আচরণবিধি লঙ্ঘন করে জিসিসিতে আ’লীগপ্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

  গাজীপুর প্রতিনিধি ১২ এপ্রিল ২০১৮, ২০:২২ | অনলাইন সংস্করণ

জিসিসি

আগামী ১৫ মে অনুষ্ঠিতব্য গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে গাজীপুরে ছিল নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের মহোৎসব চলছে। এ ব্যাপারে রিটার্নিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তারা ছিলেন নীরব।

বৃহস্পতিবার বিএনপির মেয়রপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার বেলা সাড়ে ১১টায় ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম দুপুর দেড়টায় বঙ্গতাজ অডিটরিয়ামে স্থাপিত রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

এ সময় রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় ও এর আশপাশ এলাকায় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করে ব্যানার, প্ল্যাকার্ড, ফ্যাস্টুন, বাঁশের তৈরি নৌকা নিয়ে দফায় দফায় মিছিল এবং মোটরসাইকেলে শোডাউন করতে দেখা গেছে।

সকাল থেকেই প্রার্থী, কর্মী ও তাদের সমর্থকরা গাড়ি ভাড়া করে লোকজন নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে জড়ো হতে থাকেন।

দুপুর না গড়াতেই কর্মীদের উপস্থিতিতে শহরটি সরগরম হয়ে উঠে, সৃষ্টি হয় র্দীর্ঘ যানজট। এ সময় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী ও সর্বসাধারণের চলাচলে ভোগান্তির শিকার হতে হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, দুপুর সোয়া ১টার দিকে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম মনোনয়নপত্র জমা দিতে দলবল নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন।

এ সময় মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সফিকুল আলম, রিয়াজ মোহাম্মদ আয়নাল, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান, সহসভাপতি কাজী আলিম উদ্দিন বুদ্দিন, আব্দুর রউফ নয়ন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ, সহসভাপতি আমানত হোসেন খান, সদস্য রেজাউল করিম রাসেল, আব্দুল হাদী শামিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান, অধ্যক্ষ মো. মহিউদ্দিন মহি, কাজী ইলিয়াস, যুগ্ম সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কামরুল আহসান রাসেল সরকার, মহানগর আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক মো. খালিদ হোসেনসহ ২৫-৩০ জন নেতাকর্মী জাহাঙ্গীর আলমের সঙ্গে রিটার্নিং কর্মকর্তার কক্ষে প্রবেশ করেন।

খোদ রিটার্নিং কর্মকর্তার কক্ষে আচরণবিধি লঙ্ঘিত হলেও এ সময় রিটার্নিং কর্মকর্তা ছিলেন সম্পূর্ণ নীরব ও চুপচাপ। পরে জাহাঙ্গীর আলমের মনোনয়নপত্র গ্রহণ শেষে তাকেসহ অন্যান্যদের নির্বাচনী আচরণবিধির কপি ধরিয়ে দিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

এর আগে জাহাঙ্গীর আলম সমর্থিত নেতাকর্মীরা জেলা শহরের দলীয় কার্যালয় থেকে পোস্টার, ব্যানার, প্ল্যাকার্ড ও নৌকা প্রতীকসহ মিছিল নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় চত্বরে আসেন। এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন থাকলেও মিছিল থামাতে তাদের কিংবা নির্বাচনে নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের কোনো ভূমিকা নিতে দেখা যায়নি।

আচরণবিধি লঙ্গনের বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. রকিব উদ্দিন মণ্ডল সাংবাদিকদের বলেন, আচরণবিধি যাতে লঙ্ঘিত না হয়, সে ব্যাপারে আজকে আমি ডিসি সাহেবের সঙ্গে কথা বলেছি, এসপি সাহেবের সঙ্গে কথা বলেছি, প্রার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি, মনোনয়নপত্র দাখিল করার সময় কোনো প্রার্থীর সঙ্গে যেন পাঁচজনের বেশি লোক না আসে। পুলিশ বলেছে- জোর করে তারা ভেতরে ঢুকে গেছেন। আবার অনেকে সাংবাদিক পরিচয়ে কিংবা কৌতূহলবশত আমার রুমে ঢুকে পড়েছেন। তারপরও পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটদের বলে দিয়েছি কোথাও যাতে কেউ আচরণবিধি লঙ্ঘন না করেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, আচরণবিধি যাতে লঙ্ঘিত না হয় এজন্য আমরা বিভিন্ন ধরনের প্রচেষ্টা চালাচ্ছি, আচরণবিধি বিলি করছি, মাইকিং করছি, প্রশাসনও চেষ্টা করছে। আমাদের প্রচেষ্টা কিন্তু অব্যাহত আছে। তারপরও কিছু অতি উৎসাহী মানুষ অনেক সময় হয়তো আচরণবিধি লঙ্ঘনের চেষ্টা করে।

প্রার্থীর সঙ্গে থাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ খান বলেন, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার আগে বৃহস্পতিবার সকালে আওয়ামী লীগের জেলা কার্যালয়ে সভা করে নেতাকর্মীদের আচরণবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছি। কিন্তু তারপরও অনেকে তা না মেনে রিটার্নিং কর্মকর্তার কক্ষে ঢুকে পড়েছেন।

বিএনপির প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, সরকারদলীয় প্রার্থী যেভাবে আচরণবিধি লঙ্ঘন করছে এ নির্বাচন জনগণকে হতাশ করবে। নির্বাচন শুরু হওয়ার আগেই যেভাবে আচরণবিধি লঙ্ঘিত হচ্ছে, শেষ পর্যন্ত নির্বাচন কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা ভাবার বিষয়। এ ব্যাপারে তিনি হতাশা প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশনকে আরও সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানান।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ১২ এপ্রিল মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দেয়ার শেষ দিন। মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ১৫ ও ১৬ এপ্রিল, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৩ এপ্রিল, প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে ২৪ এপ্রিল। আগামী ১৫ মে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচনী আচরণবিধির ১১নং ক্রমিকে বলা আছে- প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দের আগে কোনো মিছিল, মিটিং, কোথাও পোস্টার, লিফলেট, ব্যানার স্থাপন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

ঘটনাপ্রবাহ : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter