শ্রীমঙ্গল গ্যাস পাম্পে আগুন, ৩ অটোরিকশা ভস্মীভূত
jugantor
শ্রীমঙ্গল গ্যাস পাম্পে আগুন, ৩ অটোরিকশা ভস্মীভূত

  শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

০৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:৪২:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে কালাপুর এলাকার মেরিগোল্ড সিএনজি ফিলিং স্টেশনে আগুন লেগে তিনটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ভস্মীভূত হয়েছে। বুধবার বিকাল ৪টায় দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।

পুড়ে যাওয়া তিনটি জিএনজিচালিত অটোরিকশার মালিক উপজেলার নূর মিয়া, জামাল মিয়া ও অনিক দেব বলে জানা যায়। তবে এত কেউ হতাহত হননি।

সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক নূর মিয়া ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে জানান, বুধবার বিকালে তিনি অটোরিকশায় গ্যাস ফিলিং করতে যান। এমন সময় গ্যাস নজেলে (পাইপ) সিএনজিতে প্রবেশ করানোর সঙ্গে সঙ্গে বিকট শব্দ হয়। তার পর হঠাৎ করে নজেলটি শব্দ করে ফেটে যায়।

এ সময় নজেল থেকে গ্যাস চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে ও আগুন ধরে যায়। তার গাড়িতে থাকা দুজন যাত্রীকে নিয়ে তিনি দ্রুত সিএনজি থেকে নেমে নিরাপদ দূরত্বে চলে যান। ওই সময় সিএনজির পেছনে থাকা আরও দুটি সিএনজি ও গ্যাস দেয়ার মেশিনে আগুন ধরে যায়। এতে তিনটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাই আগুনে পুরো ভস্মীভূত হয়ে যায়।

মেরিগোল্ড সিএনজি ফিলিং স্টেশনের ইঞ্জি. সাইফুল ইসলাম বলেন, আমি ভাত খাওয়ার জন্য বাড়িতে গিয়েছিলাম। আগুন লাগার খবর শুনে দ্রুত পাম্পে আসি। এসেই ফায়ার বক্স নিয়ে আগুন নেভানোর কাজে লেগে পড়ি। সাধারণত গ্যাস পাম্পে আগুন লাগলে কেউ এগিয়ে আসে না। ভয়ে দূরে সরে যায়।

আমি দ্রুত সেখানে গিয়ে পাম্পে থাকা অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র ব্যবহার করে আগুন নেভানোর চেষ্টা করি। পরে ফায়ার সার্ভিসও সেখানে আসে। আগুন লাগার ফলে গ্যাস পাম্পের ডিসপেন্সার মেশিন, নজেল ও ওয়ারিংসহ অনেক কিছু পুড়ে গেছে। আগুন লেগে ফিলিং স্টেশনের অর্ধকোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা আব্দুল কাদির যুগান্তরকে জানান, কালাপুর গ্যাস পাম্পের সিএনজি অটোরিকশাতে গ্যাস দেয়ার সময় পাইপের নজেলের সঙ্গে স্পার্ক করে আগুন লেগে যায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন বলে জানান।

শ্রীমঙ্গল গ্যাস পাম্পে আগুন, ৩ অটোরিকশা ভস্মীভূত

 শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
০৭ জানুয়ারি ২০২১, ০১:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে কালাপুর এলাকার মেরিগোল্ড সিএনজি ফিলিং স্টেশনে আগুন লেগে তিনটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ভস্মীভূত হয়েছে। বুধবার বিকাল ৪টায় দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।

পুড়ে যাওয়া তিনটি জিএনজিচালিত অটোরিকশার মালিক উপজেলার নূর মিয়া, জামাল মিয়া ও অনিক দেব বলে জানা যায়।  তবে এত কেউ হতাহত হননি।

সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক নূর মিয়া ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে জানান, বুধবার বিকালে তিনি অটোরিকশায় গ্যাস ফিলিং করতে যান। এমন সময় গ্যাস নজেলে (পাইপ) সিএনজিতে প্রবেশ করানোর সঙ্গে সঙ্গে বিকট শব্দ হয়। তার পর হঠাৎ করে নজেলটি শব্দ করে ফেটে যায়।

এ সময় নজেল থেকে গ্যাস চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে ও আগুন ধরে যায়। তার গাড়িতে থাকা দুজন যাত্রীকে নিয়ে তিনি দ্রুত সিএনজি থেকে নেমে নিরাপদ দূরত্বে চলে যান। ওই সময় সিএনজির পেছনে থাকা আরও দুটি সিএনজি ও গ্যাস দেয়ার মেশিনে আগুন ধরে যায়। এতে তিনটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাই আগুনে পুরো ভস্মীভূত হয়ে যায়।

মেরিগোল্ড সিএনজি ফিলিং স্টেশনের ইঞ্জি. সাইফুল ইসলাম বলেন, আমি ভাত খাওয়ার জন্য বাড়িতে গিয়েছিলাম। আগুন লাগার খবর শুনে দ্রুত পাম্পে আসি। এসেই ফায়ার বক্স নিয়ে আগুন নেভানোর কাজে লেগে পড়ি। সাধারণত গ্যাস পাম্পে আগুন লাগলে কেউ এগিয়ে আসে না। ভয়ে দূরে সরে যায়।

আমি দ্রুত সেখানে গিয়ে পাম্পে থাকা অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র ব্যবহার করে আগুন নেভানোর চেষ্টা করি। পরে ফায়ার সার্ভিসও সেখানে আসে। আগুন লাগার ফলে গ্যাস পাম্পের ডিসপেন্সার মেশিন, নজেল ও ওয়ারিংসহ অনেক কিছু পুড়ে গেছে। আগুন লেগে ফিলিং স্টেশনের অর্ধকোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা আব্দুল কাদির যুগান্তরকে জানান, কালাপুর গ্যাস পাম্পের সিএনজি অটোরিকশাতে গ্যাস দেয়ার সময় পাইপের নজেলের সঙ্গে স্পার্ক করে আগুন লেগে যায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন বলে জানান।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন