প্রবাসীর স্ত্রীকে খুন করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট
jugantor
প্রবাসীর স্ত্রীকে খুন করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট

  কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:৪৫:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

খুন

গাজীপুরের কালীগঞ্জে সৌদি প্রবাসী মোমেন মির্জার স্ত্রী নাজমা বেগমকে (৪২) হত্যা করে স্বর্ণালংকারসহ নগদ সাড়ে ৪ লাখ টাকা নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে কালীগঞ্জ পৌরসভার পশ্চিম চৈতরপাড়া এলাকায় প্রবাসী মোমেন মির্জার বাড়িতে।

তিনি ৪ সন্তানের জননী। তিনি একই এলাকার মৃত মোরশেদ মিয়ার মেয়ে। খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ক্ষত-বিক্ষত অবস্থায় ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

শনিবার সকালে নিহতের লাশের ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কালীগঞ্জ-কাপাসিয়া সার্কেল এএসপি) ফারজানা ইয়াছমিন ও ওসি একেএম মিজানুল হক জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরির্দশন করি। এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। তিনি আরও জানান, নিহতের স্বর্ণালংকার তার ঘর থেকেই পাওয়া গেছে, তবে টাকার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

কালীগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আহামুদুল কবির ও নিহতের স্বজনরা জানান, শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে নাজমা বেগমকে গুরুতর রক্তাক্ত জখম অবস্থায় ঘরে পড়ে থাকতে দেখে তার ছেলেসহ স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাত পৌনে ১০টার দিকে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। পরবর্তীতে ঢাকায় নেয়ার পথে রাত সাড়ে ১০টার দিকে নাজমা বেগমের মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত নাজমা বেগমের ছোট ছেলে স্বপন (২০) তার কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে বিকালে তাদের বাড়ির ছাদে মাদকের পার্টি করেছিল বলে আলামত পাওয়া যায়। স্বপনের সঙ্গে পার্টিতে অংশ নেয়া তার বন্ধুরা নরসিংদী জেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি একেএম মিজানুল হক জানান, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

প্রবাসীর স্ত্রীকে খুন করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট

 কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২৬ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
খুন
খুন

গাজীপুরের কালীগঞ্জে সৌদি প্রবাসী মোমেন মির্জার স্ত্রী নাজমা বেগমকে (৪২) হত্যা করে স্বর্ণালংকারসহ নগদ সাড়ে ৪ লাখ টাকা নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে  শুক্রবার রাতে কালীগঞ্জ পৌরসভার পশ্চিম চৈতরপাড়া এলাকায়  প্রবাসী মোমেন মির্জার বাড়িতে।

তিনি ৪ সন্তানের জননী। তিনি একই এলাকার মৃত মোরশেদ মিয়ার মেয়ে। খবর পেয়ে  কালীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ক্ষত-বিক্ষত অবস্থায় ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

শনিবার সকালে নিহতের লাশের ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কালীগঞ্জ-কাপাসিয়া সার্কেল এএসপি) ফারজানা ইয়াছমিন ও ওসি একেএম মিজানুল হক জানান, খবর পেয়ে দ্রুত  ঘটনাস্থল পরির্দশন করি। এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। তিনি আরও জানান, নিহতের স্বর্ণালংকার তার ঘর থেকেই পাওয়া গেছে, তবে টাকার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

কালীগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আহামুদুল কবির ও নিহতের স্বজনরা জানান, শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে নাজমা বেগমকে গুরুতর রক্তাক্ত জখম অবস্থায়  ঘরে পড়ে থাকতে দেখে তার ছেলেসহ স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাত পৌনে ১০টার দিকে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। পরবর্তীতে ঢাকায় নেয়ার পথে রাত সাড়ে ১০টার দিকে নাজমা বেগমের  মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত নাজমা বেগমের ছোট ছেলে স্বপন (২০) তার কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে বিকালে তাদের বাড়ির ছাদে মাদকের পার্টি করেছিল বলে আলামত পাওয়া যায়। স্বপনের সঙ্গে পার্টিতে অংশ নেয়া তার বন্ধুরা নরসিংদী জেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি একেএম মিজানুল হক জানান, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন