীমান্তে পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা ৩৬ নারী ও শিশু আটক

  বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি  

০৯ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮:০৩:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা নারী-শিশুসহ ৩৬ জনকে বিজিবি আটক করে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে।

বিরামপুর সীমান্তে বিনা পাসপোর্টে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা নারী-শিশুসহ ৩৬ জনকে বিজিবি আটক করে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে।

মামলা সূত্রে প্রকাশ, বিরামপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী খিয়ার মামুদপুর গ্রামের সীমান্ত পিলার ২৯১/২৫ এস হতে ২৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে, সাহার আলী ও সোহেল রানার বসতবাড়ির আঙিনায় জড়ো করা ব্যক্তিদের ভাইগড় বিওপি-২০ বিজিবি আটক করে।

আটককৃতরা হলেন- নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার বাঁকা গ্রামের বিমল, শ্রীমতি আলো, ভক্তি রানী, নারায়ণ চন্দ্র, দয়াল চন্দ্র, ববিতা রানী, রতন সরকার, পুর্ণিমা রানী, মিলন চন্দ্র, আলো চন্দ্র, হৃদয় চন্দ্র, নমিতা রানী, আদুরী রানী, একই উপজেলার সিংসারা গ্রামের ধীরেন চন্দ্র, সরস্বতী, বীরেন প্রামাণিক, নওদুলি গ্রামের জয়দেব, চাম্পা রানী, মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুরের কিনার প্রামাণিক, গৌরী রানী, উৎপল চন্দ্র, কাজল রানী, টাঙ্গাইলের বাসাইলের বনি কিশোরী গ্রামের পলাশ চন্দ্র, আশা সরকার এবং তাদের সাথে থাকা ১১ জন শিশু রয়েছে।

আটককৃতদের মধ্যে পুর্ণিমা রানী যুগান্তরকে বলেন, আমরা খুবই গরির আর হিন্দু ধর্মের হওয়ায় ভারতে গিয়ে কোনো কাজ-কর্ম করে খাওয়ার উদ্দেশ্যে যেতে চেয়েছিলাম। আমার স্বামী শ্রী রতন সরকার বিরামপুরের খেয়ার মাহমুদপুরের শুকুর আলী, সোহেল রানা ও সাহার আলীকে ১০ হাজার টাকা দিয়েছে; তারা ভারতে যাওয়ার সব ব্যবস্থা করে দেবে। এ রকম সবার কাছ থেকেই টাকা নিয়েছে।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, বিজিবি নারী ও শিশুসহ ৩৬ জনকে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে। পলাতক আসামি সাহার আলী, সোহেল রানা ও শুকুর আলী সরকার নারী ও শিশু পাচারসহ অন্য কোন কোন বিষয়ে জড়িত আছে তা তদন্তসাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সীমান্তে পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা ৩৬ নারী ও শিশু আটক

 বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি 
০৯ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা নারী-শিশুসহ ৩৬ জনকে বিজিবি আটক করে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে।
পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা নারী-শিশুসহ ৩৬ জনকে বিজিবি আটক করে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে।

বিরামপুর সীমান্তে বিনা পাসপোর্টে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা নারী-শিশুসহ ৩৬ জনকে বিজিবি আটক করে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে।

মামলা সূত্রে প্রকাশ, বিরামপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী খিয়ার মামুদপুর গ্রামের সীমান্ত পিলার ২৯১/২৫ এস হতে ২৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে, সাহার আলী ও সোহেল রানার বসতবাড়ির আঙিনায় জড়ো করা ব্যক্তিদের ভাইগড় বিওপি-২০ বিজিবি আটক করে।

আটককৃতরা হলেন- নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার বাঁকা গ্রামের বিমল, শ্রীমতি আলো, ভক্তি রানী, নারায়ণ চন্দ্র, দয়াল চন্দ্র, ববিতা রানী, রতন সরকার, পুর্ণিমা রানী, মিলন চন্দ্র, আলো চন্দ্র, হৃদয় চন্দ্র, নমিতা রানী, আদুরী রানী, একই উপজেলার সিংসারা গ্রামের ধীরেন চন্দ্র, সরস্বতী, বীরেন প্রামাণিক, নওদুলি গ্রামের জয়দেব, চাম্পা রানী, মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুরের কিনার প্রামাণিক, গৌরী রানী, উৎপল চন্দ্র, কাজল রানী, টাঙ্গাইলের বাসাইলের বনি কিশোরী গ্রামের পলাশ চন্দ্র, আশা সরকার এবং তাদের সাথে থাকা ১১ জন শিশু রয়েছে।

আটককৃতদের মধ্যে পুর্ণিমা রানী যুগান্তরকে বলেন, আমরা খুবই গরির আর হিন্দু ধর্মের হওয়ায় ভারতে গিয়ে কোনো কাজ-কর্ম করে খাওয়ার উদ্দেশ্যে যেতে চেয়েছিলাম। আমার স্বামী শ্রী রতন সরকার বিরামপুরের খেয়ার মাহমুদপুরের শুকুর আলী, সোহেল রানা ও সাহার আলীকে ১০ হাজার টাকা দিয়েছে; তারা ভারতে যাওয়ার সব ব্যবস্থা করে দেবে। এ রকম সবার কাছ থেকেই টাকা নিয়েছে।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, বিজিবি নারী ও শিশুসহ ৩৬ জনকে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে। পলাতক আসামি সাহার আলী, সোহেল রানা ও শুকুর আলী সরকার নারী ও শিশু পাচারসহ অন্য কোন কোন বিষয়ে জড়িত আছে তা তদন্তসাপেক্ষে  তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন