নৈশকোচে যাত্রীবেশে নারী ডাকাত
jugantor
নৈশকোচে যাত্রীবেশে নারী ডাকাত

  দিনাজপুর প্রতিনিধি  

০৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:২২:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নাজমুন নাহার রিপা (৩০)

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রোজিনা পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী নৈশকোচে যাত্রীবেশে ডাকাতি করার সময় নাজমুন নাহার রিপা (৩০) নামে এক নারী ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পালিয়ে গেছে ডাকাত দলের অপর ৭ জন পুরুষ সদস্য। এ সময় ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ৬টি চাকু উদ্ধার হয়।

ডাকাত দলের হামলায় আহত হয়েছেন বাসের তিনজন যাত্রী। আহতরা হলেন- ঠাকুগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলার জসিম উদ্দিনের ছেলে অলিন, ঠাকুরগাঁও জেলার আব্দুল গফ্ফারের ছেলে জুয়েল রানা ও নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়নাল আবেদিনের ছেলে জামাল হোসেন। তাদের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার ভোর ৫টায় দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের নবাবগঞ্জ উপজেলার মতিহারা ব্রিজের কাছে গাছের গুঁড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে গাড়িটি থামায় পুলিশ। গাড়ি থেকে নাজমুন নাহার রিপা নামে নারী ডাকাতকে আটক করে পুলিশ। নাজমুন নাহার রিপা দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট পৌরসভার পশ্চিম নয়াপাড়া গ্রামের সেলিম শেখের স্ত্রী।

দিনাজপুরের বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিথুন সরকার জানান, রোববার রাতে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪৫০২১) রোজিনা পরিবহনের একটি বাস যাত্রী নিয়ে ঠাকুরগাঁও জেলার রানিশংকৈল উপজেলায় আসছিল। পথে ওই বাসে ৮ জন ডাকাত যাত্রীবেশে ওঠে। গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থেকে দিনাজপুর আসার পথে ডাকাত দল যাত্রীদের জিম্মি করে লুটপাট শুরু করে। ডাকাত দল বাসের চালককে সরিয়ে গাড়িটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। পথে কাটাবাড়ি এলাকায় গাড়ির সহকারী লাফ দিয়ে নেমে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে বিষয়টি পুলিশকে জানান। ফোন পেয়ে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ গাড়িটির পিছু নেয়। একই সাথে বিরামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নবাবগঞ্জ থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের দলারদরগা বাজারে গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধ করে।

সড়ক অবরোধ ও পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গাড়িটি মতিহারা ব্রিজের পাশে রেখে ডাকাত দল পালিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ তাদের ধাওয়া করে ডাকাত দলের ওই নারী সদস্যকে আটক করে। আটক নারীকে নবাবগঞ্জ থানায় নেওয়া হয়েছে।

সার্কেল এএসপি জানান, এ ব্যাপারে একটি মামলা হয়েছে। আটক নারী ডাকাতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পালিয়ে যাওয়া ডাকাতদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

নৈশকোচে যাত্রীবেশে নারী ডাকাত

 দিনাজপুর প্রতিনিধি 
০৪ জানুয়ারি ২০২১, ০৭:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাজমুন নাহার রিপা (৩০)
নাজমুন নাহার রিপা (৩০)

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রোজিনা পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী নৈশকোচে যাত্রীবেশে ডাকাতি করার সময় নাজমুন নাহার রিপা (৩০) নামে এক নারী ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পালিয়ে গেছে ডাকাত দলের অপর ৭ জন পুরুষ সদস্য। এ সময় ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ৬টি চাকু উদ্ধার হয়।

ডাকাত দলের হামলায় আহত হয়েছেন বাসের তিনজন যাত্রী। আহতরা হলেন- ঠাকুগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলার জসিম উদ্দিনের ছেলে অলিন, ঠাকুরগাঁও জেলার আব্দুল গফ্ফারের ছেলে জুয়েল রানা ও নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়নাল আবেদিনের ছেলে জামাল হোসেন। তাদের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার ভোর ৫টায় দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের নবাবগঞ্জ উপজেলার মতিহারা ব্রিজের কাছে গাছের গুঁড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে গাড়িটি থামায় পুলিশ। গাড়ি থেকে নাজমুন নাহার রিপা নামে নারী ডাকাতকে আটক করে পুলিশ। নাজমুন নাহার রিপা দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট পৌরসভার পশ্চিম নয়াপাড়া গ্রামের সেলিম শেখের স্ত্রী।

দিনাজপুরের বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিথুন সরকার জানান, রোববার রাতে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪৫০২১) রোজিনা পরিবহনের একটি বাস যাত্রী নিয়ে ঠাকুরগাঁও জেলার রানিশংকৈল উপজেলায় আসছিল। পথে ওই বাসে ৮ জন ডাকাত যাত্রীবেশে ওঠে। গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থেকে দিনাজপুর আসার পথে ডাকাত দল যাত্রীদের জিম্মি করে লুটপাট শুরু করে। ডাকাত দল বাসের চালককে সরিয়ে গাড়িটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। পথে কাটাবাড়ি এলাকায় গাড়ির সহকারী লাফ দিয়ে নেমে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে বিষয়টি পুলিশকে জানান। ফোন পেয়ে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ গাড়িটির পিছু নেয়। একই সাথে বিরামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নবাবগঞ্জ থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের দলারদরগা বাজারে গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধ করে।

সড়ক অবরোধ ও পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গাড়িটি মতিহারা ব্রিজের পাশে রেখে ডাকাত দল পালিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ তাদের ধাওয়া করে ডাকাত দলের ওই নারী সদস্যকে আটক করে। আটক নারীকে নবাবগঞ্জ থানায় নেওয়া হয়েছে।

সার্কেল এএসপি জানান, এ ব্যাপারে একটি মামলা হয়েছে। আটক নারী ডাকাতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পালিয়ে যাওয়া ডাকাতদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন