স্বামীকে ভাপা পিঠা আনতে পাঠিয়ে ফাঁস দিলেন নববধূ
jugantor
স্বামীকে ভাপা পিঠা আনতে পাঠিয়ে ফাঁস দিলেন নববধূ

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি  

২১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮:৫১:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনার চাটমোহরে অষ্টমঙ্গলায় এসে স্বামীকে ভাপা পিঠা আনতে পাঠিয়ে ফাঁস দিয়ে পপি রানী সূত্রধর (১৮) নামে এক নববধূ আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার ভোরে বাবার বাড়ি উপজেলার হান্ডিয়াল ইউনিয়নের সরকারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পপি রানী সূত্রধর ওই গ্রামের মংলা বাদ্যকরের মেয়ে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহ আগে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার বেতকান্দি গ্রামের রিপন সূত্রধরের সঙ্গে বিয়ে হয় পপি রানীর। হিন্দুধর্মীয় রীতি অনুযায়ী বিয়ের পর অষ্টমঙ্গলা করতে রোববার তারা স্বামী-স্ত্রী হান্ডিয়ালে আসেন। সোমবার ভোরে স্ত্রী (পপি) ভাপা পিঠা খাওয়ার কথা বললে স্বামী রিপন স্থানীয় বাজারে যান।

এর ফাঁকে ঘরের আড়ার সঙ্গে শাড়ি পেঁচিয়ে ফাঁস নেন ওই নববধূ। বাজার থেকে ভাপা পিঠা নিয়ে ফেরার পর স্ত্রীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে চিৎকার দেন রিপন সূত্রধর। পরে আত্মীয়স্বজন ও স্থানীয়রা এসে পুলিশে খবর দিলে পপি সূত্রধরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি।

এ ব্যাপারে চাটমোহর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, পপি রানী নামে ওই নববধূর মৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া লাশ উদ্ধার শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

স্বামীকে ভাপা পিঠা আনতে পাঠিয়ে ফাঁস দিলেন নববধূ

 চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি 
২১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনার চাটমোহরে অষ্টমঙ্গলায় এসে স্বামীকে ভাপা পিঠা আনতে পাঠিয়ে ফাঁস দিয়ে পপি রানী সূত্রধর (১৮) নামে এক নববধূ আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার ভোরে বাবার বাড়ি উপজেলার হান্ডিয়াল ইউনিয়নের সরকারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পপি রানী সূত্রধর ওই গ্রামের মংলা বাদ্যকরের মেয়ে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহ আগে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার বেতকান্দি গ্রামের রিপন সূত্রধরের সঙ্গে বিয়ে হয় পপি রানীর। হিন্দুধর্মীয় রীতি অনুযায়ী বিয়ের পর অষ্টমঙ্গলা করতে রোববার তারা স্বামী-স্ত্রী হান্ডিয়ালে আসেন। সোমবার ভোরে স্ত্রী (পপি) ভাপা পিঠা খাওয়ার কথা বললে স্বামী রিপন স্থানীয় বাজারে যান।

এর ফাঁকে ঘরের আড়ার সঙ্গে শাড়ি পেঁচিয়ে ফাঁস নেন ওই নববধূ। বাজার থেকে ভাপা পিঠা নিয়ে ফেরার পর স্ত্রীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে চিৎকার দেন রিপন সূত্রধর। পরে আত্মীয়স্বজন ও স্থানীয়রা এসে পুলিশে খবর দিলে পপি সূত্রধরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি। 

এ ব্যাপারে চাটমোহর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, পপি রানী নামে ওই নববধূর মৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া লাশ উদ্ধার শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন