পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি, অস্ত্রসহ মেয়রপ্রার্থী যুবলীগ নেতা আটক
jugantor
পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি, অস্ত্রসহ মেয়রপ্রার্থী যুবলীগ নেতা আটক

  ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি  

২৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮:৫৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তির ঘটনায় যুবলীগ নেতা ও মেয়রপ্রার্থী মাকসুদুল বাসার বাঁধন পাটওয়ারীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র ও ককটেলসদৃশ বস্তু উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার বিকালে পুলিশের ওপর হামলা ও অস্ত্র এবং বিস্ফোরক আইনে দুটি পৃথক মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ডের চরকুমিরা গ্রামে গিয়াস উদ্দিন বাবুল পাটওয়ারী গংদের আবাদকৃত মাছের ঘেরের বাঁধ কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটে।

ওই মাছের ঘেরের পাহারাদার সাহাবুদ্দিন জানান, যুবলীগ নেতা মেয়রপ্রার্থী মাকসুদুল বাসার বাঁধন পাটওয়ারী নিজে ওই মাছের ঘেরের বাঁধ কেটে দেন। যাতে পানির স্রোতে মাছ ভেসে যায়। এতে পাহারাদার বাধা দিতে গেলে বাঁধন পাটওয়ারী তাকে অস্ত্র দিয়ে মারার হুমকি দেন।

পরে মাছের ঘেরটি রক্ষার জন্য মালিকপক্ষ থানা পুলিশের শরণাপন্ন হলে শুক্রবার ভোরে থানা পুলিশের একটি দল সেখানে যায়। এ সময় বাঁধন পাটওয়ারী পুলিশের সঙ্গেও ধস্তাধস্তিতে লিপ্ত হন। একপর্যায়ে পুলিশ তার কাছ থেকে একটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ছোরা এবং ককটেলসদৃশ বস্তু উদ্ধার করে এবং তাকে আটক করে।

ঘটনার ব্যাপারে গিয়াস উদ্দিন বাবুল পাটওয়ারীর ভাই সালাউদ্দিন পাটওয়ারী জানান, গত কয়েক দিন ধরে তারা মাছের ঘের থেকে মাছ ধরছেন। কিন্তু বাঁধন পাটওয়ারী বৃহস্পতিবার রাতে ঘেরের বাঁধ কেটে দেন। এতে তাদের বিপুল পরিমাণ মাছ ভেসে গেছে।

তবে আটক বাঁধন পাটওয়ারী জানান, তাকে মিথ্যা ঘটনায় ফাঁসানো হয়েছে। এটি পরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে। তিনি পুলিশের ওপর হামলা করেননি।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, আটক বাঁধন পাটওয়ারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি, অস্ত্রসহ মেয়রপ্রার্থী যুবলীগ নেতা আটক

 ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি 
২৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তির ঘটনায় যুবলীগ নেতা ও মেয়রপ্রার্থী মাকসুদুল বাসার বাঁধন পাটওয়ারীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র ও ককটেলসদৃশ বস্তু উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার বিকালে পুলিশের ওপর হামলা ও অস্ত্র এবং বিস্ফোরক আইনে দুটি পৃথক মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ডের চরকুমিরা গ্রামে গিয়াস উদ্দিন বাবুল পাটওয়ারী গংদের আবাদকৃত মাছের ঘেরের বাঁধ কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটে।

ওই মাছের ঘেরের পাহারাদার সাহাবুদ্দিন জানান, যুবলীগ নেতা মেয়রপ্রার্থী মাকসুদুল বাসার বাঁধন পাটওয়ারী নিজে ওই মাছের ঘেরের বাঁধ কেটে দেন। যাতে পানির স্রোতে মাছ ভেসে যায়। এতে পাহারাদার বাধা দিতে গেলে বাঁধন পাটওয়ারী তাকে অস্ত্র দিয়ে মারার হুমকি দেন।

পরে মাছের ঘেরটি রক্ষার জন্য মালিকপক্ষ থানা পুলিশের শরণাপন্ন হলে শুক্রবার ভোরে থানা পুলিশের একটি দল সেখানে যায়। এ সময় বাঁধন পাটওয়ারী পুলিশের সঙ্গেও ধস্তাধস্তিতে লিপ্ত হন। একপর্যায়ে পুলিশ তার কাছ থেকে একটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ছোরা এবং ককটেলসদৃশ বস্তু উদ্ধার করে এবং তাকে আটক করে।

ঘটনার ব্যাপারে গিয়াস উদ্দিন বাবুল পাটওয়ারীর ভাই সালাউদ্দিন পাটওয়ারী জানান, গত কয়েক দিন ধরে তারা মাছের ঘের থেকে মাছ ধরছেন। কিন্তু বাঁধন পাটওয়ারী বৃহস্পতিবার রাতে ঘেরের বাঁধ কেটে দেন। এতে তাদের বিপুল পরিমাণ মাছ ভেসে গেছে।

তবে আটক বাঁধন পাটওয়ারী জানান, তাকে মিথ্যা ঘটনায় ফাঁসানো হয়েছে। এটি পরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে। তিনি পুলিশের ওপর হামলা করেননি।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, আটক বাঁধন পাটওয়ারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন