ভালুকায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার
jugantor
ভালুকায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

০১ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৪৩:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আত্নহত্যা

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার জামিরদিয়া ডুবালিয়াপাড়া এলাকায় ইমন নামে এক ব্যবসায়ীর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী শান্তা আক্তারের (২৩) লাশ ভালুকা মডেল থানা পুলিশ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উদ্ধার করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার শানচুর গ্রামের ইমন মিয়া ভালুকা উপজেলার ডুবালিয়াপাড়ায় আলম সরকারের বাড়িতে সপরিবারে ভাড়া থেকে ভাঙ্গারির ব্যবসা করেন। স্বামী-স্ত্রীর মাঝে প্রায়ই পরিবারিক কলহ লেগে থাকত। শুক্রবার সকালে শান্তা বসত ঘরের আড়ার সাথে উড়না দিয়ে ফাঁস দেয়। এ সময় তার স্বামী খোঁজ পেয়ে ফাঁসির উড়না কেটে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শান্তার এক বছরের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। শান্তা আক্তার ওই উপজেলার ছোটচিলাগাই গ্রামের সুলতান উদ্দিনের মেয়ে।

নিহতের স্বামী ইমন মিয়া জানান, আমাদের সংসারে কোনো ঝগড়াঝাটি ছিল না। কী কারণে সে আত্মহত্যা করেছে আমি কিছুই বলতে পারব না।

ভালুকা মডেল থানার এসআই মতিউর রহমান জানান, শান্তার স্বামী ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় উড়না দিয়ে সে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করে। নিহতের পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়া হয়েছে তাদের বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে।

ভালুকায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
০১ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আত্নহত্যা
আত্নহত্যা

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার জামিরদিয়া ডুবালিয়াপাড়া এলাকায় ইমন নামে এক ব্যবসায়ীর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী শান্তা আক্তারের (২৩) লাশ ভালুকা মডেল থানা পুলিশ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উদ্ধার করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার শানচুর গ্রামের ইমন মিয়া ভালুকা উপজেলার ডুবালিয়াপাড়ায় আলম সরকারের বাড়িতে সপরিবারে ভাড়া থেকে ভাঙ্গারির ব্যবসা করেন। স্বামী-স্ত্রীর মাঝে প্রায়ই পরিবারিক কলহ লেগে থাকত। শুক্রবার সকালে শান্তা বসত ঘরের আড়ার সাথে উড়না দিয়ে ফাঁস দেয়। এ সময় তার স্বামী খোঁজ পেয়ে ফাঁসির উড়না কেটে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শান্তার এক বছরের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। শান্তা আক্তার ওই উপজেলার ছোটচিলাগাই গ্রামের সুলতান উদ্দিনের মেয়ে।

নিহতের স্বামী ইমন মিয়া জানান, আমাদের সংসারে কোনো ঝগড়াঝাটি ছিল না। কী কারণে সে আত্মহত্যা করেছে আমি কিছুই বলতে পারব না।

ভালুকা মডেল থানার এসআই মতিউর রহমান জানান, শান্তার স্বামী ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় উড়না দিয়ে সে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করে। নিহতের পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়া হয়েছে তাদের বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন