বান্দরবান জেলা পরিষদে ক্যশৈহ্লা ফের চেয়ারম্যান, ৫ নতুন মুখ
jugantor
বান্দরবান জেলা পরিষদে ক্যশৈহ্লা ফের চেয়ারম্যান, ৫ নতুন মুখ

  বান্দরবান প্রতিনিধি  

১০ ডিসেম্বর ২০২০, ২২:১৭:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ পুনর্গঠন করা হয়েছে। টানা তৃতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছেন ক্যশৈহ্লা। তবে পুরনো ৯ জনসহ অন্তর্বর্তীকালীন পার্বত্য জেলা পরিষদে নিয়োগ পেয়েছেন ১৪ জন সদস্য। তাদের মধ্যে নতুন ৫ জনকে স্থান দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব সজল কান্তি বণিক স্বাক্ষরিত একটি পত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ নিয়ে দশমবারের মতো অন্তর্বর্তীকালীন তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ পুনর্গঠন করা হল।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদে টানা তৃতীয়বারসহ চতুর্থবারের মতো চেয়ারম্যান নিয়োগ পেয়েছেন কারাতে মাস্টার ক্যশৈহ্লা।

নতুন নিযুক্ত ৫ সদস্য হলেন- থানচি উপজেলা থেকে শৈহ্লাচিং বাশৈচিং মারমা, আলীকদম উপজেলা থেকে দুংড়ি মং মারমা, বান্দরবান পৌরসভা থেকে সত্যহা পানজি ত্রিপুরা, লামা পৌরসভা থেকে শেখ মাহাবুবুর রহমান, রোয়াংছড়ি উপজেলা থেকে সিঅং খুমী।

পুরনো ৯ সদস্য হলেন- বান্দরবান পৌরসভা থেকে মোজাম্মেল হক বাহাদুর, লক্ষ্মীপদ দাস, ক্যসাপ্রু মারমা, রোয়াংছড়ি উপজেলা থেকে কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা, সদর উপজেলা থেকে সিইয়ং ম্রো, রুমা উপজেলা থেকে জুয়েল বম, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ক্যনে ওয়ান চাক এবং মহিলা সদস্য বান্দরবান পৌরসভা থেকে তিংতিং ম্যা ও লামা পৌরসভা থেকে ফাতেমা।

বাদ পড়েছেন বান্দরবান পৌরসভা থেকে ফিলিপস ত্রিপুরা, সদর উপজেলা থেকে ম্রাচা খেয়াং, আলীকদমের থোয়াইচা হ্লা মারমা।

পরিষদ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৯ সালে সরকার নির্বাচনের মাধ্যমে ৩ পার্বত্য জেলা পরিষদ গঠন করা হয়। পরে ১৯৯৬ সালের ৫ আগস্ট পার্বত্য জেলা পরিষদগুলো ভেঙে দিয়ে প্রত্যেক পরিষদে ১ জন চেয়ারম্যান এবং ৪ জন সদস্য মনোনয়ন দিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন পরিষদ গঠন করে সরকার। এরপর আর কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে সর্বশেষ ২০১৫ সালের ২৫ মার্চ অন্তর্বর্তীকালীন পার্বত্য জেলা পরিষদগুলোর সদস্য সংখ্যা ৪ থেকে বাড়িয়ে ১৪ জনে উন্নীত করা হয়।

বান্দরবান জেলা পরিষদে ক্যশৈহ্লা ফের চেয়ারম্যান, ৫ নতুন মুখ

 বান্দরবান প্রতিনিধি 
১০ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ পুনর্গঠন করা হয়েছে। টানা তৃতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছেন ক্যশৈহ্লা। তবে পুরনো ৯ জনসহ অন্তর্বর্তীকালীন পার্বত্য জেলা পরিষদে নিয়োগ পেয়েছেন ১৪ জন সদস্য। তাদের মধ্যে নতুন ৫ জনকে স্থান দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব সজল কান্তি বণিক স্বাক্ষরিত একটি পত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ নিয়ে দশমবারের মতো অন্তর্বর্তীকালীন তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ পুনর্গঠন করা হল।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদে টানা তৃতীয়বারসহ চতুর্থবারের মতো চেয়ারম্যান নিয়োগ পেয়েছেন কারাতে মাস্টার ক্যশৈহ্লা।

নতুন নিযুক্ত ৫ সদস্য হলেন- থানচি উপজেলা থেকে শৈহ্লাচিং বাশৈচিং মারমা, আলীকদম উপজেলা থেকে দুংড়ি মং মারমা, বান্দরবান পৌরসভা থেকে সত্যহা পানজি ত্রিপুরা, লামা পৌরসভা থেকে শেখ মাহাবুবুর রহমান, রোয়াংছড়ি উপজেলা থেকে সিঅং খুমী।

পুরনো ৯ সদস্য হলেন- বান্দরবান পৌরসভা থেকে মোজাম্মেল হক বাহাদুর, লক্ষ্মীপদ দাস, ক্যসাপ্রু মারমা, রোয়াংছড়ি উপজেলা থেকে কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা, সদর উপজেলা থেকে সিইয়ং ম্রো, রুমা উপজেলা থেকে জুয়েল বম, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ক্যনে ওয়ান চাক এবং মহিলা সদস্য বান্দরবান পৌরসভা থেকে তিংতিং ম্যা ও লামা পৌরসভা থেকে ফাতেমা।

বাদ পড়েছেন বান্দরবান পৌরসভা থেকে ফিলিপস ত্রিপুরা, সদর উপজেলা থেকে ম্রাচা খেয়াং, আলীকদমের থোয়াইচা হ্লা মারমা।

পরিষদ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৯ সালে সরকার নির্বাচনের মাধ্যমে ৩ পার্বত্য জেলা পরিষদ গঠন করা হয়। পরে ১৯৯৬ সালের ৫ আগস্ট পার্বত্য জেলা পরিষদগুলো ভেঙে দিয়ে প্রত্যেক পরিষদে ১ জন চেয়ারম্যান এবং ৪ জন সদস্য মনোনয়ন দিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন পরিষদ গঠন করে সরকার। এরপর আর কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে সর্বশেষ ২০১৫ সালের ২৫ মার্চ অন্তর্বর্তীকালীন পার্বত্য জেলা পরিষদগুলোর সদস্য সংখ্যা ৪ থেকে বাড়িয়ে ১৪ জনে উন্নীত করা হয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন