সংযোগ সড়ক হয়নি চার বছরেও
jugantor
সংযোগ সড়ক হয়নি চার বছরেও

  মুলাদী (বরিশাল) প্রতিনিধি  

৩১ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:০৫:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বরাদ্দ না থাকায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

মুলাদীতে কালভার্ট নির্মাণের চার বছর অতিবাহিত হলেও দেওয়া হয়নি সংযোগ সড়ক। উপজেলার চরকালেখান ইউনিয়নের একতারহাট সংলগ্ন খালের ওপর সেতু নির্মাণ করে সংযোগ সড়ক না দিয়েই ঠিকাদার বিল তুলে নিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। আর বরাদ্দ না থাকায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

জানা গেছে ২০১৬ সালের মাঝামাঝি চরকালেখান একতারহাট সংলগ্ন খালের ওপর এলজিইজির তত্ত্বাবধানে কালভাট নির্মাণ করা হয়। কালভার্ট দিয়ে প্রতিদিন মোটরসাইকেল,স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী ও বাজারের লোকজন যাওয়া আসা করে থাকে। কিন্তু নির্মাণের চার বছরেও কালভার্টের দুই পার্শ্বে মাটি দিয়ে ভরাট করা হয়নি কিংবা সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি।

স্থানীয়রা কিছু মাটি ভরাট করে কোনোরকম চলাচল করলেও মোটরসাইকেল ও ভ্যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। অনেকে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।

স্থানীয় লোকজন মাটি ভরাটের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, মেম্বারদের কাছে দাবি জানালেও কেউ সংযোগ সড়ক নির্মাণের উদ্যোগ নেননি। এ ব্যাপারে ঠিকাদার নাহিদ হোসেন দিদার তালুকদার জানান, সংযোগ সড়কের জন্য বরাদ্দ না থাকায় তা নির্মাণ করা সম্ভব হয়নি।

বিষয়টি উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুভ্রা দাস জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংযোগ সড়ক হয়নি চার বছরেও

 মুলাদী (বরিশাল) প্রতিনিধি 
৩১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বরাদ্দ না থাকায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।
বরাদ্দ না থাকায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

মুলাদীতে কালভার্ট নির্মাণের চার বছর অতিবাহিত হলেও দেওয়া হয়নি সংযোগ সড়ক। উপজেলার চরকালেখান ইউনিয়নের একতারহাট সংলগ্ন খালের ওপর সেতু নির্মাণ করে সংযোগ সড়ক না দিয়েই ঠিকাদার বিল তুলে নিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। আর বরাদ্দ না থাকায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

জানা গেছে ২০১৬ সালের মাঝামাঝি চরকালেখান একতারহাট সংলগ্ন খালের ওপর এলজিইজির তত্ত্বাবধানে কালভাট নির্মাণ করা হয়। কালভার্ট দিয়ে প্রতিদিন মোটরসাইকেল,স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী ও বাজারের লোকজন যাওয়া আসা করে থাকে। কিন্তু নির্মাণের চার বছরেও কালভার্টের দুই পার্শ্বে মাটি দিয়ে ভরাট করা হয়নি কিংবা সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি।

স্থানীয়রা কিছু মাটি ভরাট করে কোনোরকম চলাচল করলেও মোটরসাইকেল ও ভ্যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। অনেকে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।

 স্থানীয় লোকজন মাটি ভরাটের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, মেম্বারদের কাছে দাবি জানালেও কেউ সংযোগ সড়ক নির্মাণের উদ্যোগ নেননি। এ ব্যাপারে ঠিকাদার নাহিদ হোসেন দিদার তালুকদার জানান, সংযোগ সড়কের জন্য বরাদ্দ না থাকায় তা নির্মাণ করা সম্ভব হয়নি।

বিষয়টি উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুভ্রা দাস জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন