তলা ফেটে সিমেন্টবাহী বলগেটডুবি, বাঘাবাড়ি নৌরুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ
jugantor
তলা ফেটে সিমেন্টবাহী বলগেটডুবি, বাঘাবাড়ি নৌরুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ

  শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৭ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৪৯:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে একটি সিমেন্টবাহী বলগেট জাহাজের তলা ফেটে যায়। এতে জাহাজটির বেশকিছু অংশ পানিতে ডুবে গেছে। এ ঘটনার পর থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে বাঘাবাড়ি নৌরুটে সব ধরনের পণ্যবাহী কার্গোজাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে।

উপজেলার বাঘাবাড়ি নৌরুটের পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালারচর ইউনিয়নের লতিফপুর এলাকায় বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে সানু পরিবহন নামের বলগেটটি ডুবে যায়।

এতে বাঘাবাড়ি নৌবন্দরসহ এ রুটের বিভিন্ন পয়েন্টে অর্ধশত পণ্যবাহী জাহাজ আটকা পড়েছে। এছাড়া এ কারণে উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলার ১৪টি বাফার গুদামে আসন্ন সেচ মৌসুম উপলক্ষে রাসায়নিক সার মজুদের কাজ বিঘ্নিত হচ্ছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে বলগেটটি উদ্ধার করে এ নৌরুটে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক করতে না পারলে উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলায় ভরা সেচ মৌসুমে রাসায়নিক সারের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে।

এ বিষয়ে সানু পরিবহনের মালিক সানু মাতবর বলেন, নারায়ণগঞ্জ থেকে ফ্রেশ কোম্পানির ৮ হাজার বস্তা সিমেন্ট নিয়ে নগরবাড়ি যাওয়ার সময় লতিফপুরে জাহাজটি পৌঁছলে নাব্য সংকটের কারণে জাহাজটির তলায় ধাক্কা লাগে। এতে সঙ্গে সঙ্গে জাহাজটির তলা ফেটে যায়। ফলে জাহাজের ভিতরে পানি ঢুকে ৩ হাজার বস্তার মতো সিমেন্টের বস্তায় পানি লেগে নষ্ট হয়ে যায়।

তিনি বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে আরিচা বিআইডব্লিউটিএকে খবর দেয়া হয়। সেখান থেকে উদ্ধার জাহাজ এসে দুপুরের পর উদ্ধার কাজ শুরু করে। এখন জাহাজটি পাড়ে টেনে আনা হয়েছে। রাত ১০টা নাগাদ উদ্ধার সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকে এ রুটে আবার জাহাজ চলাচল শুরু করা সম্ভব হবে।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি নৌবন্দরের লেবার এজেন্ট আবুল সরকার বলেন, লতিফপুর সিমেনবাহী বলগেটডুবির কারণে বাঘবাড়ি নৌবন্দরগামী পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে আসন্ন ইরি-বোরো আবাদ মৌসুমে এর প্রভাব পড়তে পাড়ে। অপরদিকে আমাদের লেবাররা কর্মহীন হয়ে পড়বে। এছাড়া সরকারও বিপুল অংকের রাজস্ব হারাবে। তাই তিনি এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বিআইডব্লিউটিএর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল ওয়াহাব মিয়া জানান, দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটি উদ্ধারে দ্রুত কাজ চলছে। আশাকরি আগামীকালের মধ্যে এ নৌরুটে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক হবে।

তিনি আরও বলেন, বিআইডব্লিউটিএ সঠিক সময়ে সঠিক মাপে নদী ড্রেজিং কাজ সম্পন্ন করলে এ দুর্ঘটনা ঘটত না। তিনি এজন্য বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষকে দায়ী করে দ্রুত এ নৌরুটে সঠিক মাপে ড্রেজিং করার জোর দাবি জানান।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি ওয়েলডিপোর অফিস সূত্রে জানা যায়, জাহাজ চলাচল বন্ধ থাকলেও তাদের মজুদ পর্যাপ্ত থাকায় এদিন উত্তরাঞ্চলে জ্বালানি তেল সরবরাহের কোনো সমস্যা হয়নি।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি নৌবন্দর অফিসার ও বিআইডব্লিউটিএর উপসহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটির উদ্ধার কাজ প্রায় শেষের দিকে। এখন আর কোনো সমস্যা নেই।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি বাফার গুদাম ইনচার্জ সোলায়মান হোসেন বলেন, বাঘাবাড়ি বাফার গুদামে পর্যাপ্ত সার মজুদ আছে। ফলে এ দিন সার সরবরাহের কোনো সমস্যা হয়নি।

তলা ফেটে সিমেন্টবাহী বলগেটডুবি, বাঘাবাড়ি নৌরুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ

 শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৭ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে একটি সিমেন্টবাহী বলগেট জাহাজের তলা ফেটে যায়। এতে জাহাজটির বেশকিছু অংশ পানিতে ডুবে গেছে। এ ঘটনার পর থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে বাঘাবাড়ি নৌরুটে সব ধরনের পণ্যবাহী কার্গোজাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে।

উপজেলার বাঘাবাড়ি নৌরুটের পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালারচর ইউনিয়নের লতিফপুর এলাকায় বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে সানু পরিবহন নামের বলগেটটি ডুবে যায়।

এতে বাঘাবাড়ি নৌবন্দরসহ এ রুটের বিভিন্ন পয়েন্টে অর্ধশত পণ্যবাহী জাহাজ আটকা পড়েছে। এছাড়া এ কারণে উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলার ১৪টি বাফার গুদামে আসন্ন সেচ মৌসুম উপলক্ষে রাসায়নিক সার মজুদের কাজ বিঘ্নিত হচ্ছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে বলগেটটি উদ্ধার করে এ নৌরুটে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক করতে না পারলে উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলায় ভরা সেচ মৌসুমে রাসায়নিক সারের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে।

এ বিষয়ে সানু পরিবহনের মালিক সানু মাতবর বলেন, নারায়ণগঞ্জ থেকে ফ্রেশ কোম্পানির ৮ হাজার বস্তা সিমেন্ট নিয়ে নগরবাড়ি যাওয়ার সময় লতিফপুরে জাহাজটি পৌঁছলে নাব্য সংকটের কারণে জাহাজটির তলায় ধাক্কা লাগে। এতে সঙ্গে সঙ্গে জাহাজটির তলা ফেটে যায়। ফলে জাহাজের ভিতরে পানি ঢুকে ৩ হাজার বস্তার মতো সিমেন্টের বস্তায় পানি লেগে নষ্ট হয়ে যায়।

তিনি বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে আরিচা বিআইডব্লিউটিএকে খবর দেয়া হয়। সেখান থেকে উদ্ধার জাহাজ এসে দুপুরের পর উদ্ধার কাজ শুরু করে। এখন জাহাজটি পাড়ে টেনে আনা হয়েছে। রাত ১০টা নাগাদ উদ্ধার সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকে এ রুটে আবার জাহাজ চলাচল শুরু করা সম্ভব হবে।
 
এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি নৌবন্দরের লেবার এজেন্ট আবুল সরকার বলেন, লতিফপুর সিমেনবাহী বলগেটডুবির কারণে বাঘবাড়ি নৌবন্দরগামী পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে আসন্ন ইরি-বোরো আবাদ মৌসুমে এর প্রভাব পড়তে পাড়ে। অপরদিকে আমাদের লেবাররা কর্মহীন হয়ে পড়বে। এছাড়া সরকারও বিপুল অংকের রাজস্ব হারাবে। তাই তিনি এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বিআইডব্লিউটিএর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল ওয়াহাব মিয়া জানান, দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটি উদ্ধারে দ্রুত কাজ চলছে। আশাকরি আগামীকালের মধ্যে এ নৌরুটে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক হবে।

তিনি আরও বলেন, বিআইডব্লিউটিএ সঠিক সময়ে সঠিক মাপে নদী ড্রেজিং কাজ সম্পন্ন করলে এ দুর্ঘটনা ঘটত না। তিনি এজন্য বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষকে দায়ী করে দ্রুত এ নৌরুটে সঠিক মাপে ড্রেজিং করার জোর দাবি জানান।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি ওয়েলডিপোর অফিস সূত্রে জানা যায়, জাহাজ চলাচল বন্ধ থাকলেও তাদের মজুদ পর্যাপ্ত থাকায় এদিন উত্তরাঞ্চলে জ্বালানি তেল সরবরাহের কোনো সমস্যা হয়নি।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি নৌবন্দর অফিসার ও বিআইডব্লিউটিএর উপসহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটির উদ্ধার কাজ প্রায় শেষের দিকে। এখন আর কোনো সমস্যা নেই।

এ বিষয়ে বাঘাবাড়ি বাফার গুদাম ইনচার্জ সোলায়মান হোসেন বলেন, বাঘাবাড়ি বাফার গুদামে পর্যাপ্ত সার মজুদ আছে। ফলে এ দিন সার সরবরাহের কোনো সমস্যা হয়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন